ভয়েস অব পটিয়ায় আপনাকে স্বাগতম | Welcome to Voice of Patiya
পটিয়ার মানচিত্র | Map of Patiya
পটিয়াকে জেলা চাই | Demanding Patiya as a District
শাহ আমানত সেতু | নতুন ব্রীজ | Shah Amanat Bridge
পটিয়া কেন্দ্রীয় স্মৃতিসৌধ | Patiya Central Cenotaph
করোনা : দেশে আরও ৩ মৃত্যু, নতুন শনাক্ত ৩৫; করোনা, করোনা ভাইরাস, কোভিড, কোভিড১৯, স্যানিটাইজার, কেরু এন্ড কোম্পানী, Corona, Corona Virus, Covid, Covid19, Sanitizer, Carew and Company

ভয়েস অব পটিয়া-ন্যাশনাল ডেস্কঃ দেশে গত ২৪ ঘণ্টায় করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে আরও ৩ জনের মৃত্যু হয়েছে। মোট মৃত্যুর সংখ্যা ১২। নতুন করে আরও ৩৫ জন করোনা রোগী শনাক্ত করা গেছে। এ নিয়ে দেশে মোট করোনাক্রান্ত রোগীর সংখ্যা দাঁড়িয়েছে ১২৩ জনে।

সোমবার (০৬ এপ্রিল) স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের অনলাইন ব্রিফিংয়ে এ তথ্য জানানো হয়। স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের রোগতত্ত্ব, রোগনিয়ন্ত্রণ ও গবেষণা প্রতিষ্ঠানের (আইইডিসিআর) পরিচালক অধ্যাপক ডা. মীরজাদী সেব্রিনা ফ্লোরা জানান, গত ২৪ ঘণ্টায় ৩ জনের মৃত্যু হয়েছে। আরও নতুন করে আক্রান্ত হয়েছেন ৩৫ জন। এ পর্যন্ত ১২ জনের মৃত্যু হয়েছে। এই নিয়ে মোট আক্রান্ত হয়েছেন ১২৩ জন। এদের মধ্যে মোট ৩৩ জন সুস্থ হয়ে উঠেছেন। 
এদিকে স্বাস্থ্যমন্ত্রীর দেওয়া করোনা ভাইরাস সংক্রান্ত বিষয়ে শনাক্ত এবং মৃত্যু সম্পর্কিত তথ্যের সঙ্গে আইইডিসিআরের দেওয়া তথ্যের মিল না থাকায় ব্রিফিংয়ে সাংবাদিকদের প্রশ্নের মুখে পড়েন স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের মহাপরিচালক অধ্যাপক ডা. আবুল কালাম আজাদ। এ সময় তিনি বলেন, ‘স্বাস্থ্যমন্ত্রী সে মুহূর্তে যে তথ্য দিয়েছিলেন তা তখন সঠিক ছিল। মিটিংয়ে বক্তৃতার সময় আইইডিসিআরে ফোন দিয়ে জানতে চাওয়া হয়। নামের বানানের ভুল থাকার কারণেই এই ধরনের গড়মিল হয়েছে। পরে যাচাই বাছাইয়ের মাধ্যমে জানা যায় এই দুইটা নামই এক ব্যক্তির ছিল। দুটো তথ্যই আইইডিসিআর দিয়েছিল। এতে বিভ্রান্তি হওয়ার কিছুই নেই। আমাদের এই সর্বশেষ বক্তব্যের পরে সব বিভ্রান্তির অবসান ঘটবে বলে মনে করি।’
করোনা : স্যানিটাইজার উৎপাদন করায় কেরুর এমডিকে বদলি; করোনা, করোনা ভাইরাস, কোভিড, কোভিড১৯, স্যানিটাইজার, কেরু এন্ড কোম্পানী, Corona, Corona Virus, Covid, Covid19, Sanitizer, Carew and Company
রাষ্ট্রয়াত্ত কোম্পানি কেরু এন্ড কোম্পানীর স্যানিটাইজার ‘কেরুজ হ্যান্ড স্যানিটাইজার’

ভয়েস অব পটিয়া-ন্যাশনাল ডেস্কঃ করোনা প্রাদুর্ভাবের শুরুতে জাতীয় চাহিদার প্রেক্ষিতে তড়িৎ গতিতে স্যানিটাইজার উৎপাদনের সিদ্ধান্ত নেয়ার পরপরই বদলি করা হয়েছে দেশের একমাত্র রাষ্ট্রয়াত্ত ডিস্ট্রিলারি প্রতিষ্ঠান ‘কেরু অ্যান্ড কোং (বাংলাদেশ) লিমিটেড’র ব্যবস্থাপনা পরিচালক (এমডি) জাহিদ আলী আনছারীকে। 

২৪ মার্চ চিনি ও খাদ্য শিল্প করপোরেশনের চীফ অব পার্সোনাল মোঃ রফিকুল ইসলাম স্বাক্ষরিত এক অফিস আদেশে তাকে ‘ইক্ষু উন্নয়ন ও গবেষণা পরিদফতরে’ সংযুক্ত করা হয়েছে। আকস্মিক এই বদলিতে বিষ্ময় প্রকাশ করেছেন প্রতিষ্ঠানটির কর্মকর্তা-কর্মচারীরা। তাদের মতে, ‘জাতির এই ক্রান্তিলগ্নে যখনই হ্যান্ড স্যানিটাইজারের বিপুল চাহিদা-তখনই তড়িৎ গতিতে হ্যান্ড স্যানিটাইজার উৎপাদনের সিদ্ধান্ত নেন এমডি জাহিদ আলী আনছারী। তার এই তড়িৎ সিদ্ধান্তের বিষয়টি উর্ধ্বতন কর্মকর্তারা সহজভাবে মেনে নিতে পারেননি। এ কারণেই অযৌক্তিকভাবে বদলি করা হয় জাহিদ আলী আনছারীকে।’ 
এই বদলির ফলে সুলভমূল্যে দেশীয় হ্যান্ড স্যানিটাইজার মানুষের হাতে পৌঁছে দেয়ার উদ্যোগ বাধাগ্রস্ত হচ্ছে বলে জানা গেছে। 

উল্লেখ্য, করোনা ভাইরাসের প্রভাবে বিশ্বব্যাপী ভয়াবহ পরিস্থিতির সৃষ্টি হয়েছে। বাংলাদেশেও উদ্ভব হয়েছে নজিরবিহীন সঙ্কটময় পরিস্থিতির। দেশে সঙ্কট তৈরি হয়েছে হ্যান্ড স্যানিটাইজারের। ঝোপ বুঝে কয়েকটি স্যানিটাইজার উৎপাদনকারী কয়েকটি কোম্পানিও দাম বাড়িয়েছে কয়েকগুণ বেশি। এহেন পরিস্থিতিতে তড়িৎ সিদ্ধান্তে হ্যান্ড স্যানিটাইজার উৎপাদন ও বিপণন শুরু করেছে বাংলাদেশ চিনি ও খাদ্য শিল্প করপোরেশনের (বিএসএফআইসি) আওতাভুক্ত প্রতিষ্ঠান কেরু অ্যান্ড কোম্পানি (বাংলাদেশ) লিমিটেড। প্রতিষ্ঠানটির ব্যবস্থাপনা পরিচালক (এমডি) জাহিদ আলী আনছারীর তত্ত্বাবধানে দ্রুততম সময়ের মধ্যে এটির বাজারজাত শুরু হয়। এ হ্যান্ড স্যানিটাইজারের মাধ্যমে ৯৯.৯৯ শতাংশ জীবাণু নষ্ট হবে বলে জানিয়েছেন কেরুর রসায়নবিদরা। 
‘কেরুজ হ্যান্ড স্যানিটাইজার’ নামে এ পণ্য বাজারে ব্যাপক সাড়া ফেলেছে। গত ২৩ মার্চ থেকে ‘কেরুজ স্যানিটাইজারের’ বিপণন শুরু হয়। প্রথম দিকে প্রায় ৫০ কার্টন (প্রতি কার্টনে ১০০ বোতল) উৎপাদন করা হয়েছে। এর পরদিনই ২৪ মার্চ বাংলাদেশ চিনি ও খাদ্য শিল্প করপোরেশনের চিফ অব পার্সোনাল মোঃ রফিকুল ইসলাম স্বাক্ষরিত এক অফিস আদেশে অবসর গমনের সুবিধার্থে কেরু এন্ড কোম্পানির এমডি জাহিদ আলী আনছারীকে সদর দফতরের ‘ইক্ষু উন্নয়ন ও গবেষণা পরিদফতরে’ সংযুক্ত করতে বলা হয়।

করোনা : ইয়েস ক্লাবের উদ্যোগে গরিব-দুস্থদের মাঝে খাদ্য সামগ্রী বিতরণ
করোনা : ইয়েস ক্লাবের উদ্যোগে গরিব-দুস্থদের মাঝে খাদ্য সামগ্রী বিতরণ


ভয়েস অব পটিয়া-সংবাদ বিজ্ঞপ্তিঃ করোনা মহামারীর এই দূর্যোগে চারিদিকে কর্মহীন জনজীবন। করোনা সংক্রমণের ঝুঁকি এড়াতে দেশব্যাপী দৈনন্দিন সকল ধরনের চলাচল-কাজকর্মে সীমা আরোপ করা হয়েছে। এতে কর্মহীন হয়ে সবচেয়ে অবেহেলিতভাবে দিনাতিপাত করছে গরিব-দুস্থ খেটে খাওয়া মানুষরা। এরই পরিপ্রেক্ষিতে গরিব ও দুস্থ পরিবারের সদস্যরা যাতে অনাহারে-অর্ধাহারে না ভুগে সে লক্ষ্যে পটিয়া উপজেলার জিরি ইউনিয়াধীন কৈয়গ্রামে ইয়েস ক্লাবের উদ্যোগে ৫০ টি গরিব-দুস্থ পরিবারের মাঝে চাল, ডাল, আলু, পেঁয়াজ, তেল, লবণ সহ নিত্যপ্রয়োজনীয় সামগ্রী বিতরণ করা হয়। এতে ইয়েস ক্লাবের সদস্যরা উক্ত গ্রামের জনগণের মাঝে ‘করোনা ভাইরাস’ প্রতিরোধে করণীয়-সচেতনতার লক্ষ্যে প্রচারণা চালায়।



জাতীয়-আন্তর্জাতিক সংবাদসহ পটিয়া সম্পর্কে জানতে ও জানাতে আমাদের ফেসবুক পেজের সাথে থাকুন।
করোনা বায়ুর মাধ্যমে ছড়ায় না : বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা; করোনা, করোনা ভাইরাস, কোভিড19, বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা, WHO, Corona, Covid19
করোনা বায়ুর মাধ্যমে ছড়ায় না : বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা

ভয়েস অব পটিয়া-ইন্টারন্যাশনাল ডেস্কঃ ‘করোনা’ বায়ুবাহিত কোন রোগ নয়। মানুষের নিঃশ্বাস, হাঁচি-কাশিতেই এটি একজন থেকে অপরজনের দেহে সংক্রমিত হয়। যদিও এর আগে বলা হয়েছিল, বাতাসে এই জীবানু প্রায় ১১ ঘন্টা বেঁচে থাকতে পারে। কিন্তু বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার বর্তমান সমীক্ষা বলছে, তিন ঘন্টার বেশি কোনও মতেই এই জীবানু বেঁচে থাকতে পারে না। এখনও পর্যন্ত বিশ্বজুড়ে করোনায় মৃতের সংখ্যা দাঁড়িয়েছে প্রায় ২৫ হাজারে। আক্রান্তের সংখ্যা সাড়ে ৫ লক্ষ।

বৃহস্পতিবার বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা একটি গবেষণা রিপোর্ট প্রকাশ করে। সেই রিপোর্টে তারা লিখেছেন, সারা বিশ্বের নিরিখেই তাঁরা এই গবেষণাটি চালিয়েছিলেন। স্পেন, ইতালি, চীন প্রভৃতি দেশে আক্রান্ত মানুষের উপর গবেষণা চালিয়ে কোনভাবেই তাঁরা এই রোগটি বায়ুবাহিত সেটার প্রমাণ পাননি। বায়ুর সাথে কোন রকম যোগসূত্রও খুঁজে পাননি। রিপোর্টে তারা জানিয়েছেন, খুব ক্লোজ কনটাক্ট থেকেই এই রোগ বেশি ছড়ায়।

বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার রিপোর্টঃ-

তাই এই রোগের সংক্রমণ থেকে বাঁচতে সামাজিক দূরত্ব বজায় রাখুন। হাঁচি, কাশির সময় অবশ্যই মুখ ঢাকুন। একে অপরের সাথে যতটা সম্ভব কম কথা বলুন।

‘করোনা ভাইরাস’ সর্দি, জ্বরের সঙ্গে আঘাত হানে শ্বাসযন্ত্রে। যে কারণে তীব্র শ্বাসকষ্ট এই রোগের অন্যতম উপসর্গ। খাবারের বাটি বা হাতে কোনও পাত্র ধরা আছে এই অবস্থায় হাঁচি-কাশি দিবেন না। কারণ, ওই তখন ওই বাটি বা পাত্র থেকেও জীবাণু ছড়াতে পারে।
তাছাড়া ওই রিপোর্টে আরো বলা হয়েছে, করোনা ভাইরাসে সংক্রমণ আগের থেকে অনেকটাই কমে এসেছে ইতালিতে। তবে বিশ্বের পরিস্থিতি এখন খুবই কঠিন। সবচেয়ে বেশি করুণ অবস্থা ইউরোপের দেশগুলোতে। সেখানে মৃত্যুর সংখ্যাও সবচেয়ে বেশি।


চীন থেকে এলো আলিবাবার কিট; করোনা, করোনা ভাইরাস, কোভিড-১৯, সংবাদ, সারাদেশ, বাংলাদেশ, চীন, আলিবাবা, জ্যাক মা, জ্যাক মা ফাউন্ডেশন, Corona, Covid-19, China-Bangladesh, China embassy, Alibaba, Jack Ma, Jack Ma Foundation
চীন সরকারের পক্ষ থেকে করোনা শনাক্তের কিট হস্তান্তর অনুষ্ঠান ‘ভালোবাসার নৌকা পাহাড় বাইয়া চলে’

ভয়েস অব পটিয়া-ন্যাশনাল ডেস্কঃ চীন থেকে পাঠানো করোনা ভাইরাস পরীক্ষার আরও ৩০ হাজার কিট বাংলাদেশে এসে পৌঁছেছে। বাংলাদেশকে এ সব কিট উপহার হিসেবে পাঠিয়েছে চীনের অনলাইন বিপণন প্রতিষ্ঠান আলিবাবা ও জ্যাক মা ফাউন্ডেশন। শুক্রবার (২৭ মার্চ) বিকেলে চীনের ফ্লাইটটি ঢাকায় এসে পৌঁছায়। স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ মন্ত্রণালয়ের কাছে এই কিট হস্তান্তর করা হয়েছে বলে জানিয়েছে বাংলাদেশের চীনা দূতাবাস। 



এর আগে এক টুইট বার্তায় বাংলাদেশসহ আফগানিস্তান, কম্বোডিয়া, লাওস, মালদ্বীপ, মঙ্গোলিয়া, মিয়ানমার, নেপাল, পাকিস্তান ও শ্রীলঙ্কা’কে মাস্ক, টেস্ট কিট আর নিরাপত্তা পোশাক অনুদান হিসেবে দেয়ার ঘোষণা দিয়েছিলেন আলিবাবার প্রতিষ্ঠাতা জ্যাক মা। টুইটারে জ্যাক মা লেখেন, ১৮ লাখ মাস্ক, ২ লাখ ১০ হাজার টেস্টিং কিট, ৩৬ হাজার প্রটেক্টিভ স্যুট, ভেন্টিলেটর এবং থার্মোমিটার ‘করোনা ভাইরাস’ মোকাবেলায় বাংলাদেশসহ ১০টি দেশে অনুদান হিসেবে দেয়া হবে। বাংলাদেশের পাশাপাশি এসব সরঞ্জাম পাবে আফগানিস্তান, কম্বোডিয়া, লাওস, মালদ্বীপ, মঙ্গোলিয়া, মিয়ানমার, নেপাল, পাকিস্তান ও শ্রীলঙ্কা। 


এর আগে বৃহস্পতিবার (২৬ মার্চ) বিকেলে চীন সরকারের পক্ষ থেকে করোনা ভাইরাস শনাক্তের জন্য ১০ হাজার করোনা শনাক্তকরণ কিট, প্রথম সারির চিকিৎসকদের জন্য ১০ হাজার পিপিই এবং এক হাজার থার্মোমিটার পাঠিয়েছে। বিশেষ বিমানে আসা এসব সরঞ্জামের বক্সের গায়ে লেখা ছিল ‘ভালোবাসার নৌকা পাহাড় বাইয়া চলে।’ ‘করোনা ভাইরাস’ মহামারী সৃষ্টের পর প্রথম দফায় দুই হাজার টেস্টিং কীট এবং চিকিৎসা সামগ্রী দিয়েছিল চীন। এ নিয়ে সব মিলিয়ে চীন থেকে প্রায় ৪২ হাজার টেস্টিং কিট এসেছে।

করোনা : ২৬ মার্চ থেকে ১০ দিনের ছুটি; নামছে সেনাবাহিনী; ভয়েস অব পটিয়া; পটিয়া; চট্টগ্রাম দক্ষিণ জেলা; চট্টগ্রাম; চট্টগ্রাম-কক্সবাজার মহাসড়ক; ইন্দ্রপুল লবণ শিল্প, পটিয়া লবণ শিল্প, পটিয়া বাইপাস, চাঁনখালী খাল, কক্সবাজার; শ্রীমাই খাল; শ্রীমতি খাল; মুজিববর্ষ, শিক্ষাঙ্গন, Voice of Patiya
করোনা : ২৬ মার্চ থেকে ১০ দিনের ছুটি; নামছে সেনাবাহিনী
ভয়েস অব পটিয়া-ন্যাশনাল ডেস্কঃ করোনা ভাইরাসের বিস্তার ঠেকাতে ২৬ মার্চ (বৃহষ্পতিবার) থেকে সাপ্তাহিক ছুটিসহ ০৪ এপ্রিল (শনিবার) পর্যন্ত টানা ১০ দিনের ছুটি পাচ্ছেন সরকারি-বেসরকারি প্রতিষ্ঠানের কর্মকর্তা-কর্মচারীরা। এসময় জরুরি সেবা ছাড়া সব বন্ধ থাকবে। 
তাছাড়া ২৪ মার্চ (মঙ্গলবার) থেকে দেশের বিভাগীয় ও জেলা শহরগুলোয় সশস্ত্র বাহিনী জেলা প্রশাসনকে সহায়তা করার জন্য নিয়োজিত থাকবে। জেলা ম্যাজিস্ট্রেটসহ তাদের নিজ নিজ এলাকার সশস্ত্র বাহিনীর কমান্ডারদের কাছে চাহিদাপত্র দিয়ে সহায়তা গ্রহণ করবেন। বেসামরিক প্রশাসনকে সহায়তা করবে সেনাবাহিনী।

সোমবার (২৩ মার্চ) বিকেলে মন্ত্রীপরিষদ সচিব খন্দকার আনোয়ারুল ইসলাম ব্রিফিংয়ে এ তথ্য জানান। তিনি বলেন, ‘২৬ মার্চ সরকারি ছুটি, এর সঙ্গে ২৭-২৮ তারিখ সাপ্তাহিক ছুটি রয়েছে। সেই সাথে ২৯ থেকে ২ এপ্রিল পর্যন্ত সাধারণ ছুটি ঘোষণা করা হচ্ছে। ৩ ও ৪ এপ্রিল আবার সাপ্তাহিক ছুটি রয়েছে। তবে ওষুধের দোকান, কাঁচাবাজার সব খোলা থাকবে।’ 
মন্ত্রীপরিষদ সচিব আরো বলেন, ‘করোনা ভাইরাস বিস্তৃত হওয়ার কারণে সরকার এ সিদ্ধান্ত নিয়েছে। কোনোভাবেই যেন মানুষ জরুরী বিষয় ছাড়া বাড়ির বাইরে না আসে। আমরা দেখেছি বিনোদনমূলক এলাকায় ভিড় করেছে। এসময় যদি প্রয়োজনীয় কাজ করতে হয় অনলাইনে করতে হবে। যারা প্রয়োজন মনে করবে তারা খোলা রাখবে।’
পটিয়ায় মুজিববর্ষ উপলক্ষ্যে স্মারক পাবে ১০ হাজার শিক্ষার্থী;ভয়েস অব পটিয়া; পটিয়া; চট্টগ্রাম দক্ষিণ জেলা; চট্টগ্রাম; চট্টগ্রাম-কক্সবাজার মহাসড়ক; ইন্দ্রপুল লবণ শিল্প, পটিয়া লবণ শিল্প, পটিয়া বাইপাস, চাঁনখালী খাল, কক্সবাজার; শ্রীমাই খাল; শ্রীমতি খাল; মুজিববর্ষ, শিক্ষাঙ্গন, Voice of Patiya
পটিয়ায় মুজিববর্ষ উদযাপনের প্রস্তুতি সভায় মোড়ক উন্মোচন

ভয়েস অব পটিয়া
-সংবাদ বিজ্ঞপ্তিঃ 
মুজিববর্ষ উপলক্ষ্যে পটিয়া উপজেলার ১০ হাজার শিক্ষার্থীর মাঝে মুজিববর্ষের স্মারক হিসেবে টিশার্ট, লোগো ও মগ বিতরণের উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে। আগামীকাল মঙ্গলবার ১৭ মার্চ সকাল ১০ টায় একযোগে উপজেলার ২২২ টি প্রাথমিক, মাধ্যমিক বিদ্যালয় ও কলেজে এ অনুষ্ঠানমালা শুরু হবে। এসময় শতশত কবুতর ও বেলুন উড়িয়ে বঙ্গবন্ধু ঘোষিত সাবেক মহকুমা (জেলা) বৃহত্তর পটিয়ায় মুজিববর্ষের সূচনা হবে। থাকবে জাতীয় সংগীত এবং ১০০ প্রতিবন্ধীকে হুইল চেয়ার বিতরণ কর্মসূচি।
দিল্লিতে মুসলিমদের চোখে ঢালা হয়েছে এসিড, অন্ধ অনেকেই
দিল্লীতে মুসলমানদের শান্তিপূর্ণ সমাবেশে হামলা চালায় হিন্দুত্ববাদী সন্ত্রাসীরা

ভয়েস অব পটিয়া-আন্তর্জাতিক ডেস্কঃ দিল্লিতে মুসলমানদের শান্তিপূর্ণ সমাবেশে হিন্দুত্ববাদী সন্ত্রাসীদের হামলায় টানা চার দিনে এ পর্যন্ত ৩৪ জনের মৃত্যুর খবর পাওয়া গেছে। আহত হয়েছেন দুই শতাধিক। আহতদের অনেকের অবস্থাই আশঙ্কাজনক। 

এদিকে হাসপাতালের চিকিৎসকরা নতুন এক তথ্য দিয়েছেন। তারা বলেছেন, আহত অনেকের চোখে ঢালা হয়েছে এসিড। যার ফলে অন্ধ হয়ে গেছেন অনেকেই। কারো পুরো মুখমণ্ডল ঝলসে গেছে। অনেকের মাথায় গুরুতর চোট। আহতদের মধ্যে থেকে অন্তত ৪৬ জনের শরীরে বুলেটের ক্ষত মিলেছে। 
ভারতের সংবাদমাধ্যম জানাচ্ছে, মুস্তাফাবাদ থেকে বেশ কিছু আহত মানুষ চিকিৎসার জন্য এসেছেন হাসপাতালে। তাদের অনেকের চোখে এসিড ঢালা হয়েছে। এরইমধ্যে দৃষ্টি হারিয়েছেন চার জন। খুরশীদ নামে এক জনের দুচোখই নষ্ট হয়ে গেছে এসিডের প্রভাবে, আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর বাধায় টেগ বাহাদুর হাসপাতাল থেকে লোকনায়ক জয়প্রকাশ হাসপাতালে আসার জন্য অ্যাম্বুলেন্স সেবাও পাননি তিনি। রিকশায় এসেছেন। দুই চোখসহ পুরো মুখ ঝলসে গেছে ওয়াকিল নামের আরেক জনের। 
দিল্লির জাফরাবাদ-মৌজপুর এখন ফাঁকা হয়ে গেলেও উত্তেজনা থামেনি। এলাকা থমথমে। ফাঁকা রাস্তায় পাথর, ইট, ভাঙা কাচ, ভাঙা লোহার রড পড়ে আছে। দেখা গেছে, বেছে বেছে মুসলিমদের দোকানগুলো পোড়ানো হয়েছে। 

আন্তর্জাতিক গণমাধ্যমগুলো জানাচ্ছে, ভারতে কট্টর উগ্র হিন্দুত্ববাদী সন্ত্রাসীদের হামলায় আশ্রয়হীন হয়ে পড়েছে শত শত মুসলিম পরিবার। তারা শহরের নিরাপদ এলাকাগুলোতে আশ্রয় নেয়ার চেষ্টা করছেন। বিভিন্ন মহল্লায় ঢুকে বেছে বেছে মুসলিমদের বাড়িঘরে আগুন দেওয়া হয়েছে। দেদারসে করা হচ্ছে লুটপাট। বাদ যায়নি মসজিদ-মাদরাসাও। এমনকি মসজিদের ভেতরে ঢুকে নামাজরত অবস্থায় মুসল্লিদের বেধড়ক পেটানো হয়েছে। গুলিও করা হয়েছে মসজিদের ইমামসহ মুসল্লিদের। মসজিদ আগুন দিয়ে পুঁড়িয়ে দিয়েছে হিন্দুত্ববাদী সন্ত্রাসীরা, মসজিদের মিনারে হিন্দুদের দেবতা হনুমানের পতাকা টাঙানো হয়েছে। আক্রান্ত মুসলিমরা নিরাপত্তার জন্য পুলিশে খবর দিলেও পুলিশ এতে সায় দেয়নি বরংচ হিন্দুত্ববাদী সন্ত্রাসীদের পক্ষ নিয়ে জোরালো হামলা করেছে। 

এদিকে সহিংসতার সময় পুলিশের ভূমিকা নিয়ে প্রশ্ন তুলেছে দিল্লির আদালত। 

বৃহস্পতিবার ধর্মীয় স্বাধীনতা বিষয়ক মার্কিন কমিশন বলেছে, দিল্লিতে বেছে বেছে মুসলিমদের ওপর হামলা চালানো হয়েছে এবং গুজরাট মডেলের ন্যায় দিল্লীতেও মুসলিম গণহত্যা চালানো হচ্ছে। নির্লিপ্ত থেকে উগ্রহিন্দুত্ববাদী সন্ত্রাসীদের সায় দেয়ায় মোদী সরকারের সমালোচনা করেছে সংস্থাটি।

* আল-জাজিরা, সিএনএন, দ্যা ওয়্যার , হিন্দুস্থান টাইমস অবলম্বনে
ফুলের মালায় সিক্ত বিশ্বকাপজয়ী দিপু, ফুলের মালায় বরণ করা হলো বিশ্বকাপজয়ী যুবাদের; ভয়েস অব পটিয়া; পটিয়া; চট্টগ্রাম দক্ষিণ জেলা; চট্টগ্রাম; চট্টগ্রাম-কক্সবাজার মহাসড়ক; ইন্দ্রপুল লবণ শিল্প, পটিয়া লবণ শিল্প, পটিয়া বাইপাস, চাঁনখালী খাল, কক্সবাজার; ঢাকা; টাঙ্গাইল; সন্তোষ; আওয়ামী লীগ; মুসলিম লীগ; ভাসানী নভোথিয়েটার; আসাম; পশ্চিমবঙ্গ; লংমার্চ; ফারাক্কা; শ্রীমাই খাল; শ্রীমতি খাল; Voice of Patiya
ফুলের মালায় সিক্ত বিশ্বকাপজয়ী শাহাদাত হোসেন দিপু

ভয়েস অব পটিয়া-
নিউজ ডিস্কঃ
 বিশ্বকাপজয়ী বাংলাদেশ অনূর্ধ্ব-১৯ দলের সদস্য পটিয়া’র গর্ব শাহাদাত হোসেন দীপু সিক্ত হয়েছেন এলাকার মানুষের ভালোবাসায়। 
গলায় ফুলের মালা, মিষ্টিমুখের মাধ্যমে বরণ করে নেয়া হয়েছে ক্রিকেটের এই বরপুত্রকে। বৃহস্পতিবার (১৩ ফেব্রুয়ারি) দুপুরে চট্টগ্রাম নগরীর শুলকবহর এলাকার বাসায় ফেরার সময় এ দৃশ্যের অবতারণা হয়। 

দিপুর গ্রামের বাড়ি ঐতিহ্যবাহী পটিয়ার হাবিলাসদ্বীপ ইউনিয়নের চরকানাই গ্রামে হলেও বাবার চট্টগ্রাম মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে চাকরির সুবাদে তাদের পুরো পরিবার চট্টগ্রাম নগরীর শুলকবহর এলাকায় রয়েছেন ১৯৮৩ সাল থেকেই। সেখানে উপস্থিত গণমাধ্যম কর্মীদের কাছে প্রতিক্রিয়ায় দীপু বলেন, গত দুই বছর ধরে ভালো খেলছিলাম। আমাদের সবার লক্ষ্যই ছিল চ্যাম্পিয়ন হওয়া।  আমরা ইংল্যান্ড ও নিউজিল্যান্ডে গেলাম। এশিয়া কাপে ফাইনাল খেলেছি। সেই ফাইনালে ৫ রানের ব্যবধানে হেরে যাওয়ার পর পরের ম্যাচে জয়টাকে চ্যালেঞ্জ হিসেবে নিই। দক্ষিণ আফ্রিকার পচেফস্ট্রুমে ফাইনালে জয়ের পর আমরা সবাই খেলোয়াড়রা স্বাভাবিকভাবেই উচ্ছ্বসিত ছিলাম। আমাদের কোচিং স্টাফও যথেষ্ট সাপোর্ট দিয়েছেন। এরকম কোচিং স্টাফ পাওয়া সত্যি খুবই ভাগ্যের ব্যাপার। আমরা সবাই খুব ভালো একটা টিম হিসেবে খেলেছি। আমার খেলাধূলায় আজকের এ অবস্থানে আসার পিছনে মা ফেরদৌস বেগম, বড় ভাই আবুল হোসেন বাবু আর দুলাভাই ছিলেন পাশে। পাড়ার ভাই সুদীপ্ত আমাকে ইস্পাহানী ক্লাবে ভর্তি করিয়ে দেন। সবসময় তিনি আমাকে সাহস ও সমর্থন দিয়ে গেছেন। আমিও সাকিব ভাই, তামিম ভাইদের মতো লিজেন্ড হতে চাই, ওয়ার্ল্ডের ১ নম্বর অলরাউন্ডার হতে চাই, চাই দেশের সেরা ব্যাটসম্যানের একজন হতে। 

রবিবার (৯ ফেব্রুয়ারি) দক্ষিণ আফ্রিকার পচেফস্ট্রুমে চারবারের বিশ্বচ্যাম্পিয়ন ভারতকে ৩ উইকেটে হারিয়ে জয়ের স্বাদ পায় বাংলাদেশের যুবারা। শাহাদাত হোসেন দীপু স্বাগতিক দক্ষিণ আফ্রিকার বিরুদ্ধে খেলেছেন ৭৪ রানের ইনিংস। এবারের যুব বিশ্বকাপের ৬ ম্যাচে এক হাফ সেঞ্চুরিতে মোট রান করেছেন ১৩১। হাঁকিয়েছেন ১১ চার ও ১ ছক্কা। স্ট্রাইক রেট ৭৪। 

ফুলের মালায় বরণ করা হলো বিশ্বকাপজয়ী যুবাদের; ভয়েস অব পটিয়া; পটিয়া; চট্টগ্রাম দক্ষিণ জেলা; চট্টগ্রাম; চট্টগ্রাম-কক্সবাজার মহাসড়ক; ইন্দ্রপুল লবণ শিল্প, পটিয়া লবণ শিল্প, পটিয়া বাইপাস, চাঁনখালী খাল, কক্সবাজার; ঢাকা; টাঙ্গাইল; সন্তোষ; আওয়ামী লীগ; মুসলিম লীগ; ভাসানী নভোথিয়েটার; আসাম; পশ্চিমবঙ্গ; লংমার্চ; ফারাক্কা; শ্রীমাই খাল; শ্রীমতি খাল; Voice of Patiya
ফুলের মালায় বরণ করা হলো বিশ্বকাপজয়ী যুবাদের

ভয়েস অব পটিয়া
-ন্যাশনাল ডেস্কঃ 
বিশ্বকাপ নিয়ে দেশে ফিরলো যুবারা। দীর্ঘ প্রতীক্ষার প্রহর শেষে বাংলার বিশ্বচ্যাম্পিয়ানরা দেশে ফিরেছে। বুধবার (১২ ফেব্রুয়ারি) বিকেল ৫টার দিকে অনূর্ধ্ব -১৯ বিশ্বকাপজয়ী দলটিকে বহনকারী এমিরেটস এয়ারলাইন্সের বিমানটি হযরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে পৌঁছায়। 
বিমানবন্দরে আকবরদের ফুলের মালা দিয়ে বরণ করার পর বিসিবিতে দেয়া হয় সংবর্ধনা। বিমানবন্দরে পৌঁছানোর পর অনূর্ধ্ব-১৯ ক্রিকেট দলকে বহনকারী বিমানকে টার্মিনালে দেয়া হয়েছে ওয়াটার স্যালুট।

বিশ্ব চ্যাম্পিয়নদের বরণ করতে সেজেছে ক্রিকেট বোর্ড। বিমানবন্দর থেকে ক্রিকেটাররা রওনা দেয় মিরপুরে বিসিবি কার্যালয়ে। সন্ধ্যা সাড়ে ছয়টায় বিসিবিতে পৌঁছেছে আকবর আলীদের বহনকারীদের বাসটি। এখানে ক্রিকেটারদের লালগালিচা সংবর্ধনা দেয়া হয়। মিরপুর স্টেডিয়ামের মূল মাঠে ক্রিকেটারদের অভ্যর্থনা জানানোর জন্য মঞ্চ তৈরি করা হয়েছে। সেখানে কেক কাটা হবে। বিশ্বকাপ জয়ের আনন্দে আতশবাজি ফুটানো হবে। এই উপলক্ষ্যে স্টেডিয়ামের গ্যালারিতে হাজির হয়েছেন হাজার হাজার দর্শক। মিরপুরে কেক কাটার পর সংবাদ সম্মেলনে কথা বলবেন শিরোপাজয়ী অধিনায়ক আকবর আলী। সংবাদ সম্মেলন শেষে অধিকাংশ ক্রিকেটার রাতে জাতীয় একাডেমিতেই অবস্থান করবেন। বৃহস্পতিবার সকালে নিজ নিজ গ্রামে ফিরে যাবেন তারা।

বিশ্বকাপজয়ী বীরদের এক নজর দেখার জন্য ঢাকা শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরের বাইরে ভিড় জমান হাজারো ক্রিকেটপ্রেমীরা। শুধু বিমানবন্দরেই নয়, মিরপুরে স্টেডিয়ামের বাইরেও জড়ো হয়েছেন। বিমানবন্দর থেকে মিরপুর পুরো সড়কজুড়েই রাস্তার পাশে দেখা যায় উৎসুক জনতার ভীড়। দেশকে প্রথমবারের মতো বিশ্বকাপ এনে দেয়ায় ক্রিকেটারদের অভিনন্দন জানাতেই বিভিন্ন শ্রেণিপেশার মানুষ এভাবে জড়ো হয়েছেন। এসময় ক্রিকেটপ্রেমীদের ‘বাংলাদেশ, বাংলাদেশ’ বলে স্লোগান দিতে দেখা যায়।

উল্লেখ্য, গত রবিবার দক্ষিণ আফ্রিকার পোচেফস্ট্রুমে আইসিসি অনূর্ধ্ব-১৯ বিশ্বকাপের ফাইনালে চারবারের বিশ্বকাপজয়ী ভারতকে ৩ উইকেটে হারিয়ে প্রথমবারের মতো বিশ্বকাপ শিরোপা জয়লাভ করে বাংলাদেশ।

পটিয়ার কিশোর গ্যাং লিডার ছিনতাইকারী ‘কিং সরশ’ জেলে; ভয়েস অব পটিয়া; পটিয়া; চট্টগ্রাম দক্ষিণ জেলা; চট্টগ্রাম; চট্টগ্রাম-কক্সবাজার মহাসড়ক; ইন্দ্রপুল লবণ শিল্প, পটিয়া লবণ শিল্প, পটিয়া বাইপাস, চাঁনখালী খাল, কক্সবাজার; শ্রীমাই খাল; শ্রীমতি খাল; Voice of Patiya
ছবিঃ কিশোর গ্যাং লিডার ছিনতাইকারী সরওয়ার ওরফে ‘কিং সরশ’ 

ভয়েস অব পটিয়া
-নিউজ ডেস্কঃ
পটিয়ায় ছিনতাইকারী চক্রের মূল হোতা ‘কিশোর গ্যাং’ লিডার সরওয়ার ওরফে কিং সরশকে (২২) জেলে পাঠিয়েছে আদালত। বুধবার (৫ ফেব্রুয়ারি) পটিয়া যুগ্ম জেলা জজ আদালতের জুডিশিয়াল ম্যাজিষ্ট্রেট বিশ্বেশর সিং তাকে জেলে পাঠানোর আদেশ দেন। 

সরওয়ার ওরফে কিং সরশ পটিয়া উপজেলার দক্ষিণভূর্ষি ইউনিয়নের ২ নং ওয়ার্ডের মৌলভী রফিক আহমদের বাড়ির ফজল করিমের ছেলে।

মঙ্গলবার (৪ ফেব্রুয়ারী ) সন্ধ্যায় উপজেলার খানমোহনা এলাকা থেকে মোবাইল ছিনতাই এর ঘটনায় দায়ের করা মামলায় অভিযান চালিয়ে পুলিশ কিশোর গ্যাং লিডার কিং সরশকে গ্রেফতার করে।
বিষয়টি নিশ্চিত করে পটিয়া থানার ওসি (অফিসার ইনচার্জ) বোরহান উদ্দিন জানান, ‘গ্রেপ্তারের পর ছিনতাইকারী কিশোর গ্যাং লিডার সরওয়ার ওরফে কিং সরশকে জিজ্ঞাসাবাদের মাধ্যমে ছিনতাই হওয়া মোবাইলটি উদ্ধার করা হয়। তাকে আসামি করে মামলা দায়েরের পর আদালতে প্রেরণ করলে আদালত জেলে পাঠানোর নির্দেশ দেন।’
পটিয়া উপজেলার বিভিন্ন জায়গায় দীর্ঘদিন ধরে একটি চক্র কৌশলে ছিনতাই করে আসছিলো। এসব ঘটনায় পুলিশ অভিযান চালিয়ে বেশ কয়েকজন ছিনতাইকারীকে গ্রেফতার করে। জিজ্ঞাসাবাদে ছিনতাইকারী চক্রের অপরাধের চাঞ্চল্যকর তথ্য উঠে এসেছে।’

দেখুন >> পটিয়ায় কিশোর গ্যাং লিডার গ্রেফতার  
                 পটিয়া পৌরসভার ছিনতাইকারী কিশোর গ্যাং গ্রুপ

প্রত্যক্ষদর্শী ও মামলা সূত্রে জানা যায়, গত শনিবার (০১ ফেব্রুয়ারী) উপজেলার দক্ষিণ ভূর্ষি ইউনিয়নের শেখ রাসেল স্মৃতি পাঠাগার এলাকায় জায়গা পরিদর্শন করতে যান পটিয়া সাব-রেজিষ্ট্রি অফিসের সার্ভেয়ার রবিন দাশ। কাজ শেষে বাড়ি ফেরার পথে দক্ষিণ ভূর্ষি ইউনিয়নের কেচিয়াপাড়া বিনি ডাক্তারের বাড়ির সামনের রাস্তায় কিশোর গ্যাংয়ের দুই সদস্য সার্ভেয়ার রবিনের পথরোধ করে। তারা সার্ভেয়ার রবিনকে ডিশের তার দিয়ে বেধড়ক পেটাতে থাকে। এক পর্যায়ে তারা রবিনের সাথে থাকা নগদ টাকা ও মোবাইল ছিনিয়ে নিয়ে পালিয়ে যায়। এই ঘটনায় সার্ভেয়ার রবিন দাশ বাদী হয়ে পটিয়া থানায় একটি মামলা দায়ের করেন। মামলার প্রেক্ষিতে মঙ্গলবার (০৪ ফেব্রুয়ারী) সন্ধ্যায় খানমোহনা এলাকায় অভিযান চালিয়ে উক্ত ছিনতাইকারী চক্রের সদস্য কিশোর গ্যাং লিডার সরওয়ার ওরফে কিং সরশকে পুলিশ আটক করে। জিজ্ঞাসাবাদের মাধ্যমে কিং সরশের শয়নকক্ষ থেকে ছিনতাই হওয়া মোবাইলটি উদ্ধার করে পুলিশ।

পটিয়া সম্পর্কে জানতে ও জানাতে আমাদের ফেসবুক পেজের সাথে থাকুন।
ওমরা হজ্বযাত্রীদের টাকা হাতিয়ে উধাও মাদ্রাসা অধ্যক্ষ!; ভয়েস অব পটিয়া; পটিয়া; কর্ণফুলি; চট্টগ্রাম দক্ষিণ জেলা; চট্টগ্রাম; চট্টগ্রাম-কক্সবাজার মহাসড়ক; ইন্দ্রপুল লবণ শিল্প, পটিয়া লবণ শিল্প, পটিয়া বাইপাস, চাঁনখালী খাল, কক্সবাজার; শ্রীমাই খাল; শ্রীমতি খাল; Voice of Patiya

ভয়েস অব পটিয়া-নিউজ ডেস্কঃ ওমরা হজ্বের নামে হজ্বযাত্রীদের ২৩ লক্ষ টাকা হাতিয়ে নেয়ার অভিযোগ পাওয়া গেছে পটিয়ার এক মাদ্রাসা অধ্যক্ষের বিরুদ্ধে। 
অভিযুক্ত মাওলানা ওমর ফারুক জব্বারী পটিয়া উপজেলার আশিয়া ইউনিয়নের দক্ষিণ আশিয়া গাউছিয়া সুন্নিয়া আলিম মাদ্রাসার অধ্যক্ষ এবং আন্দরকিল্লাধীন আল জব্বার হজ্ব কাফেলার স্বত্বাধিকারী।

গত ১৯ ডিসেম্বর বৃহস্পতিবার পবিত্র ওমরা হজ্ব পালন করতে যাওয়ার প্রাক্কালে ভুক্তভোগীরা চট্টগ্রাম হযরত শাহ আমানত বিমানবন্দরে গিয়ে জানতে পারেন তাদের ভিসা-টিকেট কোনকিছুই করা হয় নি। অভিযুক্ত ওমর ফারুক জব্বারীকে বিমানবন্দরে গিয়ে না পেয়ে ফোনে যোগাযোগ করার চেষ্টা করা হলে তার ব্যবহৃত সকল নাম্বার বন্ধ পাওয়া যায়। যার ফলে বিমানবন্দর থেকে ফেরত আসতে হয় সৌদিআরবগামী ২৩ হজ্ব যাত্রীকে। তাদের মধ্যে কর্ণফুলী উপজেলার চরলক্ষ্যা ইউনিয়নের সৈন্যেরটেক এলাকার একই পরিবারের ৯ জনসহ মোট ৩২ জন হজ্ব যাত্রী প্রতারণার শিকার হন।
আল জব্বার হজ্ব কাফেলা প্রতিষ্ঠানটির কার্যালয় চট্টগ্রাম নগরীর আন্দরকিল্লা এলাকায়। 

ভুক্তভোগী কয়েজন হজ্বযাত্রীর সাথে কথা বললে তারা জানান, “গত বৃহস্পতিবার ১৯ ডিসেম্বর পবিত্র ওমরা হজ্ব পালনের উদ্দেশ্যে তারা বাড়ি থেকে চট্টগ্রাম শাহ আমানত বিমান বন্দরে আসেন। বিমানবন্দরে এসে তারা জানতে পারেন তারা প্রতারণার শিকার হয়েছেন। হজ্ব কাফেলার দায়িত্বে নিয়োজিত ব্যক্তিদের কাউকে সেখানে না পেয়ে স্বত্বাধিকারী ওমর ফারুক জব্বারীকে দফায় দফায় ফোন দেয়া হলেও তার ব্যবহৃত মোবাইল নাম্বারগুলো বন্ধ পাওয়া যায়। পরে কোন সমাধান না পেয়ে পরে তারা বিমানবন্দর থেকে বাড়িতে ফেরত চলে যান।”
তারা জানান, “পবিত্র ওমরা হজ্বব্রত পালনের জন্য পটিয়া উপজেলার শাহচাঁন্দ আউলিয়া কামিল মাদ্রাসার আরবী প্রভাষক মাওলানা হামিদুল হকের মাধ্যমে আল-জব্বার হজ্ব কাফেলায় ১ লক্ষ ২০ হাজার টাকা জমা করি। আল জব্বার হজ্ব কাফেলার স্বত্বাধিকারী মাওলানা ওমর ফারুক জব্বারী গত ১৪ ডিসেম্বর শনিবার চট্টগ্রাম নগরীর নন্দনকানন এলাকায় পুলিশ প্লাজার একটি হোটেলে আমাদের হজগমনকারীদের একটি কর্মশালা করান। পরে ১৮ ডিসেম্বর বুধবার আমাদের হাতে ভিসা ও বিমানের টিকেট দেওয়ার কথা থাকলেও বুধবার রাতে অধ্যক্ষ মাওলানা ওমর ফারুক জব্বারী আমাদেরকে জানান, বৃহস্পতিবার সকালে টিকিট ও ভিসা প্রদান করা হবে। এই ভিত্তিতে আমরা বৃহস্পতিবার ১৯ ডিসেম্বর সকালে বিমানবন্দরের উদ্দেশ্যে রওনা দিই। সৌদিআরবগামী আমাদের ফ্লাইট বৃহস্পতিবার দুপুর সাড়ে বারোটায় বলে জানান মাদ্রাসার অধ্যক্ষ ওমর ফারুক জব্বারী। কিন্তু অধ্যক্ষ ওইদিন আমাদেরকে আমাদের পাসপোর্ট, ভিসা, টিকিট কিছু না দিয়ে মোবাইল বন্ধ রাখেন। দীর্ঘ ২ ঘণ্টা বিমানবন্দরে অপেক্ষায় থাকার পর তার সাথে কোনরূপ যোগাযোগ করতে না পেরে আমরা যার যার বাড়িতে ফিরে যাই।’ 

এ ব্যাপারে জানার জন্য অভিযুক্ত আল জব্বার হজ্ব কাফেলার স্বত্বাধিকারী দক্ষিণ আশিয়া গাউছিয়া সুন্নিয়া আলিম মাদ্রাসার অধ্যক্ষ ওমর ফারুক জব্বারীর ব্যক্তিগত মোবাইল নাম্বারে একাধিকবার যোগাযোগ করেও তার বক্তব্য নেয়া সম্ভব হয়নি। 

এ বিষয়ে পটিয়া উপজেলা যুবলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক মঈনুল হক রাশেদ জানান, “আমার দুই আত্মীয়ও ওমরা হজ্বের জন্য টাকা জমা দিয়ে এ মাওলানার কাছ থেকে প্রতারণার শিকার হয়েছেন। মাওলানা ওমর ফারুক জব্বারী যিনি নিজের নামে রেজিস্ট্রেশনবিহীন হজ্ব কাফেলা খুলে ২৩ ওমরা হজ্ব গমণকারী হতে জনপ্রতি ১ লক্ষ ২০ হাজার টাকা করে মোট ২৭ লাখ ৬০ হাজার টাকা হাতিয়ে নিয়েছেন। পবিত্র ওমরা হজ্বের নাম ভাঙিয়ে এ ধরনের প্রতারণাকারীদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবি জানাচ্ছি।” 
এ দিকে এ ঘটনায় সমালোচনার ঝড় উঠেছে সোস্যাল মিডিয়াতে, জাহাঙ্গীর আলম নামের এক কুসুমপুরা ইউপি সদস্য লিখেছেন, “যদি মৌলানা সাহেবরা এ ধরনের প্রতারণা করে বেড়ায় আমরা সাধারণ মানুষরা কোথায় যাব? আল্লাহ এদের হেদায়েত করুক।” জাহেদ চৌধুরী নামের আরেক ব্যক্তি লেখেন, “কিছুদিন যাবত বিভিন্ন এলাকার কিছু সংখ্যক মৌলভীর অপকর্ম সংবাদ মাধ্যমে দেখতে পাচ্ছি, আজ নিজের এলাকারটাও দেখলাম। বিশ্বাসের জায়গাটা নষ্ট হয়ে যাচ্ছে। ওকে ধরে আধ ঘণ্টা জুতাপিটা করা হোক।” 

এ ব্যাপারে জানতে চাইলে পটিয়া উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা হাবিবুল হাসান জানান, “এ ধরনের প্রতারক চক্র ধরার জন্য প্রশাসন সদা তৎপর রয়েছে। মৌখিক ও সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে এ ঘটনা সম্পর্কে অবগত হলেও এখনও পর্যন্ত কেউ লিখিত অভিযোগ করেননি। লিখিত অভিযোগ করলে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেয়া হবে।” 

হজ্ব এজেন্সী এসোসিয়েশন বাংলাদেশ (হাব) এর চট্টগ্রাম বিভাগের সভাপতি মাহমুদুল হক পেয়ারু বলেন, “পবিত্র হজ্বের নামে প্রতরণাকারী এজেন্সীর বিরুদ্ধে আমরা সাংগঠনিকভাবে ব্যবস্থা নেব, প্রশাসনকে এ ব্যাপারে আইনগত ব্যবস্থা নেয়ার জন্য ইতিমধ্যে আমরা বলেছি।”
স্বাধীন বাংলাদেশের স্বপ্নদ্রষ্টা মাওলানা ভাসানীর ১৪০তম জন্মবার্ষিকী আজ; বাংলাদেশের স্বাধীনতা; স্বাধীনতা; মুক্তিযুদ্ধ; ভয়েস অব পটিয়া; পটিয়া; চট্টগ্রাম দক্ষিণ জেলা; চট্টগ্রাম; চট্টগ্রাম-কক্সবাজার মহাসড়ক; ইন্দ্রপুল লবণ শিল্প, পটিয়া লবণ শিল্প, পটিয়া বাইপাস, চাঁনখালী খাল, কক্সবাজার; ঢাকা; টাঙ্গাইল; সন্তোষ; আওয়ামী লীগ; মুসলিম লীগ; ভাসানী নভোথিয়েটার; আসাম; পশ্চিমবঙ্গ; লংমার্চ; ফারাক্কা; শ্রীমাই খাল; শ্রীমতি খাল; Voice of Patiya

ভয়েস অব পটিয়া-ন্যাশনাল ডেস্কঃ স্বাধীন বাংলাদেশের স্বপ্নদ্রষ্টা মাওলানা আবদুল হামিদ খান ভাসানীর ১৪০ তম জন্মবার্ষিকী আজ। ১৮৮০ সালের এই দিনে সিরাজগঞ্জের ধানগড়া গ্রামে জন্মগ্রহণ করেন মজলুম এ জননেতা।

১৯৪৯ সালে আওয়ামী মুসলিম লীগ প্রতিষ্ঠা করেন মাওলানা আবদুল হামিদ খান ভাসানী। এই মজলুম জননেতা মাওলানা আবদুল হামিদ খান ভাসানীর ১৪০ তম জন্মবার্ষিকী আজ (বৃহষ্পতিবার, ১২ ডিসেম্বর)।

১৮৮০ সালের ১২ ডিসেম্বর সিরাজগঞ্জের ধানগড়া গ্রামে মাওলানা ভাসানীর জন্ম। সিরাজগঞ্জে জন্ম হলেও মাওলানা আবদুল হামিদ খান ভাসানী তার জীবনের সিংহভাগই কাটিয়েছেন টাঙ্গাইলের সন্তোষে। সন্তোষের মাটিতেই তিনি চিরনিদ্রায় শায়িত আছেন। 

মাওলানা আবদুল হামিদ খান ভাসানী তার কৈশোর-যৌবন থেকেই রাজনীতির সাথে জড়িত ছিলেন। দীর্ঘদিন তিনি তৎকালীন বাংলা-আসাম প্রদেশ মুসলিম লীগের সভাপতি ছিলেন। 
লাইন-প্রথা উচ্ছেদ, জমিদারদের নির্যাতন বিরোধী আন্দোলনসহ সারাজীবনই সাধারণ মানুষের কল্যাণে আন্দোলন-সংগ্রাম করেছেন তিনি। বাংলাদেশের স্বাধীনতা যুদ্ধের সময় তিনি সর্বদলীয় ওয়ার কাউন্সিলের উপদেষ্টা ছিলেন। স্বাধীন বাংলাদেশের সর্বপ্রথম ধারণা দেন মাওলানা আবদুল হামিদ খান ভাসানী।

১৯৭২ সালের ৯ই এপ্রিল ঢাকার পল্টন ময়দানে স্বাধীন বাংলাদেশের প্রথম জনসভায় তিনি ভারতীয় পণ্য বর্জনের ডাক দেন। ভারতীয় আগ্রাসন বিরুদ্ধে আন্দোলনের ডাক দেন। 

দেশব্যাপী দুর্ভিক্ষের প্রেক্ষাপটে ১৯৭৪ সালে ভাসানীর ভুখা মিছিল বিশ্বব্যাপী আলোড়ন সৃষ্টি করে। 

১৯৭৬ সালে ফারাক্কা অভিমুখে ঐতিহাসিক লংমার্চের নেতৃত্ব দিয়ে তিনি ভারতের সেবাদাসদের চক্ষুশূলে পরিণত হন।

গ্যালারী

ফিচারড

এডিটরস চয়েস

ইউনিয়ন

গ্রাম-গঞ্জ

জাতীয়

চট্টগ্রাম দক্ষিণ জেলা