ভয়েস অব পটিয়া: পটিয়ার পূর্ব পাহাড়ে ডালুতে এস্কেবেটর দিয়ে মাটি খনন করে মৎস্য প্রজেক্ট নির্মাণ করছে একটি সিন্ডিকেট। আর এই মাটি প্রতিদিন রাতের আধারে প্রশাসনকে ম্যানেজ করে বিকিকিনি করে চলছে পটিয়ার বিভিন্ন জায়গায়।

পটিয়ায় পাহাড়ের ঢালুতে মাটি খনন করে মৎস্য প্রকল্প নির্মাণ
ভয়েস অব পটিয়া-নিউজ ডেস্ক: পটিয়ার পূর্ব পাহাড়ে ডালুতে এস্কেবেটর দিয়ে মাটি খনন করে মৎস্য প্রজেক্ট নির্মাণ করছে একটি সিন্ডিকেট। আর এই মাটি প্রতিদিন রাতের আধারে প্রশাসনকে ম্যানেজ করে বিকিকিনি করে চলছে পটিয়ার বিভিন্ন জায়গায়।

জানা যায়, জাতীয়তাবাদী তরুণ দলের কেন্দ্রীয় কমিটির সহ-সভাপতি পটিয়া পৌরসভার ৭ নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর নজরুল ইসলামের ছোট ভাই মো: কামরুল ইসলাম এর প্রধান হোতা। তার মাধ্যমে ইয়াছিন, গোলাপ, ফজু, রাতের অন্ধকারে রহিঙ্গাদের দিয়ে এস্কেবেটর মাধ্যমে মাটি খনন করে বিক্রি করার ফলে এলাকায় পরিবেশ দূষণসহ বিভিন্ন পাহাড়ের বনজ, ফলজ গাছের ক্ষতি সাধিত হলেও সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষ রয়েছে নীরব।

গত শনিবার দুপুরে সরেজমিনে ঘুরে দেখা যায় প্রায় ২০০ শতক জায়গায় ৫০ ফুট মাটি খনন করে মৎস্য প্রকল্প তৈরি করছে কামরুল ইসলাম গং। তবে কামরুল ইসলাম দাবী করেন এইটা তাদের খরিদ কৃত জায়গা। উপজেলা নিবার্হী অফিসার রোকেয়া পারভীন ও উপজলা সমবায় অফিসার উদয়ন বড়ুয়া থেকে অনুমোদন নিয়ে এই মাটি খনন কাজ করে মৎস্য প্রকল্প নির্মাণ করছে বলে জানান।
কিন্তু বর্তমানে কৃষি জমি ও পাহাড়ী ঢালুতে মাটি খনন করার সম্পূর্ণ নিষিদ্ধ আইন করলেও অদৃশ্য শক্তির ইশারায় ও স্থানীয় প্রশাসনকে মোটা অংকের টাকা দিয়ে ম্যানেজ করে নির্দ্বাধায় মাটি খনন কাজ চালিয়ে যাওয়ায় পাহাড়ী ডালুতে বসবাসরতদের মাঝে ক্ষোভের সঞ্চার সৃষ্টি হয়েছে। তারা এ ব্যাপারে উর্ধতন কর্তৃপক্ষের মাটি খনন কাজ বন্ধ করে মৎস্য প্রকল্প নামে অবাদি জমি রক্ষা করার জোর দাবি জানান।

এ ব্যাপারে উপজেলা নিবার্হী অফিসার রোকেয়া পারভীন এর সাথে মুঠোফোনে একাধিক বার যোগাযোগ করার চেষ্টা করেও তার বক্তব্য পাওয়া যায়নি।

Like us on https://www.facebook.com/VoiceofPatiyaFans
Share To:

Voice of Patiya

Post A Comment:

0 comments so far,add yours

Note: Only a member of this blog may post a comment.