"রাজনীতি" ক্যাটাগরীর সকল আর্টিকেল
রাজনীতি লেবেলটি সহ পোস্টগুলি দেখানো হচ্ছে৷ সকল পোস্ট দেখান
তুরস্কের প্রেসিডেন্ট পদে পুনরায় নির্বাচিত এরদোগান; Turkey; Erdogan; তুরস্ক; এরদোগান
তুরস্কের প্রেসিডেন্ট পদে পুনরায় নির্বাচিত এরদোগান

ভয়েস অব পটিয়া-ইন্টারন্যাশনাল ডেস্কঃ তুরস্কের প্রেসিডেন্ট পদে পুনরায় নির্বাচিত হয়েছেন রিসেপ তাইয়্যিপ এরদোগান। 

টানা তৃতীয় মেয়াদে তুরস্কের প্রেসিডেন্ট পদে নির্বাচিত হয়েছেন রিসেপ তাইয়্যি এরদোগান। প্রতিদ্বন্দ্বী প্রার্থী কেমাল কিলিচদারগলুর সঙ্গে হাড্ডাহাড্ডি লড়াইয়ে জয় ছিনিয়ে নিয়েছেন দেশটির বর্তমান প্রেসিডেন্ট। 
তুরস্কের রাষ্ট্রীয় বার্তা সংস্থা আনাদোলু এজেন্সীর বরাতে, নির্বাচনে বর্তমান ক্ষমতাসীন দল একে পার্টির নেতা এরদোগান ৫২ দশমিক ০৯ শতাংশ ভোট পেয়ে বিজয়ী হয়েছেন। অন্যদিকে প্রধান বিরোধী দল সিএইচ পার্টির কেমাল পেয়েছেন ৪৭ দশমিক ৯১ শতাংশ ভোট। 
বাড়লো গণপরিবহনের ভাড়া; গণপরিবহন; ভাড়া; বাস;
বাড়লো গণপরিবহনের ভাড়া

ভয়েস অব পটিয়া-ন্যাশনাল ডেস্কঃ গতকাল মধ্যরাতে জ্বালানি তেলের মূল্যবৃদ্ধির পর মহানগরে প্রতি কিলোমিটারে তেলচালিত বাস ও মিনিবাসে ভাড়া ৩৫ পয়সা, দূরপাল্লায় বাস ভাড়া ৪০ পয়সা বাড়িয়েছে বাংলাদেশ সড়ক পরিবহন কর্তৃপক্ষ (বিআরটিএ)। 

আজ শনিবার (০৬ আগস্ট) বনানীতে বিআরটিএর কার্যালয়ে পরিবহন মালিক-সমিতির সঙ্গে বাসভাড়া বাড়ানোর বৈঠকে এ সিদ্ধান্ত হয়।

রবিবার থেকে এ ভাড়া কার্যকর হবে। তবে গ্যাসচালিত যানবাহনের ক্ষেত্রে এ ভাড়া বৃদ্ধি প্রযোজ্য হবে না।

বিআরটিএ চেয়ারম্যান নূর মোহাম্মদ মজুমদার বলেন, ‘দেশে জ্বালানি তেলের মূল্যবৃদ্ধির ফলে আমরা আজ বাসভাড়া পুনঃনির্ধারণী বৈঠক করেছি। পাশাপাশি আমদানি ব্যয় বাড়ায় বাসের বিভিন্ন সামগ্রীর মূল্যবৃদ্ধির কারণেও বাস মালিকদের কিছু দাবি ছিল। বৈঠকে সবার আলোচনা-পর্যালোচনার ভিত্তিতে এই সিদ্ধান্তে উপনীত হয়েছি যে, এখন থেকে মহানগর পর্যায়ে কিলোমিটারে বাসে ২.৫০ টাকা, মিনিবাসে ২.৪০ টাকা, দূরপাল্লার বাসে কিলোমিটারপ্রতি ২.২০ টাকা ভাড়া কার্যকর হবে।’

উল্লেখ্য, মহানগর পর্যায়ে পূর্বে ভাড়া ছিল প্রতি কিলোমিটারে তেলচালিত বাসে ২.১৫ টাকা, মিনিবাসে ২.১০ টাকা, দূরপাল্লার বাসে ১.৮০ টাকা। এছাড়া সর্বনিম্ন ভাড়া ছিল বাসে ১০ টাকা, মিনিবাসে ৮ টাকা। 

বিআরটিএ ১৫ শতাংশ ভাড়া বাড়াতে চাইলেও পরিবহন মালিক সমিতির দাবি ছিল ৩০ শতাংশ ভাড়া বাড়ানোর।

বর্তমানে তেলচালিত বাস ভাড়া দূরপাল্লায় বেড়েছে ২২ শতাংশ। সিটি সার্ভিসে বেড়েছে ১৬ শতাংশ। 
পটিয়া পৌরসভা এলডিপির সাবেক সভাপতি কাজী ইয়াকুবের মৃত্যুবার্ষিকীতে নেতাকর্মীদের শ্রদ্ধাঞ্জলী; অলি আহমদ; কর্ণেল অলি; এলডিপি; LDP; Colonel Oli; পটিয়া; চট্টগ্রাম; জেলা; Patiya; Chattogram; Chittagong
পটিয়া পৌরসভা এলডিপির সাবেক সভাপতি কাজী ইয়াকুবের মৃত্যুবার্ষিকীতে নেতাকর্মীদের শ্রদ্ধাঞ্জলী


ভয়েস অব পটিয়া-সংবাদ বিজ্ঞপ্তিঃ পটিয়া পৌরসভা এলডিপির সাবেক সভাপতি মরহুম কাজী মোহাম্মদ ইয়াকুব এর ২য় মৃত্যুবার্ষিকীতে শ্রদ্ধা জানিয়েছেন পটিয়া এলডিপির নেতাকর্মীরা।

গত ০৯ ডিসেম্বর বৃহস্পতিবার বিকেলে সাবেক এ নেতার মৃত্যুবার্ষিকী উপলক্ষে পটিয়া উপজেলা ও পটিয়া পৌরসভা এলডিপির নেতাকর্মীদের উদ্যোগে কচুয়াই ইউনিয়নাধীন মরহুমের কবরে কবর জিয়ারত, পুষ্পমাল্য অর্পন, দোয়া মাহফিল ও আলোচনা সভার আয়োজনের মধ্য দিয়ে তাঁর রুহের মাগফিরাত কামনা করেন। এতে উপস্থিত ছিলেন পটিয়া পৌরসভা এলডিপি নেতা নজরুল ইসলাম, আসিফ হুদা, শাহ আলম, পটিয়া উপজেলা এলডিপি নেতা খোরশেদ আলম, গণতান্ত্রিক যুবদল পটিয়া পৌরসভার সাবেক সভাপতি মুজিবুর রহমান, গণতান্ত্রিক যুবদল নেতা মোহাম্মদ আলী, নাঈম, গণতান্ত্রিক ছাত্রদল নেতা তানিম, ইরফান, মিনহাজ, রবি প্রমুখ।

নেতাকর্মীরা মরহুম কাজী ইয়াকুবের দলের প্রতি অবদান ও তাঁর রাজনৈতিক জীবন নিয়ে আলোচনা করেন। আলোচনায় পটিয়া পৌরসভা এলডিপি নেতা আসিফ হুদা বলেন, ‘বাংলার রাজনীতির চাণক্য ডক্টর কর্ণেল (অবঃ) অলি আহমদ বীর বিক্রম এলডিপি প্রতিষ্ঠা করে যে রাজনীতির ধারার সূচনা করেছিলেন সেই রাজনীতিকে পটিয়ায় ধরে রাখতে কাজী ইয়াকুব এর অবদান অনস্বীকার্য।’
আবরার হত্যাকান্ডে জড়িত ২৫ হত্যাকারীর মধ্যে ২০ জনের মৃত্যুদন্ড ও ৫ জনের যাবজ্জীবন কারাদন্ডের রায়; BUET; Bangladesh Government; Chatrolig; Pro-gov party; ছাত্রলীগ; সন্ত্রাসী; রাজনীতি; ইসকন; ইস্কন সন্ত্রাসী; ISKCON
আবরার হত্যাকান্ডে জড়িত ২৫ হত্যাকারীর মধ্যে ২০ জনের মৃত্যুদন্ড ও ৫ জনের যাবজ্জীবন কারাদন্ডের রায়

ভয়েস অব পটিয়া-ন্যাশনাল ডেস্কঃ বাংলাদেশ প্রকৌশল ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় (বুয়েট) শিক্ষার্থী আবরার ফাহাদকে নির্মমভাবে পিটিয়ে হত্যার ঘটনায় জড়িত ২০ জনকে মৃত্যুদণ্ড ও বাকি ৫ জনকে যাবজ্জীবন কারাদন্ডের রায় দিয়েছে আদালত।

গত ‍দু’বছর আগে দায়ের করা এ মামলায় হত্যাকান্ডে জড়িত অভিযুক্ত ২৫ আসামী দোষী প্রমাণিত হওয়ায় ঢাকার ১ নম্বর দ্রুত বিচার ট্রাইবুনালের বিচারক আবু জাফর কামরুজ্জামান বুধবার এ রায় প্রদান করেন।

উল্লেখ্য, আসামীদের সবাই বুয়েট শিক্ষার্থী এবং ছাত্রলীগের নেতাকর্মী। তাদের মধ্যে গ্রেফতারকৃত ২২ জনের উপস্থিতিতে আদালত এই রায় ঘোষণা করে; যাদের মধ্যে বাকি ৩ জন মামলার শুরু থেকেই পলাতক রয়েছে। 

মৃত্যুদণ্ডপ্রাপ্ত ২৫ আসামীরা হচ্ছেঃ বুয়েট ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক মেহেদী হাসান রাসেল (সিই বিভাগ, ১৩তম ব্যাচ), সাংগঠনিক সম্পাদক মেহেদী হাসান রবিন (কেমিক্যাল ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগ, ১৫তম ব্যাচ), তথ্য ও গবেষণা সম্পাদক অনিক সরকার (মেকানিক্যাল ইঞ্জিনিয়ারিং, ১৫তম ব্যাচ), সাহিত্য সম্পাদক মনিরুজ্জামান মনির (ওয়াটার রিসোর্সেস ইঞ্জিনিয়ারিং, ১৬তম ব্যাচ), ক্রীড়া সম্পাদক মেফতাহুল ইসলাম জিয়ন (মেরিন ইঞ্জিনিয়ারিং, ১৫তম ব্যাচ), উপসমাজসেবা সম্পাদক ইফতি মোশারফ সকাল (বায়োমেডিক্যাল ইঞ্জিনিয়ারিং, ১৬তম ব্যাচ), সদস্য মুনতাসির আল জেমি (এমআই বিভাগ), সদস্য মুজাহিদুর রহমান (ইইই বিভাগ, ১৬তম ব্যাচ), সদস্য হোসেন মোহাম্মদ তোহা (এমই বিভাগ, ১৭তম ব্যাচ), সদস্য এহতেশামুল রাব্বি তানিম (সিই বিভাগ, ১৭তম ব্যাচ), শামীম বিল্লাহ (মেরিন ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগ, ১৭তম ব্যাচ), মাজেদুল ইসলাম (এমএমই বিভাগ, ১৭তম ব্যাচ), খন্দকার তাবাখখারুল ইসলাম তানভীর (মেকানিক্যাল, ১৭তম ব্যাচ), মাহমুদুল জিসান (ইইই বিভাগ, ১৬তম ব্যাচ), এ এস এম নাজমুস সাদাত (এমই বিভাগ, ১৭তম ব্যাচ), মোর্শেদ অমর্ত্য ইসলাম (এমই বিভাগ, ১৭তম ব্যাচ), মিজানুর রহমান (ওয়াটার রিসোসের্স, ১৬ ব্যাচ), শামসুল আরেফিন রাফাত (মেকানিক্যাল ইঞ্জিনিয়ারিং), উপ-দপ্তর সম্পাদক মুজতবা রাফিদ (কেমিকৌশল) এবং মাহামুদ সেতু (কেমিকৌশল)। 

যাবজ্জীবনপ্রাপ্ত ৫ আসামী হচ্ছেঃ বুয়েট ছাত্রলীগের সহসভাপতি মুহতাসিম ফুয়াদ (১৪তম ব্যাচ, সিই বিভাগ), গ্রন্থনা ও প্রকাশনা সম্পাদক ইসতিয়াক আহমেদ মুন্না (মেকানিক্যাল, তৃতীয় বর্ষ), আইনবিষয়ক উপসম্পাদক অমিত সাহা (সিভিল ইঞ্জিনিয়ারিং), সদস্য আকাশ হোসেন (সিই বিভাগ, ১৬তম ব্যাচ) ও মোয়াজ আবু হোরায়রা (সিএসই, ১৭ ব্যাচ)। পলাতক ৩ জন এহতেশামুল রাব্বি তানিম (সিই বিভাগ, ১৭তম ব্যাচ), মাহমুদুল জিসান (ইইই বিভাগ, ১৬তম ব্যাচ) এবং মুজতবা রাফিদ (কেমিকৌশল)। 
 
স্বীকারোক্তি দেয়া ৮ আসামী হচ্ছেঃ মেহেদী হাসান রবিন, অনিক সরকার, ইফতি মোশাররফ সকাল, মনিরুজ্জামান মনির, মেফতাহুল ইসলাম জিয়ন, মুজাহিদুর রহমান মুজাহিদ, এ এস এম নাজমুস সাদাত এবং খন্দকার তাবাখ্খারুল ইসলাম তানভীর। 
 
পিটানোতে সরাসরি জড়িত ১১ আসামী হচ্ছেঃ মেহেদী হাসান রবিন, অনিক সরকার, ইফতি মোশাররফ সকাল, মনিরুজ্জামান মনির, মেফতাহুল ইসলাম জিয়ন, মুজাহিদুর রহমান মুজাহিদ, শামীম বিল্লাহ, এ এস এম নাজমুস সাদাত, মুনতাসির আল জেমি, এহতেশামুল রাব্বি তানিম এবং খন্দকার তাবাখ্খারুল ইসলাম তানভীর। 
 
ছাত্রলীগ থেকে বহিষ্কৃত ১১ আসামী হচ্ছেঃ মেহেদী হাসান রাসেল, মুহতাসিম ফুয়াদ, মেহেদী হাসান রবিন, অনিক সরকার, মেফতাহুল ইসলাম জিয়ন, মনিরুজ্জামান মনির, ইফতি মোশাররফ সকাল, মুনতাসির আল জেমি, এহতেশামুল রাব্বি তানিম, মুজাহিদুর রহমান মুজাহিদ এবং মুজতবা রাফিদ। 
আবরার হত্যাকান্ডে দন্ডপ্রাপ্ত আসামীরা

মামলার বাদী আবরারের বাবা বরকত উল্লাহ রায়ের তাৎক্ষণিক প্রতিক্রিয়ায় বলেছেন, রায়ে তিনি সন্তুষ্ট। এই রায় যাতে দ্রুত কার্যকর হয়, এটাই তার প্রত্যাশা। অন্যদিকে আসামিপক্ষের আইনজীবীরা বলেছেন, এ রায়ে তারা সন্তুষ্ট নন, পুরো রায় দেখে উচ্চ আদালতে আপিল করবেন তারা। 

যে ফেসবুক পোস্টের কারণে আবরারকে নির্মমভাবে পিটিয়ে হত্যা করা হয়
যে ফেসবুক পোস্টের কারণে আবরারকে নির্মমভাবে পিটিয়ে হত্যা করা হয়

২০১৯ সালের ০৬ অক্টোবর রাতে বুয়েটের শেরে বাংলা হলের আবাসিক ছাত্র আবরারকে ফেসবুকে দেশমাতৃকার পক্ষে পোস্ট দেয়াকে কেন্দ্র করে নির্যাতন চালিয়ে নির্মমভাবে পিটিয়ে হত্যা করে বুয়েট শাখা ছাত্রলীগের নেতাকর্মীরা। ঘটনা ঘটানোর সময় নিষ্ক্রিয় ছিল বুয়েটের শেরেবাংলা হলের দায়িত্বে থাকা প্রভোস্টসহ সমগ্র বুয়েট প্রশাসন। সেই ঘটনায় শিক্ষার্থীদের ক্ষোভে উত্তাল হয়ে ওঠে বুয়েট। নিষিদ্ধ হয় ছাত্র রাজনীতি। 

২০২০ সালের ১৫ সেপ্টেম্বর অভিযোগ গঠনের মধ্য দিয়ে এ মামলার বিচারকার্য শুরু হয়েছিল। দুই পক্ষের যুক্তিতর্ক শুনানি শেষে গত ১৪ নভেম্বর বিচারক এ মামলার রায়ের জন্য ২৮ নভেম্বর তারিখ নির্ধারণ করেছিলেন। কিন্তু আরও কিছু সময়ের প্রয়োজন জানিয়ে এ মামলার রায় পিছিয়ে ০৮ ডিসেম্বর নতুন তারিখ নির্ধারণ করেন বিচারক।
পটিয়ায় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার জন্মদিন পালন

ভয়েস অব পটিয়া-ন্যাশনাল ডেস্কঃ প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ৭৫ তম জন্মদিন উপলক্ষে বঙ্গবন্ধু ঘোষিত সাবেক মহকুমা জেলা পটিয়া’য় আওয়ামীলীগ ও এর অঙ্গসংগঠনের নেতাকর্মীরা দিনভর বিপুল উৎসাহ উদ্দীপনায় জন্মবার্ষিকী উদযাপন করে।

ভিডিওঃ-

এক যুগেও শেষ হয়নি পটিয়ার কালারপুল সেতুর নির্মাণকাজ, পটিয়া, চট্টগ্রাম, চট্টগ্রাম দক্ষিণ জেলা, পটিয়া জেলা, কালারপুল, শিকলবাহা, কোলাগাঁও, ভেল্লাপাড়া, কর্ণফুলী
এক যুগেও শেষ হয়নি পটিয়ার কালারপুল সেতুর নির্মাণকাজ

ভয়েস অব পটিয়া-নিউজ ডেস্কঃ পটিয়া উপজেলার কোলাগাঁও মুরারী খালের উপর নির্মাণাধীন কালারপুল আখতারুজ্জামান সেতুর নির্মাণকাজ শেষ হয় এক যুগেও। ১ সপ্তাহ পর সেতুটি উদ্বোধনের কথা থাকলেও ঠিকাদারের গাফিলতি-অবহেলায় শেষ হয়নি ৭০ শতাংশ কাজও। তার আগেই গত শুক্রবার ৩টি গার্ডার ধসে শিকলবাহা খালে তলিয়ে যায়। 

সড়ক ও জনপথ সূত্রে জানা যায়, পটিয়ার কোলাগাঁও (শিকলবাহা) মুরারী খালের উপর নির্মিত পটিয়া-কর্ণফুলীর সংযোগ সেতু কালারপুল সেতু নির্মাণে টেন্ডার পাওয়া ঠিকাদারের আবেদনের প্রেক্ষিতে ৩য় দফায় সেতু নির্মাণ করার সময় বর্ধিত করা সত্বেও সম্পন্ন করতে পারেনি সেতুর নির্মাণযজ্ঞ। এ নিয়ে এলাকাবাসীর মধ্যে তীব্র ক্ষোভের সৃষ্টি হয়েছে। 

এ রিমধ্যে শুক্রবার (২৬ জুন) সন্ধ্যা ৭টার দিকে হাইড্রোলিক জ্যাকের মাধ্যমে গার্ডার সংযোগের সময় ক্রেনের তার ছিঁড়ে ৩টি গার্ডার খালে ধসে পড়ে। এ সময় আহত হয় অন্তত ৫ শ্রমিক। এর মধ্যে একজন চট্টগ্রাম মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছেন। 

সওজ ও এলাকাবাসী সূত্রে জানা যায়, পাকিস্তান শাসনামলে পটিয়ার কোলাগাঁও (শিকলবাহা) মুরারী খালের ওপর একটি কংক্রিটের সেতু নির্মাণ করা হয়েছিল। সময়ের পরিক্রমায় সেতুটি জরাজীর্ণ হয়ে পড়লেও মেরামত কিংবা নতুন সেতুর কোন উদ্যোগ গ্রহণ করা হয়নি। দীর্ঘদিনের জরাজীর্ণ সেতুটি ইতিপূর্বে জাহাজের ধাক্কায় ভেঙে খালে বিলীন হয়ে যায়। পরবর্তীতে সেই ভাঙা অংশে সড়ক বিভাগ স্টীলের বেইলি সেতু নির্মাণ করে কোনরকম জোড়াতালি দিয়ে চলাচলের জন্য উপযোগী করে। 

এরপর এ স্থানে পাকা কালারপুল সেতু নির্মাণে ২৬ কোটি টাকা বরাদ্দ প্রদান করে সড়ক ও সেতু বিভাগ। সড়ক ও জনপথ বিভাগ, দোহাজারী কর্তৃক ২০১৭ সালে নির্মাণ কাজের টেন্ডার আহবান করা হয়। আর এতে রানা বিল্ডার্স ও হাসান বিল্ডার্স নামের দুটি ঠিকাদারী প্রতিষ্ঠান সেতু নির্মাণের কার্যাদেশ পায়। কার্যাদেশ অনুযায়ী ২০১৯ সালের ৩০ জুনের মধ্যে নির্মাণ কাজ শেষ করার কথা। কিন্তু ঠিকাদারী প্রতিষ্ঠানের কাজের ধীরগতি ও যথাসময়ে কাজ শেষ করতে না পারায় ৩য় দফায় মেয়াদ বৃদ্ধি করে ২০২০ সালের ৩০ জুন বর্ধিত করা হয়।

সর্বশেষ  হাইড্রোলিক জ্যাকের মাধ্যমে গার্ডার সংযোগের সময় ক্রেনের তার ছিঁড়ে ৩টি গার্ডার খালে তলিয়ে যায়। 

উল্লেখ্য, এ কালারপুল সেতু দিয়ে পটিয়া উপজেলার কোলাগাঁও, হাবিলাসদ্বীপ, ধলঘাট, কুসুমপুরা, আশিয়া, কাশিয়াইশ ইউনিয়নের প্রায় কয়েক হাজার মানুষ প্রতিদিন চট্টগ্রাম শহরে যাতায়াত করে থাকেন। বর্তমানে সেতুটি না হওয়ায় শিক্ষার্থীসহ বিভিন্ন পেশার মানুষকে বন্দর নগরীতে যাতায়াতে সীমাহীন দূর্ভোগ পোহাতে হচ্ছে। তাই জনসাধারণের চলাচলের সুবিধার্থে এ সেতুটির নির্মাণ কাজ দ্রুত সম্পন্ন করে চলাচলের উপযোগী করার দাবি জানিয়েছেন বিভিন্ন পেশার মানুষ।

নতুন সেনাপ্রধান এস.এম. শফিউদ্দিন আহমেদকে জেনারেল র‌্যাংক ব্যাচ পরিয়ে দিচ্ছেন নৌ-বিমান বাহিনী প্রধান; পটিয়া; চট্টগ্রাম; Patiya; Chittagong; Chattogram; সংবাদ; সারাদেশ; ঢাকা; করোনা; করোনা ভাইরাস; Covid, Covid 19; Corona; পরিবহন; বাস; Transport, Bus, Dhaka; সেনাবাহিনী; সেনাপ্রধান; Army
নতুন সেনাপ্রধান এস.এম. শফিউদ্দিন আহমেদকে জেনারেল র‌্যাংক ব্যাচ পরিয়ে দিচ্ছেন নৌ-বিমান বাহিনী প্রধান


ভয়েস অব পটিয়া-ন্যাশনাল ডেস্কঃ বাংলাদেশ সেনাবাহিনীর নতুন সেনাপ্রধান হিসেবে দায়িত্বভার গ্রহণ করেছেন লেফটেন্যান্ট জেনারেল এস.এম. শফিউদ্দিন আহমেদ।

বৃহস্পতিবার গণভবনে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার উপস্থিতিতে নতুন সেনাপ্রধান হিসেবে এস.এম শফিউদ্দিন আহমেদকে জেনারেল র‌্যাংক ব্যাজ নৌবাহিনী প্রধান অ্যাডমিরাল এম. শাহীন ইকবাল ও বিমানবাহিনী প্রধান এয়ার ভাইস মার্শাল শেখ আব্দুল হান্নান। 

জেনারেল এস. এম. শফিউদ্দিন আহমেদ বিদায়ী সেনাবাহিনী প্রধান জেনারেল আজিজ আহমেদের স্থলাভিষিক্ত হলেন। 

গত ১০ জুন প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয়ের এক প্রজ্ঞাপনে লেফটেন্যান্ট জেনারেল এস.এম. শফিউদ্দিন আহমেদকে জেনারেল হিসেবে পদোন্নতি দিয়ে সেনাপ্রধানের দায়িত্ব দেয়া হয়।

ঢাকাগামী দূরপাল্লার সব বাস চলাচল বন্ধ, ৭ জেলায় লকডাউন; পটিয়া; চট্টগ্রাম; Patiya; Chittagong; Chattogram; সংবাদ; সারাদেশ; ঢাকা; করোনা; করোনা ভাইরাস; Covid, Covid 19; Corona; পরিবহন; বাস; Transport, Bus, Dhaka
ঢাকাগামী দূরপাল্লার সব বাস চলাচল বন্ধ, ৭ জেলায় লকডাউন

ভয়েস অব পটিয়া-ন্যাশনাল ডেস্কঃ করোনার সংক্রমণের হার বেড়ে যাওয়ায় ঢাকাগামী দূরপাল্লার সব ধরনের বাস চলাচল বন্ধ থাকবে। 

সোমবার মন্ত্রীপরিষদ বিভাগের এক প্রজ্ঞাপনের আলোকে পরিবহন মালিক সমিতি এ সিদ্ধান্ত নেয় বলে জানায় সমিতির সাধারণ সম্পাদক খন্দকার এনায়েত উল্লাহ। সিদ্ধান্ত মোতাবেক আগামীকাল ২২ জুন সকাল ৬টা হতে ৩০ জুন মধ্যরাত পর্যন্ত ঢাকাগামী সব ধরনের বাস চলাচল বন্ধ থাকবে। 

এর আগে বিকেলে সচিবালয়ে এক বৈঠকে মানিকগঞ্জ, নারায়ণগঞ্জ, গোপালগঞ্জ, গাজীপুর, রাজবাড়ী, মাদারীপুর ও মুন্সিগঞ্জের সঙ্গে ঢাকার যোগাযোগ বন্ধের সিদ্ধান্ত নেয় সরকার।

তবে এ সময় চলবে ট্রেন ও নৌযান। লকডাউন ঘোষিত ৭ জেলায় থামবে না ট্রেন, ভিড়বে না নৌযান। করোনাভাইরাস সংক্রমণের বিস্তার ঠেকাতে এসব জেলায় সরকার কর্তৃক কঠোর বিধি-নিষেধ আরোপের পর রেল বিভাগ ও বিআইডব্লিউটিএ এ সিদ্ধান্ত জানায়।

স্বাধীনতার সুবর্ণজয়ন্তীতে ঢাকা আসছেন মোদী, এবারও হচ্ছে না তিস্তা চুক্তি; জাতীয়; বাংলাদেশ; ভারত; সংবাদ; সারাদেশ; আন্তর্জাতিক; নরেন্দ্র মোদী; এ কে আবদুল মোমেন; পররাষ্ট্রমন্ত্রী; প্রধানমন্ত্রী; বঙ্গবন্ধু; মুজিব বর্ষ; সুবর্ণ জয়ন্তী
স্বাধীনতার সুবর্ণজয়ন্তীতে ঢাকা আসছেন মোদী, এবারও হচ্ছে না তিস্তা চুক্তি

ভয়েস অব পটিয়া-ন্যাশনাল ডেস্কঃ জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্ম শতবার্ষিকী (মুজিববর্ষ) ও স্বাধীনতার সুবর্ণ জয়ন্তী উপলক্ষে ঢাকা সফরে আসছেন ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী। তবে এবারের সফরেও হচ্ছে না বহুল প্রতিক্ষিত তিস্তা চুক্তিসহ বাংলাদেশ-ভারত দ্বিপক্ষীয় অমীমাংসিত সমস্যাগুলো সমাধানের বিষয়ে আলোচনা।

রাজ শুক্রবার রাজধানীর হোটেল ইন্টারকন্টিনেন্টালে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে পররাষ্ট্রমন্ত্রী এ কে এম আবদুল মোমেন বলেন, বঙ্গবন্ধুর জন্মশতবর্ষ ও স্বাধীনতার সুবর্ণ জয়ন্তী উপলক্ষে ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর এবারের সফর হবে শুধুই উদযাপনের, দুই দেশের অমীমাংসিত বিষয়গুলো তারা এবার তুলতে চান না। 

তিনি আরো বলেন, নরেন্দ্র মোদী আসছেন, এতেই আমরা অনেক খুশি। শুধু উনি না, উনার দেখাদেখি আরও চার জন রাষ্ট্রপ্রধান ও সরকার প্রধান বাংলাদেশে আসছেন। শ্রীলঙ্কা, নেপাল, ভূটান, মালদ্বীপ ও ভারতের রাষ্ট্রপ্রধানও আসছেন। আমরা এতে খুবই আনন্দিত, ইট শোজ দা হাইট অব ডিপ্লোম্যাটিক ম্যাচুরিটি অ্যান্ড এচিভমেন্ট। 

দীর্ঘ দিন ধরে ঝুলে থাকা তিস্তা চুক্তির বিষয়ে ভারতীয় প্রধানমন্ত্রীর সফরে কোনো আলোচনা হবে কি না- এ প্রসঙ্গে জানতে চাইলে পররাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, ‘ওগুলো বাদ, আমরা যেটা চাই- সেটা হচ্ছে এই যে একটি আনন্দ উৎসব, আমাদের বড় উৎসবে সবাই আসছেন, এতে আমরা আনন্দিত। আর অন্যান্য ছোটখাট জিনিস যেগুলো ভারতের সঙ্গে তো আমাদের যে ধরনের বড় বড় সমস্যা, সব আমরা আলোচনার মাধ্যমেই দূর করেছি। আর যদি কিছু থাকে, সেগুলোও আস্তে আস্তে করব। বাট দিস ইভেন্ট শুড নট বি অ্যান অকেশন ফর রিজলভিং।

পররাষ্ট্রমন্ত্রী আরো বলেন, যেসব দেশের রাষ্ট্র বা সরকারপ্রধানরা আসছেন না, তারাও বার্তা পাঠিয়েছেন। চীনের প্রেসিডেন্ট, কানাডার প্রধানমন্ত্রী, ফ্রান্সের প্রেসিডেন্ট বার্তা পাঠিয়েছেন। বার্তায় তারা জানিয়েছেন, আমাদের সুবর্ণ জয়ন্তীতে তারা আমাদের সাথে আছেন এবং সেইসঙ্গে বঙ্গবন্ধুর জন্ম শতবার্ষিকীর যে উদযাপন এবং উনার যে ত্যাগ, সেগুলো অত্যন্ত শ্রদ্ধার সঙ্গে গ্রহণ করেছেন।’

ভারতের প্রজাতন্ত্র দিবসে বাংলাদেশের সশস্ত্র বাহিনী
ভারতের প্রজাতন্ত্র দিবসের কুচকাওয়াজে বাংলাদেশের সশস্ত্র বাহিনী

ভয়েস অব পটিয়া-ইন্টারন্যাশনাল ডেস্কঃ  ভারতের প্রজাতন্ত্র দিবসের কুচকাওয়াজে অংশ নিয়েছে বাংলাদেশ সশস্ত্র বাহিনী। 

আজ মঙ্গলবার ২৬ জানুয়ারী ভারতের দিল্লীতে বাংলাদেশ সেনা-নৌ-বিমান বাহিনীর সমন্বয়ে গঠিত ১২২ সদস্যের একটি দল সামরিক কুচকাওয়াজে অংশ নিয়েছে।

‘শোন একটি মুজিবরের থেকে লক্ষ মুজিবরের কণ্ঠস্বরের ধ্বনি-প্রতিধ্বনি’ ব্যান্ডের তালের সঙ্গে কুচকাওয়াজে অংশ নেয় বাংলাদেশ সশস্ত্র বাহিনীর দলটি। বাংলাদেশ সেনা, নৌ ও বিমানবাহিনীর সমন্বয়ে গঠিত সশস্ত্র বাহিনীর ১২২ সদস্যের সমন্বিত কন্টিনজেন্টের নেতৃত্ব দেন লেফটেন্যান্ট কর্ণেল আবু মুহাম্মদ শাহনূর শাওন। 

উল্লেখ্য, বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মশতবার্ষিকী ও স্বাধীনতার সুবর্ণ জয়ন্তী উপলক্ষে ২৬ জানুয়ারী ভারতের ৭২ তম প্রজাতন্ত্র দিবসের প্যারেডে অংশ নিতে বাংলাদেশের সশস্ত্র বাহিনীকে আমন্ত্রণ জানায় ভারতের হাইকমিশন।

ভারতের প্রজাতন্ত্র দিবসে এই পর্যন্ত বাংলাদেশসহ মোট ৩টি দেশের সশস্ত্র বাহিনী অংশগ্রহণ করেছে। সেনা-নৌ-বিমানবাহিনীর সমন্বয়ে গঠিত সশস্ত্র বাহিনীর কন্টিনজেন্টের কুচকাওয়াজে বাংলাদেশের অংশগ্রহণ এই প্রথম।


বঙ্গবন্ধুর ভাস্কর্য নির্মাণের কাজ চলবে : ওবায়দুল কাদের


ভয়েস অব পটিয়া-ন্যাশনাল ডেস্কঃ রাজধানী ধোলাইপাড় এলাকায় বঙ্গবন্ধুর ভাস্কর্য নির্মাণ কাজ চলবে বলে জানিয়েছেন সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী এবং বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের। 
সোমবার (৭ ডিসেম্বর) বেলা ১২টার দিকে সচিবালয়ে সড়ক পরিবহন ও সেতু মন্ত্রণালয়ের সম্মেলন কক্ষে এক প্রেস ব্রিফিংয়ে তিনি এ কথা বলেন। 

তিনি বলেন, ‘নির্মাণাধীন ভাস্কর্য নির্মাণের কাজ অব্যাহত থাকবে। বিশ্বের বিভিন্ন দেশে হয়েছে। ভাষ্কর্য ভাঙা কিংবা এর ক্ষতি সাধন করা অবশ্যই সংবিধান বিরোধী এবং রাষ্ট্রদ্রোহের শামিল। এর প্রধান কারণ, বঙ্গবন্ধু আমাদের জাতির পিতা। তাঁর ভাস্কর্যের ওপর হামলা কোনমতেই মেনে নেয়া যায় না। 
সৌদি আরব, কাতার, মিশর, ইরান, তুরস্ক এমনকি পাকিস্তানে পর্যন্ত ভাস্কর্য রয়েছে। বিশ্বের বিভিন্ন মুসলিম দেশগুলোতে যেখানে ভাস্কর্য রয়েছে তাদের চেয়ে কি আমরা বড় মুসলমান হয়ে গেলাম? ওইসব রাষ্ট্রে তো ভাস্কর্য নিয়ে কোনো কথা হয় না। আর মূর্তি হলো দেবতার পূজা-অর্চনা করার। দেবতাকে পূজা করা হয়, কিন্তু এখানে তো মানুষকে পূজা করা হচ্ছে না। কিন্তু আমাদের দেশে কেন বিষয়টি ভিন্ন দিকে যাচ্ছে? 
কুষ্টিয়ায় তারা বঙ্গবন্ধুর, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে মধুদার ভাস্কর্যের ওপর হামলা চালিয়েছে। এ ধরনের কাজ করার মত ধৃষ্টতা যারা দেখাবে তাদের চরম মূল্য দিতে হবে।’
আল্লাহর ৯৯ নাম খচিত 'মুজিব মিনার' নির্মাণের প্রস্তাব হেফাজতে ইসলামের


ভয়েস অব পটিয়া-ন্যাশনাল ডেস্কঃ সারাদেশে বঙ্গবন্ধুর মূর্তি-ভাস্কর্য স্থাপনের পরিবর্তে আল্লাহর ৯৯ নাম খচিত 'মুজিব মিনার' নির্মাণের বিকল্প প্রস্তাবসহ পাঁচ দফা প্রস্তাব দিয়েছে হেফাজতে ইসলাম বাংলাদেশ। 
আজ শনিবার (০৫ ডিসেম্বর) রাজধানীর যাত্রাবাড়ী বড় মাদ্রাসায় এক বৈঠকে সরকারকে এ প্রস্তাব দেয়া হয়।

উক্ত সভার প্রস্তাবনাসমূহঃ

১ । মানবমূর্তি ও ভাস্কর্য যে কোনো উদ্দেশ্যে তৈরি করা ইসলামে কঠোরভাবে নিষিদ্ধ। কোনো মহৎ ব্যক্তি ও নেতাকে মূর্তি বা ভাস্কর্য স্থাপন করে শ্রদ্ধা জানানো শরিয়ত সম্মত নয়। এতে মুসলিম মৃত ব্যক্তির আত্মার কষ্ট হয়। কারো প্রতি শ্রদ্ধা প্রদর্শন ও তার স্মৃতিকে জাগ্রত রাখতে মূর্তি বা ভাস্কর্য নির্মাণ না করে, শতকরা ৯২ ভাগ মানুষের বিশ্বাস ও চেতনার আলোকে কুরআন-সুন্নাহ সমর্থিত কোনো উত্তম বিকল্প সন্ধান করাই যুক্তিযুক্ত। 

২। আমরা নবী করিম সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লামের অবমাননা, বিষোদগার, ব্যাঙ্গাত্মক কার্টুন ইত্যাদির তীব্র নিন্দা জানাই। বাংলাদেশে সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতি নাশের উস্কানিমূলক কর্মকাণ্ড বিশেষ করে তথ্য প্রযুক্তি ব্যবহারে বিশ্বনবী সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লামের প্রতি অবমাননাকর আচরণের ওপর কঠোর নজরদারি এবং দোষী ব্যক্তিদের বিরুদ্ধে সর্বোচ্চ আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ করে এসব অপকর্ম বন্ধ করা হোক। 

৩। বিগত সময়ে দ্বীনি আন্দোলনে গ্রেফতারকৃতদের নিঃশর্ত মুক্তি দান ও মামলা প্রত্যাহার করা হোক। এ সংক্রান্ত বিষয়ে সারাদেশের আলেম-ওলামা, ইমাম-খতিব ও ধর্মপ্রাণ‍মুসলমানদের ওপর সব ধরনের হয়রানি বন্ধ করা হোক। ধোলাইপাড় চত্বরের পাশে ক্ষতিগ্রস্ত পুনঃনির্মিত মসজিদ নামাযের জন্য অবিলম্বে উন্মুক্ত করে দেয়া হোক।

৪। সম্প্রতি শব্দদূষণ ও জনদুর্ভোগের অজুহাতে দ্বীনি মাহফিলে লাউড স্পিকার ব্যবহারে প্রশাসনিক জটিলতা সৃষ্টির তৎপরতা পরিলক্ষিত হচ্ছে। অথচ সাধারণ শব্দদূষণ, উচ্চস্বরে গান-বাজনা ইত্যাদি বিষয়ে কোনো প্রশাসনিক উদ্যোগ নেই বললেই চলে। কেবল ওয়াজ-মাহফিল নিয়ে শব্দদূষণের অজুহাতে বিশেষ নির্দেশনা অনভিপ্রেত। অতএব, জনগণকে কল্যাণের পথে অনুপ্রাণিত করার লক্ষ্যে সকল দ্বীনী মাহফিল যথানিয়মে অনুষ্ঠানের অবাধ সুযোগ প্রদান করা হোক।

৫। যে সকল বিষয় শরিয়তে নিষিদ্ধ ও হারাম, সে সব বিষয়ে কুরআন-সুন্নাহর আলোকে সঠিক বক্তব্য তুলে ধরা আলেমদের দায়িত্ব। অথচ এক শ্রেণীর মানুষ আলেমদের বিরুদ্ধে বিষোদগার ও দায়িত্বহীন আচরণ করছে। কেউ কেউ সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতি বিনাশের উস্কানিও দিচ্ছে। এসবের খোঁজখবর রাখা এবং শান্তিপূর্ণ সমাধান খুঁজে বের করা সরকার ও প্রশাসনের দায়িত্ব। উস্কানিমূলক বক্তব্য, অবমাননাকর মন্তব্য, উগ্র স্লোগান, মিছিল-মিটিং সমাজে অস্থিরতা বৃদ্ধি করবে। ওলামায়ে কেরাম কঠোর ধৈর্য সংযম অবলম্বন করা সত্ত্বেও সাধারণ মানুষের মধ্যে বিরূপ প্রতিক্রিয়া দেখা দেওয়ার আশঙ্কা প্রবল। সরকারকে এসবের উপযুক্ত প্রতিবিধান করতে হবে। অন্যথায় দেশব্যাপী উদ্ভূত বিশৃঙ্খলা ও অস্থিরতার দায় সরকার এড়িয়ে যেতে পারবে না। বিশেষ করে ইসলাম, দ্বীন ও বাংলাদেশ বিরোধী দেশী বিদেশী ষড়যন্ত্র ও অনাকাঙ্ক্ষিত হস্তক্ষেপ রোধ করা সরকারের অন্যতম দায়িত্ব। 

উক্ত সভায় উপস্থিত ছিলেন, বেফাকের সভাপতি মাওলানা মাহমুদুল হাসান সাহেব, বাংলাদেশ খেলাফত আন্দোলনের প্রধান মাওলানা আতাউল্লাহ হাফেজ্জী, জমিয়ত একাংশের চেয়ারম্যান মুফতি মুহাম্মদ ওয়াক্কাস, বেফাকের খাস কমিটির সদস্য আল্লামা নুরুল ইসলাম জিহাদী, বি.বাড়িয়ার আল্লামা সাজিদুর রহমান, সিলেটের আল্লামা মুহিব্বুল হক গাছবাড়ি,  জামিয়া রাহমানিয়ার প্রধান মুফতি মনসুরুল হক, ফরিদাবাদ মাদরাসার মাওলানা আব্দুল কুদ্দুস, জামিয়া ইউনুসিয়ার প্রধান মুফতি মুবারকুল্লাহ, গহরডাঙ্গা মাদরাসার মাওলানা রুহুল আমীন, ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশের নায়েবে আমীর সৈয়দ ফয়জুল করিম, বরুণার পীর মুফতি রশিদুর রহমান ফারুক, ঢালকানগরের পীর সাহেব মুফতি জাফর আহমদ, বেফাকের মহাসচিব মাওলানা মাহফুজুল হক, বসুন্ধরা মাদরাসার মুহতামিম মুফতি আরশাদ রাহমানী, খেলাফত মজলিসের ভারপ্রাপ্ত মহাসচিব মাওলানা মামুনুল হক, আরজাবাদ মাদরাসার মুহতামিম মাওলানা বাহাউদ্দীন যাকারিয়া, শাইখ যাকারিয়ার পরিচালক মুফতি মিজানুর রহমান সাঈদ, বারিধারা মাদরাসার মাওলানা নাজমুল হাসান, আফতাবনগর মাদরাসার মুহতামিম মুফতী মুহাম্মদ আলী, খুলনার মুফতি আব্দুল্লাহ ইয়াহইয়া, উত্তরার মাওলানা কেফায়েতুল্লাহ আযহারী, মাওলানা খালিদ সাইফুল্লাহ্ আইয়ুবী, মাওলানা হাসান জামিলসহ দেশের শীর্ষস্থানীয় আলেম-উলামারা।

ঈদ শপিং না করে নেতা-কর্মীদের গরিবদের অর্থ দেয়ার আহ্বান ওবায়দুল কাদেরের; জাতীয়; আওয়ামী লীগ; ছাত্রলীগ; যুবলীগ; ওবায়দুল কাদের; ঈদ; ঈদ শপিং; ঈদ বাজার; করোনা, করোনা ভাইরাস; কোভিড; কোভিড১৯; স্যানিটাইজার; বিআইটিআইডি; orona; Corona Virus; Covid; Covid19; Sanitizer; Bangladesh Institute of Tropical and Infectious Disease; BITID; IEDCR
ঈদ শপিং না করে নেতা-কর্মীদের গরিবদের অর্থ দেয়ার আহ্বান ওবায়দুল কাদেরের

ভয়েস অব পটিয়া-ন্যাশনাল ডেস্কঃ এবারের ঈদে দলীয় নেতাকর্মীদের কেনাকাটা না করে গরিব অসহায় ও কর্মহীনদের মাঝে অর্থ বিতরণ করার আহ্বান জানিয়েছেন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও সড়ক পরিবহন-সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের।

আজ সকালে তাঁর সরকারি বাসভবনে ব্রিফিংকালে তিনি একথা বলেন।

ওবায়দুল কাদের বলেন, সরকারের বিরুদ্ধে বিষোদগার না করে এ সংকটকালে মির্জা ফখরুল ও বিএনপিকে জনগণের পাশে দাঁড়িয়ে করোনা প্রতিরোধে মানবিক দায়িত্ব পালনের আহ্বান জানান। 

জীবন-জীবিকার চাকা সচল রাখতে সরকার কিছু কিছু ক্ষেত্রে সাধারণ ছুটি শিথিল করেছেন বলে উল্লেখ করে ওবায়দুল কাদের বলেন, এক শ্রেণির মানুষ সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে এবং অনলাইনে গুজব ছড়াচ্ছে। কোন ঘটনা না ঘটলেও তা রটানো হচ্ছে। এ সকল গুজব ও অপপ্রচার উদ্দেশ্যমূলক।গুজব ও অপপ্রচার ভাইরাসের চেয়েও ভয়ংকর।

করোনাকালীন পারিবারিক সহিংসতা করোনা বিস্তারে সহায়ক মন্তব্য করে ওবায়দুল কাদের বলেন, ‘করোনাভাইরাসকালে পারিবারিক সহিংসতা উদ্বেগজনক হারে বেড়ে চলছে। এ ধরণের সহিংসতা করোনা বিস্তারে সহায়ক হতে পারে। আমি সকলকে রমজানের এ সময়ে সংযমী ও ধৈর্য ধারণের আহ্বান জানাচ্ছি।’ 

স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলার চর্চার ক্ষেত্রে জনগণকে আরও কঠোর হতে হবে বলে জানিয়ে সেতুমন্ত্রী বলেন, ‘শেখ হাসিনার আহ্বানে সাড়া দিয়ে যারা ঘরে অবস্থান করছেন, স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলছেন, তাদের জানাচ্ছি আন্তরিক ধন্যবাদ। মনোবল হারালে চলবে না আমাদের। মাস্ক পরিধান, হাত ধোয়া স্বাস্থ্য বিধি মেনে চলা এবং সামাজিক দূরত্ব মেনে চলার যে প্রতিরোধ ব্যবস্থা, তা চর্চায় আমাদের আরও কঠোর হতে হবে।’
করোনা : ২৬ মার্চ থেকে ১০ দিনের ছুটি; নামছে সেনাবাহিনী; করোনা; করোনা ভাইরাস; কোভিড; কোভিড১৯; স্যানিটাইজার; বিআইটিআইডি; আইইডিসিআর; স্বাস্থ্য অধিদপ্তর; সেনাবাহিনী; Corona; Corona Virus; Covid; Covid19; Sanitizer; BITID; IEDCR; Health Ministry; Army
করোনা : ২৬ মার্চ থেকে ১০ দিনের ছুটি; নামছে সেনাবাহিনী

ভয়েস অব পটিয়া-ন্যাশনাল ডেস্কঃ করোনা ভাইরাসের বিস্তার ঠেকাতে ২৬ মার্চ (বৃহষ্পতিবার) থেকে সাপ্তাহিক ছুটিসহ ০৪ এপ্রিল (শনিবার) পর্যন্ত টানা ১০ দিনের ছুটি পাচ্ছেন সরকারি-বেসরকারি প্রতিষ্ঠানের কর্মকর্তা-কর্মচারীরা। এসময় জরুরি সেবা ছাড়া সব বন্ধ থাকবে। 
তাছাড়া ২৪ মার্চ (মঙ্গলবার) থেকে দেশের বিভাগীয় ও জেলা শহরগুলোয় সশস্ত্র বাহিনী জেলা প্রশাসনকে সহায়তা করার জন্য নিয়োজিত থাকবে। জেলা ম্যাজিস্ট্রেটসহ তাদের নিজ নিজ এলাকার সশস্ত্র বাহিনীর কমান্ডারদের কাছে চাহিদাপত্র দিয়ে সহায়তা গ্রহণ করবেন। বেসামরিক প্রশাসনকে সহায়তা করবে সেনাবাহিনী।

সোমবার (২৩ মার্চ) বিকেলে মন্ত্রীপরিষদ সচিব খন্দকার আনোয়ারুল ইসলাম ব্রিফিংয়ে এ তথ্য জানান। তিনি বলেন, ‘২৬ মার্চ সরকারি ছুটি, এর সঙ্গে ২৭-২৮ তারিখ সাপ্তাহিক ছুটি রয়েছে। সেই সাথে ২৯ থেকে ২ এপ্রিল পর্যন্ত সাধারণ ছুটি ঘোষণা করা হচ্ছে। ৩ ও ৪ এপ্রিল আবার সাপ্তাহিক ছুটি রয়েছে। তবে ওষুধের দোকান, কাঁচাবাজার সব খোলা থাকবে।’ 
মন্ত্রীপরিষদ সচিব আরো বলেন, ‘করোনা ভাইরাস বিস্তৃত হওয়ার কারণে সরকার এ সিদ্ধান্ত নিয়েছে। কোনোভাবেই যেন মানুষ জরুরী বিষয় ছাড়া বাড়ির বাইরে না আসে। আমরা দেখেছি বিনোদনমূলক এলাকায় ভিড় করেছে। এসময় যদি প্রয়োজনীয় কাজ করতে হয় অনলাইনে করতে হবে। যারা প্রয়োজন মনে করবে তারা খোলা রাখবে।’
পটিয়ায় মুজিববর্ষ উপলক্ষ্যে স্মারক পাবে ১০ হাজার শিক্ষার্থী; পটিয়া; মুজিববর্ষ; বিদ্যালয়; শতর্বষ; চট্টগ্রাম দক্ষিণ জেলা; চট্টগ্রাম; চট্টগ্রাম-কক্সবাজার মহাসড়ক; ইন্দ্রপুল লবণ শিল্প; পটিয়া লবণ শিল্প; পটিয়া বাইপাস; চাঁনখালী খাল; শ্রীমাই খাল; শ্রীমতি খাল; শিক্ষাঙ্গন; স্কুল; কলেজ
পটিয়ায় মুজিববর্ষ উদযাপনের প্রস্তুতি সভায় মোড়ক উন্মোচন

ভয়েস অব পটিয়া-সংবাদ বিজ্ঞপ্তিঃ 
মুজিববর্ষ উপলক্ষ্যে পটিয়া উপজেলার ১০ হাজার শিক্ষার্থীর মাঝে মুজিববর্ষের স্মারক হিসেবে টিশার্ট, লোগো ও মগ বিতরণের উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে। আগামীকাল মঙ্গলবার ১৭ মার্চ সকাল ১০ টায় একযোগে উপজেলার ২২২ টি প্রাথমিক, মাধ্যমিক বিদ্যালয় ও কলেজে এ অনুষ্ঠানমালা শুরু হবে। এসময় শতশত কবুতর ও বেলুন উড়িয়ে বঙ্গবন্ধু ঘোষিত সাবেক মহকুমা (জেলা) বৃহত্তর পটিয়ায় মুজিববর্ষের সূচনা হবে। থাকবে জাতীয় সংগীত এবং ১০০ প্রতিবন্ধীকে হুইল চেয়ার বিতরণ কর্মসূচি।
স্বাধীন বাংলাদেশের স্বপ্নদ্রষ্টা মাওলানা ভাসানীর ১৪০তম জন্মবার্ষিকী আজ; বাংলাদেশের স্বাধীনতা; স্বাধীনতা; মুক্তিযুদ্ধ; ভয়েস অব পটিয়া; পটিয়া; চট্টগ্রাম দক্ষিণ জেলা; চট্টগ্রাম; চট্টগ্রাম-কক্সবাজার মহাসড়ক; ইন্দ্রপুল লবণ শিল্প, পটিয়া লবণ শিল্প, পটিয়া বাইপাস, চাঁনখালী খাল, কক্সবাজার; ঢাকা; টাঙ্গাইল; সন্তোষ; আওয়ামী লীগ; মুসলিম লীগ; ভাসানী নভোথিয়েটার; আসাম; পশ্চিমবঙ্গ; লংমার্চ; ফারাক্কা; শ্রীমাই খাল; শ্রীমতি খাল; Voice of Patiya

ভয়েস অব পটিয়া-ন্যাশনাল ডেস্কঃ স্বাধীন বাংলাদেশের স্বপ্নদ্রষ্টা মাওলানা আবদুল হামিদ খান ভাসানীর ১৪০ তম জন্মবার্ষিকী আজ। ১৮৮০ সালের এই দিনে সিরাজগঞ্জের ধানগড়া গ্রামে জন্মগ্রহণ করেন মজলুম এ জননেতা।

১৯৪৯ সালে আওয়ামী মুসলিম লীগ প্রতিষ্ঠা করেন মাওলানা আবদুল হামিদ খান ভাসানী। এই মজলুম জননেতা মাওলানা আবদুল হামিদ খান ভাসানীর ১৪০ তম জন্মবার্ষিকী আজ (বৃহষ্পতিবার, ১২ ডিসেম্বর)।

১৮৮০ সালের ১২ ডিসেম্বর সিরাজগঞ্জের ধানগড়া গ্রামে মাওলানা ভাসানীর জন্ম। সিরাজগঞ্জে জন্ম হলেও মাওলানা আবদুল হামিদ খান ভাসানী তার জীবনের সিংহভাগই কাটিয়েছেন টাঙ্গাইলের সন্তোষে। সন্তোষের মাটিতেই তিনি চিরনিদ্রায় শায়িত আছেন। 

মাওলানা আবদুল হামিদ খান ভাসানী তার কৈশোর-যৌবন থেকেই রাজনীতির সাথে জড়িত ছিলেন। দীর্ঘদিন তিনি তৎকালীন বাংলা-আসাম প্রদেশ মুসলিম লীগের সভাপতি ছিলেন। 
লাইন-প্রথা উচ্ছেদ, জমিদারদের নির্যাতন বিরোধী আন্দোলনসহ সারাজীবনই সাধারণ মানুষের কল্যাণে আন্দোলন-সংগ্রাম করেছেন তিনি। বাংলাদেশের স্বাধীনতা যুদ্ধের সময় তিনি সর্বদলীয় ওয়ার কাউন্সিলের উপদেষ্টা ছিলেন। স্বাধীন বাংলাদেশের সর্বপ্রথম ধারণা দেন মাওলানা আবদুল হামিদ খান ভাসানী।

১৯৭২ সালের ৯ই এপ্রিল ঢাকার পল্টন ময়দানে স্বাধীন বাংলাদেশের প্রথম জনসভায় তিনি ভারতীয় পণ্য বর্জনের ডাক দেন। ভারতীয় আগ্রাসন বিরুদ্ধে আন্দোলনের ডাক দেন। 

দেশব্যাপী দুর্ভিক্ষের প্রেক্ষাপটে ১৯৭৪ সালে ভাসানীর ভুখা মিছিল বিশ্বব্যাপী আলোড়ন সৃষ্টি করে। 

১৯৭৬ সালে ফারাক্কা অভিমুখে ঐতিহাসিক লংমার্চের নেতৃত্ব দিয়ে তিনি ভারতের সেবাদাসদের চক্ষুশূলে পরিণত হন।

স্বাধীনতার স্বপ্নদ্রষ্টা মাওলানা ভাসানীর ৪৩তম মৃত্যুবার্ষিকী আজ; বাংলাদেশের স্বাধীনতা; স্বাধীনতা; মুক্তিযুদ্ধ; ঢাকা; টাঙ্গাইল; সন্তোষ; আওয়ামী লীগ; মুসলিম লীগ; ভাসানী নভোথিয়েটার; আসাম; পশ্চিমবঙ্গ; লংমার্চ; ফারাক্কা
স্বাধীন বাংলাদেশের স্বপ্নদ্রষ্টা মাওলানা ভাসানীর ৪৩তম মৃত্যুবার্ষিকী আজ

ভয়েস অব পটিয়া-ন্যাশনাল ডেস্কঃ স্বাধীন বাংলাদেশের স্বপ্নদ্রষ্টা মাওলানা আবদুল হামিদ খান ভাসানীর ৪৩ তম মৃত্যুবার্ষিকী আজ। ১৯৭৬ সালের এই দিনে তৎকালীন পিজি হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মৃত্যুবরণ করেন মজলুম এ জননেতা।

১৯৪৯ সালে আওয়ামী মুসলিম লীগ প্রতিষ্ঠা করেন মাওলানা আবদুল হামিদ খান ভাসানী। এই মজলুম জননেতা মাওলানা আবদুল হামিদ খান ভাসানীর ৪৩ তম মৃত্যুবার্ষিকী আজ (রবিবার, ১৭ নভেম্বর)।
১৯৭৬ সালের এইদিনে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয় হাসপাতালে (তৎকালীন পিজি) চিকিৎসাধীন অবস্থায় তিনি মৃত্যুবরণ করেন।

আজ রবিবার (১৭ নভেম্বর) ভোর থেকেই মজলুম জননেতা মাওলানা আবদুল হামিদ খান ভাসানীর কবর জেয়ারত ও শ্রদ্ধা জানাতে ঢল নামে সাধারণ মানুষের। আওয়ামী লীগ, বিএনপি, জাতীয় পার্টিসহ বিভিন্ন রাজনৈতিক দল, সামাজিক-সাংস্কৃতিক সংগঠন পুষ্পস্তবক অর্পণ করেন প্রয়াত এই নেতার কবরে।

১৮৮০ সালের ১২ ডিসেম্বর সিরাজগঞ্জের ধানগড়া গ্রামে মাওলানা ভাসানীর জন্ম। সিরাজগঞ্জে জন্ম হলেও মাওলানা আবদুল হামিদ খান ভাসানী তার জীবনের সিংহভাগই কাটিয়েছেন টাঙ্গাইলের সন্তোষে। সন্তোষের মাটিতেই তিনি চিরনিদ্রায় শায়িত আছেন। 

মাওলানা আবদুল হামিদ খান ভাসানী তার কৈশোর-যৌবন থেকেই রাজনীতির সাথে জড়িত ছিলেন। দীর্ঘদিন তিনি তৎকালীন বাংলা-আসাম প্রদেশ মুসলিম লীগের সভাপতি ছিলেন। 
লাইন-প্রথা উচ্ছেদ, জমিদারদের নির্যাতন বিরোধী আন্দোলনসহ সারাজীবনই সাধারণ মানুষের কল্যাণে আন্দোলন-সংগ্রাম করেছেন তিনি। বাংলাদেশের স্বাধীনতা যুদ্ধের সময় তিনি সর্বদলীয় ওয়ার কাউন্সিলের উপদেষ্টা ছিলেন। 

১৯৭২ সালের ৯ই এপ্রিল ঢাকার পল্টন ময়দানে স্বাধীন বাংলাদেশের প্রথম জনসভায় তিনি ভারতীয় পণ্য বর্জনের ডাক দেন। ভারতীয় আগ্রাসন বিরুদ্ধে আন্দোলনের ডাক দেন। 

দেশব্যাপী দুর্ভিক্ষের প্রেক্ষাপটে ১৯৭৪ সালে ভাসানীর ভুখা মিছিল বিশ্বব্যাপী আলোড়ন সৃষ্টি করে। 

১৯৭৬ সালে ফারাক্কা অভিমুখে ঐতিহাসিক লংমার্চের নেতৃত্ব দিয়ে তিনি ভারতের সেবাদাসদের চক্ষুশূলে পরিণত হন। 

এদিকে মাওলানা ভাসানীর মৃত্যুবার্ষিকীকে কেন্দ্র করে টাঙ্গাইলে অবস্থিত মাওলানা ভাসানী বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়, সন্তোষ ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়, টেকনিক্যাল কলেজ, মাওলানা ভাসানী ফাউন্ডেশনসহ বিভিন্ন শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান ও সংগঠন নানা কর্মসূচি গ্রহণ করেছে।
এমবিবিএস পাশ না করেও হলফনামায় পাশ উল্লেখ : তিমির বরণ চৌধুরীর মনোনয়নপত্র বাতিল; উপজেলা পরিষদ নির্বাচন; ভাইস চেয়ারম্যান; উপজেলা; নির্বাচন; পটিয়া; পটিয়ার সংবাদ; পটিয়া নিউজ
এমবিবিএস পাশের মিথ্যা তথ্য প্রদানের অভিযোগে তিমির বরণের মনোনয়নপত্র বাতিল

ভয়েস অব পটিয়া-নিউজ ডেস্কঃ হলফনামায় মিথ্যা তথ্য দেয়ায় পটিয়া উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে ভাইস চেয়ারম্যান পদপ্রার্থী তিমির বরণ চৌধুরীর মনোনয়নপত্র বাতিল করেছে চট্টগ্রাম জেলা প্রশাসনের আপিল বিভাগ। 
সোমবার বিকেলে চট্টগ্রাম জেলা প্রশাসন কার্যালয়ের স্থানীয় সরকার বিভাগের উপ-পরিচালক ইয়াসমিন আক্তার তিবরিজী এ সংক্রান্ত অভিযোগের শুনানি শেষে তার মনোনয়নপত্র বাতিল করেন। 

এর আগে পটিয়া উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে ভাইস চেয়ারম্যান পদে প্রতিদ্বন্দ্বী প্রার্থী সাবেক ছাত্রলীগ নেতা সাহাব উদ্দিন একই পদে প্রতিদ্বন্দ্বী তিমির বরণ চৌধুরীর শিক্ষাগত যোগ্যতার ক্ষেত্রে হলফনামায় মিথ্যা তথ্য দিয়েছেন মর্মে জেলা প্রশাসনের আপিল বিভাগে অভিযোগ করেন। তিমির বরণ চৌধুরী ২০১৪ ও ২০১৯ এর উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে শিক্ষাগত যোগ্যতার ক্ষেত্রে দুই ধরনের তথ্যপ্রদানের পাশাপাশি ভুয়া এমবিবিএস সনদ প্রদান করছেন মর্মে অভিযোগ জানান সাহাব উদ্দিন৷

এমবিবিএস পাশ না করেও হলফনামায় পাশ উল্লেখ : তিমির বরণ চৌধুরীর মনোনয়নপত্র বাতিল; উপজেলা পরিষদ নির্বাচন; ভাইস চেয়ারম্যান; উপজেলা; পটিয়া; নির্বাচন
তিমির বরণ চৌধুরীর নির্বাচনী হলফনামা

প্রতিদ্বন্দ্বী প্রার্থী সাহাব উদ্দিন অভিযোগে জানান, ‘উচ্চ মাধ্যমিকের ফলাফল জালিয়াতির দায়ে চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ কর্তৃপক্ষ তিমির বরণ চৌধুরীর ছাত্রত্ব আজীবনের জন্য বাতিল করে। এরপর তিনি ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজে ভুয়া সার্টিফিকেট দিয়ে ভর্তি হয়ে বেসরকারী ইউএসটিসি মেডিকেল কলেজে বদলী হয়ে আসলেও তার জালিয়াতির বিষয়টি জানাজানি হলে ১৯৯০ সালে ইউএসটিসি মেডিকেল কলেজ কর্তৃপক্ষ তাকে বহিষ্কার করে। এ দ্বারা প্রমাণিত হয় তিনি এমবিবিএস পাশ না করেও হলফনামায় এমবিবিএস পাশ উল্লেখ করেন এবং এ সংক্রান্ত বিএমডিসির একটি জাল প্রত্যয়নপত্র সংযুক্ত করেন।’
এদিকে গতকালের শুনানিতে বিষয়টি প্রমাণিত হওয়ায় তিমির বরণ চৌধুরীর মনোনয়নপত্র বাতিল করে দেন জেলা নির্বাচন কমিশনের আপিল বিভাগ। চট্টগ্রাম জেলা প্রশাসন কার্যালয়ে স্থানীয় সরকার বিভাগের উপ-পরিচালক ইয়াসমিন আক্তার তিবরীজি প্রার্থী তিমির বরণ চৌধুরীর মনোনয়নপত্র বাতিলের বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন। হলফনামায় এমবিবিএস পাশ উল্লেখ করলেও এর স্বপক্ষে বৈধ কোন কাগজপত্র-সনদ দেখাতে না পারায় তার মনোনয়নপত্র বাতিল হয়েছে বলে জানান তিনি।

৭৪ ঘন্টা পর ফিরলো মোবাইল ইন্টারনেট; ইন্টারনেট; বিটিআরসি; একাদশ সংসদ নির্বাচন; BTRC; 3G; 4G; Mobile Internet; Internet; Data; Election
৭৪ ঘন্টা পর ফিরলো মোবাইল ইন্টারনেট

ভয়েস অব পটিয়া-নিউজ ডেস্কঃ একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনকে ঘিরে তিন দফায় ৭৪ ঘণ্টা বন্ধ রাখার পর মোবাইল ফোনের থ্রিজি ও ফোরজি ইন্টারনেট সেবা আবার চালু হয়েছে।
 
বেসরকারী একটি মোবাইল অপারেটরের একজন কর্মকর্তা জানান, ‘মঙ্গলবার সকাল ১০টার দিকে বিটিআরসির নির্দেশনা পেয়ে তারা থ্রিজি ও ফোরজি ইন্টারনেট চালু করে দেন।’

ইন্টারনেট বন্ধের কারণ ব্যাখ্যায় টেলিযোগাযোগ নিয়ন্ত্রক সংস্থা বিটিআরসির জ্যেষ্ঠ সহকারী পরিচালক (মিডিয়া) জাকির হোসেন খান শনিবার বলেছিলেন, ‘রাষ্ট্রের নিরাপত্তার স্বার্থে ও গুজব প্রতিরোধে সরকারের নির্দেশনায় এই পদক্ষেপ নেওয়া হয়েছে।’

৩০ ডিসেম্বর একাদশ সংসদ নির্বাচনে ভোটগ্রহণ ঘিরে বিটিআরসির ভাষ্যমতে ‘গুজব, অপপ্রচার ঠেকাতে ইন্টারনেট বন্ধের’ কথা আলোচনায় ছিল বেশ কিছুদিন ধরেই। এর ধারাবাহিকতায় গত ২৭ ডিসেম্বর রাত সাড়ে ১০টা থেকে পরদিন সকাল সাড়ে ৮টা পর্যন্ত মোবাইল ইন্টারনেটে থ্রিজি ও ফোরজি সেবা বন্ধ রাখা হয়। এরপর ভোটের আগের দিন ২৯ ডিসেম্বর এই সেবা ৩৩ ঘণ্টার জন্য বন্ধ করে রাখতে অপারেটরগুলোকে নির্দেশ দেয় বিটিআরসি। নির্দেশনা অনুযায়ী শনিবার বিকাল ৩টার পর থেকেই মোবাইল ইন্টারনেট বন্ধ রাখা হয়। তখন পর্যন্ত বিটিআরসি নির্দেশনায় বলা ছিল, ফোরজির ভয়েস ও ডেটা এবং থ্রিজির ডেটা সেবা পুরোপুরি বন্ধ রাখতে হবে। তবে থ্রিজির ভয়েস এবং টুজি ভয়েস ও ডেটা সেবা চালু রাখতে হবে। কিন্তু শনিবার মধ্যরাতে বিটিআরসি টুজি ইন্টারনেট সেবাও বন্ধ করার নির্দেশনা দেয়। প্রায় ২৭ ঘণ্টা পর রোববার ভোট শেষে সন্ধ্যা সোয়া ৬টায় মোবাইল ফোন অপারেটররা সব ধরনের মোবাইল ইন্টারনেট চালু করে দেওয়ার নির্দেশনা পায়। কিন্তু তিন ঘণ্টার মাথায় ফের নতুন নির্দেশনা আসে এবং রাত ৯টায় সারা দেশে থ্রিজি ও ফোরজি ইন্টারনেট আবার বন্ধ করে দেওয়া হয়।

টানা ৩৭ ঘণ্টা বন্ধ থাকার পর মঙ্গলবার সকাল ১০টায় বাংলাদেশে মোবাইল ফোনে ইন্টারনেট সেবা ফেরে। টেলিযোগাযোগ নিয়ন্ত্রক সংস্থা বিটিআরসির হিসেবে গত নভেম্বর পর্যন্ত দেশে ইন্টারনেট গ্রাহকের সংখ্যা ছিল ৯ কোটি ১৮ লাখের বেশি; এর মধ্যে ৮ কোটি ৬০ লাখ গ্রাহক মোবাইল ইন্টারনেট ব্যবহার করে থাকেন।
পটিয়ায় আওয়ামীলীগ-বিএনপি দফায় দফায় সংঘর্ষ-আহত ২০, গাড়ি ভাঙচুর-অগ্নিসংযোগ-ফাঁকা গুলি; পটিয়া; চট্টগ্রাম; Patiya; Chittagong; Chattogram
পটিয়ায় আওয়ামীলীগ-বিএনপি দফায় দফায় সংঘর্ষ-আহত ২০, গাড়ি ভাঙচুর-অগ্নিসংযোগ-ফাঁকা গুলি 

ভয়েস অব পটিয়া-নিউজ ডেস্কঃ পটিয়ায় নির্বাচনী প্রচারণাকালে আওয়ামী লীগ ও বিএনপি সমর্থকদের মধ্যে দফায় দফায় সংঘর্ষের ঘটনা ঘটেছে। এ সময় দুটি মোটরসাইকেলে অগ্নিসংযোগ, ৫টি পিকআপ ভাঙচুর ও ফাঁকা গুলির ঘটনা ঘটেছে। এতে উভয় পক্ষের ২০ জন নেতাকর্মী আহত হয়েছে। 

গতকাল বৃহস্পতিবার সকাল ১১টার দিকে উপজেলার জিরি ইউনিয়নের ফকিরা মসজিদ ও দুপুর আড়াইটার দিকে কৈয়গ্রাম এলাকায় দুই দফায় সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে। আহতরা হলেন নৌকা প্রতীকের প্রার্থী আওয়ামীলীগের সামশুল হক চৌধুরী সমর্থক আলমগীর (৩৫), মোহাম্মদ নুরু (৩৭), মোহাম্মদ ইদ্রিস (৩৫), মোহাম্মদ আরিফ (১৮), মামুন (৩০), মোহাম্মদ ইমরান (৩৫), মোহাম্মদ আবির (২২), মোহাম্মদ আরিফ নেওয়াজ (২২), মনজুরুল আলম (৪৫) ও ধানের শীষ প্রার্থী বিএনপির এনামুল হক এনাম সমর্থক ফয়েজ (১৮), নাঈমুল ইসলাম (১৮), মোহাম্মদ সাজ্জাদ (১৯), মোহাম্মদ ফারুক (১৮), মোহাম্মদ মনির (৩০), শহীদুল (৩০), মোহাম্মদ রাজু (২৫), মোহাম্মদ শহীদ (২৫), আশিষ (২২), মামুন রিয়াদ (২৫)। 

পুলিশ ও স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, বৃহস্পতিবার সকালে জিরি ইউনিয়নের বিভিন্ন স্থানে বিএনপি প্রার্থী এনামুল হক এনামের গণসংযোগ ও পথসভার কর্মসূচি ছিল। এ লক্ষ্যে এনামের একদল সমর্থক ফকিরা মসজিদ এলাকায় পৌঁছলে আওয়ামী লীগ ও বিএনপি নেতাকর্মীদের মুখোমুখী সংঘর্ষ হয়। এক পর্যায়ে ফাঁকা গুলি এবং ধাওয়া পাল্টা ধাওয়া হয়। ওই সময় বিএনপি সমর্থকরা আওয়ামী লীগ সমর্থিত কর্মীদের দুটি মোটর সাইকেল পুড়িয়ে দেয়। পরে ছাত্রলীগ নেতাকর্মীরা বিএনপি নেতাকর্মীদের ধাওয়া করে এবং তিনটি পিকআপ ভাঙচুর করে বলে অভিযোগে জানায় বিএনপি নেতাকর্মীরা। 

এদিকে, বৃহস্পতিবার দুপুর আড়াইটার দিকে আওয়ামী লীগের প্রচারণার গাড়ি বের হলে কৈয়গ্রাম এলাকায় বিএনপি প্রার্থী সমর্থিত লোকজন হামলা করে ২টি গাড়ি ভাঙচুর করে বলে ছাত্রলীগ অভিযোগ জানায়। পুলিশ ঘটনাস্থল থেকে আগুনে পুঁড়ে যাওয়া মোটর সাইকেলসহ ঘটনার আলামত সংগ্রহ করে। 
এ ব্যাপারে জানতে চাইলে উপজেলা বিএনপির সাধারণ সম্পাদক খোরশেদ আলম জানান, ‘বিএনপির প্রার্থীসহ মিছিল নিয়ে গণসংযোগে বের হলে ফকিরা মসজিদ এলাকায় অতর্কিতভাবে তাদের উপর আওয়ামী লীগের কয়েকজন উশৃঙ্খল নেতাকর্মী হামলা করে ও ৩টি পিকআপ ভাঙচুর করে। পৌর সদর ৯নং ওয়ার্ডের সাবেক কমিশনার ও বিএনপি নেতা ইলিয়াছ চৌধুরী ভুট্টোর (৪২) উপর হামলা করা হয়েছে।’

অপরদিকে কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগের সাবেক সদস্য মোহাম্মদ আরিফ জানান, ‘বিএনপির নেতাকর্মীরা লাঠিসোটা ও অস্ত্রশস্ত্র নিয়ে তাদের দলীয় কার্যালয়ে এসে মাইক বন্ধ করে দেয় এবং ২টি মোটর সাইকেল জ্বালিয়ে দেয়। খবর পেয়ে পটিয়া থানা পুলিশ ও বিজিবির একটি বিশেষ টিম ঘটনাস্থলে ছুটে যায়। তবে কাউকে গ্রেফতার করতে পারেনি।’

পটিয়া থানার উপ-পরিদর্শক আবদুল আওয়াল জানান, ‘গাড়িতে অগ্নিসংযোগ ও পিকআপ ভাঙচুরের খবর পেয়ে পুলিশ ও বিজিবির একটি বিশেষ টিম জিরি ইউনিয়নের ফকিরা মসজিদ এলাকায় ছুটে যায়। প্রকৃত আসামিদের গ্রেফতারের চেষ্টা চলছে।’