ভয়েস অব পটিয়াঃ করোনা দুর্যোগে অসহায়-দুঃস্থদের পাশে পটিয়া এসএসসি পরিবার

অসহায়-দুঃস্থদের পাশে পটিয়া এসএসসি পরিবার;করোনা, করোনা ভাইরাস, কোভিড, কোভিড১৯, স্যানিটাইজার, কেরু এন্ড কোম্পানী, ফৌজদারহাট, বাংলাদেশ ইনস্টিটিউট অব ট্রপিকাল এন্ড ইনফেকশাস ডিজিডেজ, বিআইটিআইডি; Corona, Corona Virus, Covid, Covid19, Sanitizer, Carew and Company; Bangladesh Institute of Tropical and Infectious Disease, BITID, IEDCR
অসহায়-দুঃস্থদের পাশে পটিয়া এসএসসি পরিবার

ভয়েস অব পটিয়া
-সংবাদ বিজ্ঞপ্তিঃ
  বিশ্বব্যাপী করোনা ভাইরাসের প্রাদুর্ভাবে মানুষ আজ গৃহবন্দী, বন্ধ স্বাভাবিক জীবনযাত্রা, আয়-রোজগার। যার ফলে এই দুর্যোগে গরিব-দুঃস্থ-অসহায়, নিম্নবিত্ত-মধ্যবিত্ত পরিবারগুলোর স্বাভাবিক জীবনযাত্রা ব্যাহত হচ্ছে। চলমান বৈশ্বিক এ দুর্যোগে এসব পরিবারের পাশে থাকার উদ্যোগ নিয়েছে পটিয়ার উপজেলার SSC 1972-2020, Students of Patiya, Chattogram নামে একটি ফেসবুক গ্রুপ। গ্রুপটিতে সদস্যা হিসেবে রয়েছেন ১৯৭২-২০২০ সালের মধ্যে পটিয়া উপজেলার বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠান থেকে থেকে এস.এস.সি পাশকৃত শিক্ষার্থীরা। গ্রুপটি তৈরি করার খুব অল্প সময়ের মধ্যেই জনপ্রিয়তা লাভ করেছে। বর্তমানে গ্রুপটিতে রয়েছে আট হাজারের বেশি মেম্বার। 

করোনার এই দুর্যোগে অসহায়-গরিব-দুঃস্থ মানুষদেরকে খাদ্য সহায়তা দিতে উদ্যোগ নিয়েছে গ্রুপটির সদস্যরা। এ লক্ষ্যে পটিয়া উপজেলার পৌরসভা ও প্রতিটি ইউনিয়ন থেকে ১৫-২০ জনের সমন্বয়ে একটি করে স্বেচ্ছাসেবক টিম গঠন করা হয়েছে যাদের মাধ্যমে প্রকৃত অসহায়-দুঃস্থদের হাতে খাদ্য সহায়তা সামগ্রী পৌঁছে যায়। ইতিমধ্যে গ্রুপটি দুটি ইউনিয়নের ১৫টি অসহায় পরিবারের মাঝে পৌঁছে দিয়েছে নিত্যপ্রয়োজনীয় খাদ্যসামগ্রী। 

অসহায়-দুঃস্থদের পাশে পটিয়া এসএসসি পরিবার;করোনা, করোনা ভাইরাস, কোভিড, কোভিড১৯, স্যানিটাইজার, কেরু এন্ড কোম্পানী, ফৌজদারহাট, বাংলাদেশ ইনস্টিটিউট অব ট্রপিকাল এন্ড ইনফেকশাস ডিজিডেজ, বিআইটিআইডি; Corona, Corona Virus, Covid, Covid19, Sanitizer, Carew and Company; Bangladesh Institute of Tropical and Infectious Disease, BITID, IEDCR
গ্রুপটির এডমিনরা জানান, ‘আমাদের গ্রুপের প্রধান লক্ষ্য মানুষকে সহযোগিতা করা এবং সবার সাথে ভালো একটি সম্পর্ক গড়ে তোলা। আমরা মনে করি বর্তমান এই সংকটে অসহায় মানুষদের পাশে দাঁড়ানোটা আমাদের নৈতিক দায়িত্ব। মানবিক দৃষ্টিকোণ থেকে আমরা এই উদ্যোগ হাতে নিয়েছি। আমাদের টার্গেট পুরো পটিয়া উপজেলার ১০০০ পরিবারকে খাদ্য সহায়তা দেওয়া। যার জন্য প্রয়োজন প্রায় ৮ লক্ষ টাকা। আমাদের গ্রুপের সদস্যদের সহায়তায় এই পর্যন্ত এক লক্ষ পঞ্চাশ হাজার টাকার মতো সংগ্রহ করতে পেরেছি। আরো প্রয়োজন সাড়ে ছয় লক্ষ টাকার মত। ইতোমধ্যে আমরা খাদ্য সহায়তার লক্ষ্যে উপহারসামগ্রীগুলো পৌঁছে দেওয়ার কাজ শুরু করে দিয়েছি।’

‘তাছাড়া, আমরা প্রত্যেকটা ইউনিয়ন থেকে একটি করে স্বেচ্ছাসেবক টিম তৈরি করেছি। পুরো পটিয়াতে আমাদের ৩৫০ জন স্বেচ্ছাসেবক রয়েছেন। আমরা তাদের মাধ্যমে খাদ্যসামগ্রী পৌঁছে দিব। গ্রুপের সদস্যদের অবিচল লক্ষ্য, নতুন নতুন আইডিয়াকে কাজে লাগিয়ে আমাদের কার্যক্রম অনেক সুন্দরভাবে এগিয়ে যাচ্ছে। আমরা সবাই যদি নিজ নিজ জায়গা থেকে এগিয়ে আসি তাহলে এই উদ্যোগ সফলভাবে বাস্তবায়ন করতে পারবো।
সবার কাছে বিনীত অনুরোধ আপনারা আপনাদের সামর্থ্য অনুযায়ী আমাদের সহযোগিতায় এগিয়ে আসুন। আমাদের এ কার্যক্রম করোনা পরিস্থিতি স্বাভাবিক না হওয়া পর্যন্ত চলমান থাকবে। আপনাদের সহযোগিতা আমাদের কার্যক্রমকে এগিয়ে নিতে সহায়তা করবে।’


জাতীয়-আন্তর্জাতিক সংবাদসহ পটিয়া সম্পর্কে জানতে ও জানাতে আমাদের ফেসবুক পেজের সাথে থাকুন।
Share To:

Voice of Patiya

Post A Comment:

0 comments so far,add yours