ভয়েস অব পটিয়াঃ পটিয়া পিডিবি’র অনিয়ম-দুর্নীতি, দালালদের দৌরাত্ম, সাধারণ গ্রাহকদের হয়রানী বেড়েই চলছে। মিটার রিডারদের মনগড়া বিল করার কারণে চরম ভোগান্তির শিকার হচ্ছে সাধারণ গ্রাহকরা।

পটিয়া বিদ্যুৎ বিতরণ বিভাগের (পিডিবি) অনিয়ম-দুর্নীতি, গ্রাহকদের হয়রানী; ভয়েস অব পটিয়া; পটিয়া; চট্টগ্রাম দক্ষিণ জেলা; চট্টগ্রাম; চট্টগ্রাম-কক্সবাজার মহাসড়ক; ইন্দ্রপুল লবণ শিল্প, পটিয়া লবণ শিল্প, পটিয়া বাইপাস, চাঁনখালী খাল, কক্সবাজার; শ্রীমাই খাল; শ্রীমতি খাল; Voice of Patiya
ছবিঃ পিডিবি পটিয়া দালাল গ্রুপের প্রধান সমন্বয়ক মনছুর
ভয়েস অব পটিয়া-নিউজ ডেস্কঃ পটিয়া বিদ্যুৎ বিতরণ বিভাগের (পিডিবি) অনিয়ম-দুর্নীতি, দালালদের দৌরাত্ম, সাধারণ গ্রাহকদের হয়রানী বেড়েই চলছে।

মিটার রিডারদের মনগড়া বিল করার কারণে চরম ভোগান্তির শিকার হচ্ছে সাধারণ গ্রাহকরা। ইচ্ছাকৃতভাবে মনগড়া বিল করার কারণে ব্যবহারের অতিরিক্ত বিলের বোঝা বইতে হচ্ছে গ্রাহকদের। অতিরিক্ত বিলের ব্যাপারে অভিযোগ জানাতে গেলে অবৈধভাবে মামলা দেয়ার হুমকিতে হাতিয়ে নেয়া হচ্ছে মোটা অংকের টাকা। এনালগ মিটারের পরিবর্তে ডিজিটাল মিটার স্থাপনের পরামর্শ দেয় রিডাররা। এতে নতুন মিটার স্থাপনে প্রতি মিটারে টেকনিশিয়ানরা হাতিয়ে নেয় ৫-১০ হাজার টাকা।

জানা যায়, পটিয়া বিদ্যুৎ বিতরণ বিভাগের (পিডিবি) এক শ্রেণির কর্মকর্তা-কর্মচারীদের যোগসাজশে অনিয়ম-দুর্নীতির মাধ্যমে সাধারণ গ্রাহকদের হয়রানী করতে তৎপর একটি দালাল গ্রুপ। এই দালাল গ্রুপের প্রধান সমন্বয়ক হিসেবে কাজ করছে মনছুর নামক এক দালাল, তার সাথে সহায়ক হিসেবে আছে লাইনম্যান এনাম। দালাল মনছুর ও লাইনম্যান এনামের নেতৃত্বে পিডিবি পটিয়ার কর্মকর্তা-কর্মচারী-প্রকৌশলীদের প্রত্যক্ষ মদদে পটিয়ার বিভিন্ন এলাকা তার্গেট করে গ্রাহকদের মনগড়া বিল প্রদানপূর্বক তা মিটমাটে মোটা অংকের টাকা দাবি করে এই দালাল চক্রটি। কোন কারণ ছাড়াই মিটার খুলে নেয়া, সংযোগ বিচ্ছিন্ন করা, পুনরায় সংযোগের জন্য বিপুল অংকের টাকা দাবি করা, টাকা না দিলে অবৈধভাবে মামলা দায়েরের হুমকি প্রদান করে জিম্মি করে বেড়াচ্ছে সাধারণ গ্রাহকদের। 

এছাড়াও ঘুষ ছাড়া মেলে না নতুন সংযোগ, মেরামত হয় না বিদ্যুৎলাইনের ত্রুটি। নতুন সংযোগ নিতে হলে/এনালগের পরিবর্তে ডিজিটাল মিটার নিতে হলে পিডিবি পটিয়া অফিসের সামনে অবস্থিত দালাল মনছুরের মালিকানাধীন ‘সামি এন্টারপ্রাইজ’ থেকে দ্বিগুণ মূল্যে মিটার কিনতে বাধ্য করা হয় গ্রাহকদের, অন্যথায় সংযোগ মিলে না। সংযোগ নিতে দীর্ঘসূত্রিতা, ঠিকাদারের চাঁদাবাজি, সিস্টেমের মধ্যে বিদ্যুৎ চুরি, লো-ভোল্টেজ সাপ্লাই, মিটার রিডারদের অতিরিক্ত বিল দিয়ে ভোগান্তি, দালাল দিয়ে হয়রানি, ইলেকট্রিশিয়ান ও বিদ্যুৎ পরিদর্শকদের হয়রানি, বিভিন্ন বাসাবাড়ির ওপর দিয়ে ঝুঁকিপূর্ণ বিদ্যুৎ সংযোগ থাকায় প্রাণহানির ঘটনাসহ বিভিন্ন অনিয়ম-দুর্নীতির অভিযোগ তো রয়েছেই।

দালাল গ্রুপের সমন্বয়ক মনছুরের নামে ইতিমধ্যে অনেক অভিযোগ সংশ্লিষ্ট বিভাগে জমা রয়েছে, তা সত্ত্বেও পিডিবির উর্ধ্বতন কর্মকর্তারা এ ব্যাপারে নীরব। সাধারণ গ্রাহকদের কাছ থেকে অবৈধভাবে টাকা হাতিয়ে নিয়ে এসব দালালরা বনে গেছে কোটি কোটি থাকা মূল্যের গাড়ি-বাড়ির মালিক। পটিয়া বিদ্যুৎ বিতরণ বিভাগের কর্মকর্তা-কর্মচারী-প্রকৌশলীদের অনিয়ম-দুর্নীতি নিয়ে উর্ধ্বতন কর্মকর্তাদের কাছে দফায় দফায় অভিযোগ জানালেও সুরাহা হয় নি কোনকিছুরই। 

এ ব্যাপারে জানতে চাইলে, পটিয়া বিদ্যুৎ বিতরণ বিভাগের (পিডিবি) কর্মকর্তাদের কাছ থেকে এর কোন সদুত্তর পাওয়া যায়নি।

পটিয়ার সাধারণ গ্রাহকরা অবিলম্বে পটিয়া বিদ্যুৎ বিতরণ বিভাগের (পিডিবি) কর্মকর্তা-কর্মচারী-দালালদের অনিয়ম-দুর্নীতি রোধকল্পে যথাযথ ব্যবস্থা নেয়াসহ গ্রাহক হয়রানী রোধের আবেদন জানিয়েছেন।


পটিয়া সম্পর্কে জানতে ও জানাতে আমাদের ফেসবুক পেজের সাথে থাকুন।
Share To:

Voice of Patiya

Post A Comment:

0 comments so far,add yours