Articles by "প্রশাসন"
Showing posts with label প্রশাসন. Show all posts

মসজিদে তারাবীহর নামাযে ২০ জনের বেশি নয় : ধর্ম মন্ত্রণালয়; পটিয়া; চট্টগ্রাম; Patiya; Chittagong; Chattogram; সংবাদ; সারাদেশ; ঢাকা; করোনা; করোনা ভাইরাস; Covid, Covid 19; Corona
মসজিদে তারাবীহর নামাযে ২০ জনের বেশি নয় : ধর্ম মন্ত্রণালয় 

ভয়েস অব পটিয়া-ন্যাশনাল ডেস্কঃ  দেশে করোনার সংক্রমণের উর্ধ্বগতি হওয়ায় আগামী ১৪ এপ্রিল হতে ২১ এপ্রিল পর্যন্ত সারাদেশে এক সপ্তাহের লকডাউনের ঘোষণার মধ্যে নতুন করে মসজিদে নামায আদায়ের উপর নির্দেশনা জারি করে বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ করেছে ধর্ম বিষয়ক মন্ত্রণালয়।

বিজ্ঞপ্তিতে মসজিদে পাঁচ ওয়াক্ত নামাযসহ পবিত্র রমজান মাসের তারাবীহর নামায আদায়ে খতিব-ইমাম-মুয়াজ্জিন-হাফেজ-খাদেম সহ সর্বোচ্চ ২০ জন মুসল্লি অংশগ্রহণ করতে পারবেন বলে নির্দেশনা দেয়া হয়েছে।

আজ সোমবার (১২ এপ্রিল) সন্ধ্যায় ধর্ম বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের ‍উপসচিব মোঃ সাখাওয়াৎ হোসেন স্বাক্ষরিত এক বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানানো হয়।

এর আগে দুপুরে মন্ত্রীপরিষদ বিভাগ আগামী ১৪ এপ্রিল হতে ২১ এপ্রিল পর্যন্ত সারাদেশে কঠোর লকডাউন সংক্রান্ত এক প্রজ্ঞাপন জারি করে। এসময় জরুরী সেবা ছাড়া সব ধরনের গণপরিবহন (সড়ক, নৌ, রেল ও অভ্যন্তরীণ-আন্তর্জাতিক ফ্লাইট) বন্ধ থাকবে। তবে পণ্য পরিবহন, উৎপাদন ব্যবস্থা, জরুরী সেবাদানের ক্ষেত্রে এ আদেশ প্রযোজ্য হবে না। এছাড়া বিদেশগামী/বিদেশ প্রত্যাগত ব্যক্তিদের ক্ষেত্রেও এ নিষেধাজ্ঞা কার্যকর হবে। 

এ সংক্রান্ত প্রজ্ঞাপন

১৪ থেকে ২১ এপ্রিল কঠোর লকডাউন-চালু থাকবে শিল্প-কারখানা; পটিয়া; চট্টগ্রাম; Patiya; Chittagong; Chattogram; সংবাদ; সারাদেশ; ঢাকা; করোনা; করোনা ভাইরাস; Covid, Covid 19; Corona
করোনা : ১৪ থেকে ২১ এপ্রিল কঠোর লকডাউন-চালু থাকবে শিল্প-কারখানা


ভয়েস অব পটিয়া-ন্যাশনাল ডেস্কঃ  দেশে করোনার সংক্রমণের উর্ধ্বগতি হওয়ায় আগামী ১৪ এপ্রিল হতে ২১ এপ্রিল পর্যন্ত সারাদেশে এক সপ্তাহের লকডাউনের ঘোষণা করে এ সংক্রান্ত প্রজ্ঞাপন জারি করেছে মন্ত্রীপরিষদ বিভাগ। 

এ সময় বন্ধ থাকবে অফিস-আদালত, দোকানপাট-ব্যবসা প্রতিষ্ঠান। চলবে না বাস, ট্রেন, লঞ্চ, প্লেন। তবে খোলা থাকবে শিল্প-কারখানাসমূহ। 

মন্ত্রীপরিষদ বিভাগের ‍উপসচিব মোঃ রেজাউল ইসলাম স্বাক্ষরিত এক বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানানো হয়।

এর আগে লকডাউনে গণপরিবহন চলাচল সম্পর্কে অনলাইন ব্রিফিংয়ে সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের বলেছেন, ‘১৪ এপ্রিল থেকে সকল প্রকার গণপরিবহন সম্পূর্ণ বন্ধ থাকবে। তবে জরুরী সেবা, পণ্য পরিবহন, ওষুধ, জ্বালানী, পচনশীল, ত্রাণবাহী পরিবহন, গার্মেন্টস সামগ্রী ও সংবাদপত্র এ নিষেধাজ্ঞার আওতামুক্ত থাকবে কঠোর।’ 

মন্ত্রিপরিষদ বিভাগ আজ সোমবার (১২ এপ্রিল) এ সংক্রান্ত প্রজ্ঞাপন জারি করে। প্রজ্ঞাপনে বলা হয়, সব ধরনের গণপরিবহন (সড়ক, নৌ, রেল ও অভ্যন্তরীণ-আন্তর্জাতিক ফ্লাইট) বন্ধ থাকবে। তবে পণ্য পরিবহন, উৎপাদন ব্যবস্থা, জরুরী সেবাদানের ক্ষেত্রে এ আদেশ প্রযোজ্য হবে না। এছাড়া বিদেশগামী/বিদেশ প্রত্যাগত ব্যক্তিদের ক্ষেত্রেও এ নিষেধাজ্ঞা কার্যকর হবে। 

দুপুর ১২টা থেকে সন্ধ্যা ৭টা এবং রাত ১২টা থেকে ভোর ৬টা পর্যন্ত খাবার দোকান-হোটেল রেস্তোরাগুলো খোলা থাকবে,  তবে কেবলমাত্র খাবার বিক্রয়/নেয়া যাবে। বসে খাওয়া যাবে না।

কাঁচাবাজার ও নিত্যপ্রয়োজনীয় দ্রব্যাদি সকাল ৯টা থেকে বিকাল ৩টা পর্যন্ত উন্মুক্ত স্থানে স্বাস্থ্যবিধি মেনে ক্রয়-বিক্রয় করা যাবে।

আইনশৃঙ্খলা এবং জরুরী পরিষেবা, যেমন- ত্রাণ বিতরণ, স্বাস্থ্য সেবা, বিদ্যুৎ, পানি, গ্যাস / জ্বালানী, ফায়ার সার্ভিস, বন্দরসমূহের (স্থলবন্দর, নদীবন্দর ও সমুদ্রবন্দর) কার্যক্রম, টেলিফোন ও ইন্টারনেট, ডাক সেবাসহ অন্যান্য জরুরী ও অত্যাবশকীয় পণ্য ও সেবার সঙ্গে সংশ্লিষ্ট অফিসসমূহ তাদের কর্মচারী ও যানবাহন ও নিষেধাজ্ঞার আওতা বহির্ভূত থাকবে। 

এ সংক্রান্ত প্রজ্ঞাপন


মসজিদে ইফতার-সেহরির আয়োজন করা যাবে না : ধর্ম মন্ত্রণালয়; পটিয়া; চট্টগ্রাম; Patiya; Chittagong; Chattogram; সংবাদ; সারাদেশ; ঢাকা; করোনা; করোনা ভাইরাস; Covid, Covid 19; Corona
মসজিদে ইফতার-সেহরির আয়োজন করা যাবে না : ধর্ম মন্ত্রণালয়

ভয়েস অব পটিয়া-নিউজ ডেস্কঃ করোনা ভাইরাসের প্রাদুর্ভাবজনিত কারণে সারাদেশের মসজিদসমূহে স্বাস্থ্যবিধি নিশ্চিতকল্পে জামায়াতে নামায আদায় প্রসঙ্গে নির্দেশনা সংবলিত এক জরুরী বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ করেছে ধর্ম বিষয়ক মন্ত্রণালয়। উক্ত নির্দেশনায় পবিত্র রমযান মাসে মসজিদে ইফতার ও সেহেরি আয়োজন না করার প্রতিও নির্দেশনা প্রদান করা হয়েছে।

এ সংক্রান্ত বিজ্ঞপ্তি


করোনা : ৫ থেকে ১১ এপ্রিল লকডাউন-বন্ধ থাকবে গণপরিবহন; পটিয়া; চট্টগ্রাম; Patiya; Chittagong; Chattogram; সংবাদ; সারাদেশ; ঢাকা; করোনা; করোনা ভাইরাস; Covid, Covid 19; Corona
করোনা : ৫ থেকে ১১ এপ্রিল লকডাউন-বন্ধ থাকবে গণপরিবহন

ভয়েস অব পটিয়া-ন্যাশনাল ডেস্কঃ  দেশে করোনার সংক্রমণের উর্ধ্বগতি হওয়ায় আগামীকাল ০৫ এপ্রিল হতে ১১ এপ্রিল পর্যন্ত সারাদেশে লকডাউনের ঘোষণা করে এ সংক্রান্ত প্রজ্ঞাপন জারি করেছে সরকার। 
এ সময় বন্ধ থাকবে অফিস-আদালত, দোকানপাট-ব্যবসা প্রতিষ্ঠান। চলবে না বাস, ট্রেন, লঞ্চ,প্লেন। 

জনপ্রশাসন মন্ত্রী ফরহাদ হোসেন এক প্রেস ব্রিফিং এ বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন। 

লকডাউনে গণপরিবহন চলাচল সম্পর্কে অনলাইন ব্রিফিংয়ে সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের বলেছেন, ‘সোমবার (০৫ এপ্রিল) থেকে গণপরিবহন বন্ধ থাকবে। তবে জরুরী সেবা, পণ্য পরিবহন, ওষুধ, জ্বালানী, পচনশীল, ত্রাণবাহী পরিবহন, গার্মেন্টস সামগ্রী ও সংবাদপত্র এ নিষেধাজ্ঞার আওতামুক্ত থাকবে।’ 

মন্ত্রিপরিষদ বিভাগ আজ রোববার (০৪ এপ্রিল) এ সংক্রান্ত প্রজ্ঞাপন জারি করে। প্রজ্ঞাপনে বলা হয়, সব ধরনের গণপরিবহন (সড়ক, নৌ, রেল ও অভ্যন্তরীণ ফ্লাইট) বন্ধ থাকবে। তবে পণ্য পরিবহন, উৎপাদন ব্যবস্থা, জরুরী সেবাদানের ক্ষেত্রে এ আদেশ প্রযোজ্য হবে না। এছাড়া বিদেশগামী/বিদেশ প্রত্যাগত ব্যক্তিদের ক্ষেত্রে এ নিষেধাজ্ঞা কার্যকর হবে না। 
আইনশৃঙ্খলা এবং জরুরী পরিষেবা, যেমন- ত্রাণ বিতরণ, স্বাস্থ্য সেবা, বিদ্যুৎ, পানি, গ্যাস / জ্বালানী, ফায়ার সার্ভিস, বন্দরসমূহের (স্থলবন্দর, নদীবন্দর ও সমুদ্রবন্দর) কার্যক্রম, টেলিফোন ও ইন্টারনেট, ডাক সেবাসহ অন্যান্য জরুরী ও অত্যাবশকীয় পণ্য ও সেবার সঙ্গে সংশ্লিষ্ট অফিসসমূহ তাদের কর্মচারী ও যানবাহন ও নিষেধাজ্ঞার আওতা বহির্ভূত থাকবে। 

এ সংক্রান্ত প্রজ্ঞাপন


করোনাঃ সোমবার থেকে সারাদেশে এক সপ্তাহের ‘লকডাউন’; পটিয়া; চট্টগ্রাম; Patiya; Chittagong; Chattogram; সংবাদ; সারাদেশ; ঢাকা; করোনা; করোনা ভাইরাস; Covid, Covid 19; Corona
করোনাঃ সোমবার থেকে সারাদেশে এক সপ্তাহের ‘লকডাউন’

ভয়েস অব পটিয়া-নিউজ ডেস্কঃ দেশে করোনার সংক্রমণের উর্ধ্বগতি হওয়ায় আবারো লকডাউনের পথে সরকার। আগামী সোমবার (০৫ এপ্রিল) হতে সারাদেশে এক সপ্তাহের জন্য লকডাউনের সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছে। 

শনিবার এক সংবাদ সম্মেলনে এই কথা জানান সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের।

জনপ্রশাসন প্রতিমন্ত্রী ফরহাদ হোসেন জানান, ‘করোনা ভাইরাসের সংক্রমণ বাড়ায় আগামী দুই থেকে তিন দিনের মধ্যে এক সপ্তাহের জন্য সারাদেশে লকডাউনে যাচ্ছে সরকার। তবে শিল্প কলকারখানাগুলো খোলা থাকবে এবং সেগুলোতে শিফটিং ডিউটি চলবে। আগামীকালের মধ্যে এ সংক্রান্ত প্রজ্ঞাপন জারি করা হবে।'

প্রধানমন্ত্রীর মুখ্যসচিব ড. আহমদ কায়কাউসের মেয়াদ বৃদ্ধি; পটিয়ার কৃতি ব্যক্তিত্ব; শেখ হাসিনা; সচিবালয়

ভয়েস অব পটিয়া-ন্যাশনাল ডেস্কঃ অবসরোত্তর ছুটি ও এ সংশ্লিষ্ট সুবিধাদি স্থগিতের শর্তে প্রধানমন্ত্রীর মুখ্য সচিব পটিয়ার কৃতি ব্যক্তিত্ব ড. আহমদ কায়কাউসকে একই পদে আরও দুই বছরের জন্য চুক্তিভিত্তিক নিয়োগ দিয়েছে সরকার। 

সরকারী চাকরি আইন, ২০১৮ এর ৪৯ ধারা অনুযায়ী গতকাল (২৩ ডিসেম্বর) জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয়ের উপসচিব মোঃ অলিউর রহমান স্বাক্ষরিত এক প্রজ্ঞাপনে এ আদেশ জারি করা হয়েছে।

আগামী ০১ জানুয়ারি বা যোগদানের তারিখ থেকে প্রধানমন্ত্রীর মুখ্যসচিবের এই চুক্তিভিত্তিক নিয়োগ কার্যকর হবে বলে আদেশে উল্লেখ করা হয়েছে। 

এর আগে সরকারী চাকরি আইন, ২০১৮ এর ৪৩(১)(ক) ধারা অনুযায়ী আগামী ৩১ ডিসেম্বর থেকে তাকে অবসর প্রদান করে বুধবার (২৩ ডিসেম্বর) এ সংক্রান্ত একটি প্রজ্ঞাপন জারি করেছিল জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয়।

উল্লেখ্য, ড. আহমদ কায়কাউস ১৯৮৪ ব্যাচের প্রশাসন ক্যাডারের কর্মকর্তা হিসেবে সরকারী চাকরিতে যোগ দেন। বিদ্যুৎ বিভাগের অতিরিক্ত সচিব থাকাকালীন তাকে ভারপ্রাপ্ত সচিবের পদমর্যাদায় বাংলাদেশ বিদ্যুৎ উন্নয়ন কাউন্সিলের চেয়ারম্যান হিসেবে নিয়োগ দেয়া হয়। পরে ২০১৬ সালের ১৫ ডিসেম্বর বিদ্যুৎ বিভাগের ভারপ্রাপ্ত সচিব হন তিনি। ২০১৭ সালের ২৩ ফেব্রুয়ারি সচিব পদে পদোন্নতি পান। ২০১৯ সালের ২৭ ফেব্রুয়ারি সিনিয়র সচিব পদে পদোন্নতি পান তিনি। গত বছর ২৯ ডিসেম্বর ড. আহমদ কায়কাউসকে প্রধানমন্ত্রীর মুখ্য সচিব হিসেবে নিয়োগ প্রদান করা হয়। তখন থেকে এখন অবধি তিনি প্রায় এক বছর যাবত এই পদে দায়িত্ব পালন করছেন। 



প্রজ্ঞাপন

অবসরে যাচ্ছেন প্রধানমন্ত্রীর মুখ্য সচিব ড. আহমদ কায়কাউস


ভয়েস অব পটিয়া-ন্যাশনাল ডেস্কঃ চাকরির মেয়াদ পূর্ণ হওয়ায় অবসরে যাচ্ছেন প্রধানমন্ত্রীর মুখ্য সচিব পটিয়ার কৃতি ব্যক্তিত্ব ড. আহমদ কায়কাউস।
সরকারী চাকরি আইন, ২০১৮ এর ৪৩(১)(ক) ধারা অনুযায়ী আগামী ৩১ ডিসেম্বর থেকে তাকে অবসর প্রদান করে আজ বুধবার (২৩ ডিসেম্বর) এ সংক্রান্ত একটি প্রজ্ঞাপন জারি করেছে জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয়। সেই সাথে ১৮ মাসের মূল বেতনের সমপরিমাণ অর্থ ল্যাম্পগ্র্যান্টসহ আগামী ০১ জানুয়ারি হতে তাকে ১ বছরের অবসরোত্তর ছুটি (পি.আর.এল) মঞ্জুর করা হয়েছে। 

উল্লেখ্য, গত বছর ২৯ ডিসেম্বর ড. আহমদ কায়কাউসকে প্রধানমন্ত্রীর মুখ্য সচিব হিসেবে নিয়োগ দিয়ে  জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয় কর্তৃক প্রজ্ঞাপন জারি করা হয়। তখন থেকে তিনি প্রায় এক বছর এই পদে দায়িত্ব পালন করলেন।
তবে, এখন পর্যন্ত নতুন করে কাউকে প্রধানমন্ত্রীর মুখ্য সচিব হিসেবে নিয়োগ দেওয়া হয়নি। 

প্রশাসন ক্যাডারের ৮৪, ৮৫ এবং ৮৬ ব্যাচের মধ্য থেকে সরকারের বিশ্বস্ত কাউকে প্রধানমন্ত্রীর মুখ্য সচিব হিসেবে নিয়োগ দেওয়া হতে পারে বলে এ নিয়ে প্রশাসনের বিভিন্ন স্তরে আলোচনা চলছে।

প্রজ্ঞাপন

পটিয়ার ইউএনওসহ ৩ জনের বিরুদ্ধে মামলাঃ কাগজপত্র না দেখে সার জব্দের অভিযোগ; পটিয়া; চট্টগ্রাম; Patiya; Chittagong; Chattogram
পটিয়ার ইউএনওসহ ৩ জনের বিরুদ্ধে মামলাঃ কাগজপত্র না দেখে সার জব্দের অভিযোগ

ভয়েস অব পটিয়া-হোসাইন আমিরীঃ কাগজপত্র যাচাই বাছাই ছাড়া টিএসপি সার জব্দ করার অভিযোগে পটিয়া উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মোহাম্মদ রাসেলুল কাদেরসহ তিনজনের বিরুদ্ধে আদালতে একটি মামলা দায়ের করা হয়েছে। মামলার বিবাদী অন্যরা হলেন উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা আ.জ.ম মঈনউদ্দিন ও পটিয়া থানার ওসি শেখ মোঃ নেয়ামত উল্লাহ।

মঙ্গলবার পটিয়া যুগ্ম জেলা জজ আদালতে মামলাটি দায়ের করেন মেসার্স আমানত ট্রেডার্সের স্বত্বাধিকারী মোঃ ইউনুচ তালুকদার। মামলা নং-৬৪।

গত ৪ মার্চ ব্যবসায়ী ইউনুচের সাড়ে ৭ হাজার মেট্রিক টন টিএসপি সার জব্দ করেন উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা। এ ঘটনায় দারোয়ান আবু বক্করকে আটক করা হয়। পরে তাকে ছেড়ে দেওয়া হয়।

জব্দকৃত কোটি টাকার এসব সার ধ্বংস করতে গত ৬ মার্চ ফায়ার সার্ভিস, সড়ক ও জনপথ বিভাগ, পরিবেশ অধিদপ্তর ও থানা পুলিশকে পৃথক পৃথকভাবে চিঠি প্রদান করেন।

মামলার অভিযোগ সূত্রে জানা যায়, বন্দরের বহিনোঙ্গরে ‘এম.ভি মাইমেরি মাদার ভেসেল’ নামের একটি সার বোঝাই জাহাজ শুল্ক পরিশোধের পর খালাসের অপেক্ষায় ছিল। ২০১৭ সালের ২৫ সেপ্টেম্বর অন্য একটি জাহাজের ধাক্কায় সার বোঝাই জাহাজের একটি অংশ ফুটো হয়ে যায়। ওই সময় পানির আর্দ্রতায় ৭ হাজার ৪শ মেট্রিক টন টিএসপি সার নষ্ট হয়ে যায়। বন্দরের পরিবেশ ও নদীর পানি দূষিত হওয়ার সম্ভাবনায় শিপিং এজেন্ট এইচ.সি মেরিন লিমিটেড নষ্ট হওয়া সার সরিয়ে নিয়ে মেসার্স আমানত ট্রেডার্সকে কর্ণফুলী নদীর যে কোন সুবিধাজনক স্থানে রাখার জন্য একটি ওর্য়াক অর্ডার প্রদান করে। এর প্রেক্ষিতে ইউনুচ তালুকদার নষ্ট টিএসপি সার কর্ণফুলী নদীর শাখা খাল ভেল্লাপাড়া খালের পাড়ে এনে মজুদ করেন। এসব টিএসপি সারের গুনগতমান কমে যাওয়ায় তা খামার বাড়ি মাছের ঘের ও চা বাগানে দেওয়ার জন্য প্রক্রিয়া শুরু করেন তিনি। ওইসময় উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মোহাম্মদ রাসেলুল কাদের ঘটনাস্থলে গিয়ে ঐসব টিএসপি সার জব্দ করেন।

ব্যবসায়ী ইউনুচ তালুকদার অভিযোগ করেছেন উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা উদ্দেশ্য প্রনোদিত হয়ে তার কোটি টাকা মূল্যের সার অবৈধভাবে জব্দ করে হয়রানি শুরু করেছেন। ইতোমধ্যে তিনি ওই সার ধ্বংস করতে ফায়ার সার্ভিস, পুলিশ, সড়ক জনপথ বিভাগ ও পরিবেশ অধিদপ্তরকে লিখিতভাবে জানিয়েছেন। কিন্তু বৈধ কাগজপত্র থাকার ফলে ওই সব প্রতিষ্ঠান ধ্বংস কাজে এগিয়ে আসেনি। ইউএনও সম্পূর্ণ নিজ ইচ্ছায় এসব সার ধ্বংস করার পাঁয়তারা করছেন বলে অভিযোগ ব্যবসায়ী ইউনুচের।

এ ব্যাপারে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মোহাম্মদ রাসেলুল কাদের বলেন, নষ্ট টিএসপি সার বাজারজাত করার খবর পেয়ে অভিযান চালানো হয়েছে। জব্দকৃত সাড়ে ৭ হাজার মেট্রিক টন সার এখনো খোলা পড়ে রয়েছে। বিষয়টি জেলা প্রশাসককে অবহিত করা হয়েছে। সারগুলো ধ্বংস করতে ইতোমধ্যে সংশ্লিষ্ট দপ্তরে চিঠি দেওয়া হয়েছে। তাদের কাছ থেকে সহযোগিতা পেলেই নষ্ট এসব সার ধ্বংস করা হবে।

এ ব্যাপারে পটিয়া যুগ্ম জেলা জজ আদালতের এডভোকেট কাজী জসিম উদ্দীন জানিয়েছেন তার মক্কেলের কোটি টাকার টিএসপি সার ধ্বংসের নামে হয়রানির অভিযোগে এই মামলা করা হয়েছে। বিচারক শুনানি শেষে ইউএনওসহ তিনজনকে আদালতে স্বশরীরে হাজির থাকার নির্দেশ দিয়েছেন।