সংগঠনবিরোধী কার্যকলাপ-পটিয়া এলডিপির ৪ নেতাকে অবাঞ্ছিত ঘোষণা; LDP
সংগঠনবিরোধী কার্যকলাপ-পটিয়া এলডিপির ৪ নেতাকে অবাঞ্ছিত ঘোষণা

ভয়েস অব পটিয়া-প্রেস বিজ্ঞপ্তিঃ সংগঠন বিরোধী কার্যকলাপে লিপ্ত থাকায় পটিয়া পৌরসভা এলডিপির আহ্বায়ক আবদুর রশীদ, উপজেলা এলডিপির সভাপতি মনছুর আলম, সাধারণ সম্পাদক আইয়ুব আলী ও জেলা গণতান্ত্রিক যুবদলের সদস্য সচিব আব্দুল কুদ্দুছকে পটিয়া পৌরসভা এলডিপি ও এর অঙ্গসংগঠনের পক্ষ থেকে অবাঞ্ছিত ঘোষণা করা হয়েছে। 

আজ গণমাধ্যমে পাঠানো এক বিবৃতিতে পটিয়া পৌরসভা এলডিপির নেতা-কর্মীরা জানান, ‘এলডিপির প্রেসিডেন্ট ড. কর্ণেল (অব.) অলি আহমদের নেতৃত্বে সারাদেশে যখন গণতান্ত্রিক আন্দোলন অব্যাহত আছে, কেন্দ্রীয় সিদ্ধান্ত উপেক্ষা করে দলছুট উল্লেখিত এলডিপির নামধারী নেতাগণ সংগঠনের সিদ্ধান্তের বাইরে গিয়ে স্বৈরাচারী আওয়ামী সরকারের একপেশে ভোট ডাকাতির সাথে জড়িত হয়ে বিএনএম এর প্রার্থী এম.এয়াকুব আলীর নোঙ্গর মার্কায় প্রকাশ্যে নির্বাচনী প্রচার-প্রচারণায় জড়িত থাকায় আমরা এই সিদ্ধান্ত নিতে বাধ্য হইলাম।’ 
বিবৃতিদানকারীগণ হলেন, পটিয়া পৌরসভা এলডিপির যুগ্ম আহ্বায়ক মোহাম্মদ ছৈয়দ, সদস্য সচিব মুজিবুর রহমান, পটিয়া পৌরসভা গণতান্ত্রিক ছাত্রদলের সভাপতি আমিনুল হক আমীর, পটিয়া পৌরসভা গণতান্ত্রিক শ্রমিক দলের সাধারণ সম্পাদক মুহাম্মদ বেলাল, পটিয়া পৌরসভা এলডিপির সদস্য সচিব মুঃ সাদ্দাম হোসেন, সদস্য মু: ফারুক, অনিল চক্রবর্তী, মু: দেলোয়ার, মু: আলি, মু: আব্দুর রহিম প্রমুখগণ।
ঢাকা-কক্সবাজার ট্রেন, থামবে না পটিয়া!; ঢাকা; কক্সবাজার; রেল; কক্সবাজার রেল; পটিয়া; চট্টগ্রাম; Coxsbazar rail, Patiya; Chittagong; Chattogram
ঢাকা-কক্সবাজার ট্রেন, থামবে না পটিয়া!

ভয়েস অব পটিয়া-নিউজ ডেস্কঃ তৎকালীন আরাকানের রাজধানী পটিয়া, ব্রিটিশ বিরোধী আন্দোলনের সূতিকাগার পটিয়া, বঙ্গবন্ধু ঘোষিত জেলা সাবেক মহকুমা পটিয়া, হালের দক্ষিণ চট্টগ্রামের রাজধানী পটিয়া - যুগ যুগ ধরে বঞ্চনার শিকার ব্রিটিশ আমলে রেল নেটওয়ার্কে সংযুক্ত জংশন পটিয়া, একবিংশ শতাব্দির উন্নয়নের মহীসোপানে এসে বারবার মুর্ছা যাওয়া পটিয়া এবারও অবহেলার শিকার।

পর্যটন নগরী কক্সবাজারকে সারাদেশের সাথে রেল নেটওয়ার্কে সংযুক্ত করার লক্ষ্যে সম্প্রতি চট্টগ্রাম-দোহাজারী-কক্সবাজার রেললাইনের উদ্বোধন। 

আগামী ০১ ডিসেম্বর থেকে শুরু হচ্ছে এর বাণিজ্যিক যাত্রা। শুরুতে ঢাকা ও চট্টগ্রাম থেকে একটি করে দুটি ট্রেন চালানোর সিদ্ধান্ত নিয়েছে রেলওয়ে কর্তৃপক্ষ। তবে দক্ষিণ চট্টগ্রামের প্রায় সবকয়টি রেল স্টেশনে স্টপেজ থাকলেও এবারও বঞ্চনার শিকার পটিয়া। 

ঢাকা ও চট্টগ্রাম থেকে কক্সবাজার রেলপথের ভাড়া তালিকা ও সময়সূচি চূড়ান্ত করেছে বাংলাদেশ রেলওয়ে। 
বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন বাংলাদেশ রেলওয়ে (পূর্বাঞ্চল) মহাব্যবস্থাপক মোহাম্মদ নাজমুল ইসলাম। তিনি বলেন, কক্সবাজারের রেলপথের ভাড়া চূড়ান্ত করা হয়েছে। দু-একদিনের মধ্যেই প্রকাশ করা হবে। 

ঢাকা-কক্সবাজার ট্রেন, থামবে না পটিয়া!; Dhaka Coxsbazar rail fare
ঢাকা-কক্সবাজার রেল রুটে চূড়ান্ত ভাড়ার তালিকা

তবে রেলের একটি সূত্র থেকে প্রাপ্ত চূড়ান্ত ভাড়ার তালিকা অনুযায়ী, ঢাকা থেকে শোভন চেয়ারের টিকিট ৫০০ টাকা, এসি চেয়ার (স্নিগ্ধা) ৯৬১ টাকা, প্রথম শ্রেণীর চেয়ার ৭৭১ টাকা, প্রথম শ্রেণীর বার্থ/সিট ১১৫০ টাকা এবং এসি বার্থের টিকিট ১ হাজার ৭২৫ টাকা। 
আর চট্টগ্রাম-কক্সবাজার পর্যন্ত আন্তঃনগর ট্রেনে শোভন চেয়ারের টিকিট ২০৫ টাকা, প্রথম শ্রেণীর চেয়ার/সিট ৩১১ টাকা, প্রথম শ্রেণীর বার্থ ও এসি সিট ৪৬৬ টাকা, এসি চেয়ার (স্নিগ্ধা) ৩৮৬ টাকা এবং এসি বার্থ টিকিট ৬৯৬ টাকা। 

তবে ওই ভাড়ার চার্টে কম গুরুত্বপূর্ণ বেশকয়েকটি স্টেশনের নাম স্টপেজ হিসেবে উল্লেখ করলেও দক্ষিণ চট্টগ্রামের গুরুত্বপূর্ণ পটিয়া রেল স্টেশন জংশনে কোন স্টপেজ রাখা হয় নি। এমনকি মেইল এক্সপ্রেস/কমিউটার ট্রেনের স্টপেজ থেকেও বঞ্চিত করা হয়েছে। 
পটিয়াবাসীকে বারবার এভাবে বঞ্চনার বিষয়টি ব্যাপক আলোচনা-সমালোচনার ঝড় তুলেছে। অবিলম্বে ঢাকা থেকে কক্সবাজারগামী সকল আন্তঃনগর ট্রেনের পটিয়ায় স্টপেজ প্রদানের দাবি উঠেছে।
ফিলিস্তিনিদের উপর নিষিদ্ধ ফসফরাস বোমাবর্ষণ করছে দখলদার ইসরাইল; ফিলিস্তিন; গাজা; পশ্চিম তীর; লেবানন; Palestine; Gaza; West Bank; Lebanon; Israel
ফিলিস্তিনিদের উপর নিষিদ্ধ ফসফরাস বোমাবর্ষণ দখলদার ইসরাইলের

ভয়েস অব পটিয়া-ইন্টারন্যাশনাল ডেস্কঃ অবরুদ্ধ ফিলিস্তিনের গাজা উপত্যকায় ফিলিস্তিনি গণহত্যায় আন্তর্জাতিকভাবে ‘নিষিদ্ধ’ সাদা ফসফরাস বোমার ব্যবহার করছে ইহুদি সন্ত্রাসবাদী অবৈধ দখলদার ইসরাইলি বাহিনী।

ফিলিস্তিনের রাষ্ট্রীয় বার্তা সংস্থা ওয়াফা জানায়, দখলদার সন্ত্রাসবাদী ইসরাইলি বাহিনী সোমবার দিবাগত রাত থেকে গাজার আল-কারামা এলাকায় সাদা ফসফরাস বোমা ফেলেছে। 

বার্তাসংস্থা আল-জাজিরা জানায়, হামলায় এ পর্যন্ত ১,৫৮০ জন ফিলিস্তিনি নিহত এবং ৭,৩১২ জন আহত হয়েছেন।

হিউম্যান রাইটস ওয়াচ জানিয়েছে, তারা ইসরাইলি বাহিনী কর্তৃক গাজা উপত্যকা এবং লেবাননে আন্তর্জাতিকভাবে ‘নিষিদ্ধ’ সাদা ফসফরাস বোমা ফেলার প্রমাণ পেয়েছে। 

অত্যন্ত দাহ্য এই রাসায়নিক পদার্থ কখনো কখনো সামরিক বাহিনী এলাকা চিহ্নিত করতে ব্যবহার করে। তবে এই বোমা মানুষকে মারাত্মকভাবে পুড়িয়ে ফেলতে পারে। জনবহুল জায়গায় এই বোমা ফেলা মারাত্মক। মানুষ, ঘরবাড়ি, মাঠ, বেসামরিক ভবনসহ আশপাশে যা-ই থাকুক তা পুড়িয়ে ফেলবে।

হিউম্যান রাইটস ওয়াচের আহমেদ বেনচেমসি আল জাজিরাকে বলেন, যখন এই বোমা একটি বিস্তৃত অঞ্চল লক্ষ্য করে ফেলা হয়, তখন স্থল বিস্ফোরণের চেয়ে বেশি বেসামরিক মানুষ এবং অবকাঠামোর ক্ষতি করে। 
ফসফরাস বোমা মূলত অক্সিজেনের সংস্পর্শে এলে বায়ুমণ্ডলে জ্বলে ওঠে এবং ৮১৫ ডিগ্রি সেলসিয়াস (১৫০০ ডিগ্রি ফারেনহাইট) পর্যন্ত তীব্র তাপের সৃষ্টি করে। এটি মানুষের মাংস হাড় পর্যন্ত পুড়িয়ে ফেলতে পারে।
পারমাণবিক শক্তির যুগে প্রবেশ করলো বাংলাদেশ; পারমাণবিক বিদ্যুৎকেন্দ্র; Uranium; Putin; Hasina; Bangladesh; Russian; Nuclear power
রূপপুর পারমাণবিক বিদ্যুৎকেন্দ্রের জ্বালানী হস্তান্তর

ভয়েস অব পটিয়া-স্পেশাল ডেস্কঃ রূপপুর পারমাণবিক বিদ্যুৎকেন্দ্রের প্রথম ইউনিটের জ্বালানী ‘ফ্রেশ নিউক্লিয়ার ফুয়েল’ বা ইউরেনিয়াম আনুষ্ঠানিকভাবে হস্তান্তর করা হয়েছে। 
আজ বৃহস্পতিবার (০৫ ডিসেম্বর) বিকেল ৩টায় ইউরেনিয়াম হস্তান্তরের মাধ্যমে পারমাণবিক শক্তির যুগে প্রবেশ করলো বাংলাদেশ। 

ইউরেনিয়াম হস্তান্তর অনুষ্ঠানে ভার্চুয়ালি যুক্ত ছিলেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ও রাশিয়ার প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিন। এছাড়া আন্তর্জাতিক পরমাণু শক্তি সংস্থার (আইএইএ) মহাপরিচালক রাফায়েল গ্রোসিও যুক্ত ছিলেন। রাশিয়ার রাষ্ট্রীয় পারমাণবিক সংস্থা রোসাটমের মহাপরিচালক আলেস্কি লিখাচেভ সশরীরে উপস্থিত থেকে ইউরেনিয়াম হস্তান্তর করেন। বাংলাদেশের পক্ষে ইউরেনিয়াম গ্রহণ করেন বিজ্ঞান ও প্রযুক্তিমন্ত্রী স্থপতি ইয়াফেস ওসমান।

এর আগে ২৯ সেপ্টেম্বর সেনাবাহিনীসহ বিভিন্ন আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর সদস্যদের বিশেষ নিরাপত্তায় পাবনার ঈশ্বরদীতে অবস্থিত ২৪০০ মেগাওয়াট ক্ষমতাসম্পন্ন রূপপুর পারমাণবিক বিদ্যুৎ প্রকল্পের প্রথম ইউনিটের ইউরেনিয়ামের প্রথম চালান এসে পৌঁছায়।
এক নজরে প্রস্তাবিত জাতীয় বাজেট ২০২৩-২৪; পটিয়া; চট্টগ্রাম; Patiya; Chittagong; Chattogram; সংবাদ; সারাদেশ; ঢাকা; বাজেট; বাজেট ২০২৩; বাজেট ২০২৪; বাজেট ২০২৩-২৪; বাংলাদেশ; সংসদ
এক নজরে প্রস্তাবিত জাতীয় বাজেট ২০২৩-২৪



ভয়েস অব পটিয়া-ন্যাশনাল ডেস্কঃ  ‘স্মার্ট বাংলাদেশের দিকে’ যাত্রার অভিপ্রায়ে জাতীয় সংসদে ২০২৩-২৪ অর্থবছরের বাজেট প্রস্তাবনা উপস্থাপন করেছেন অর্থমন্ত্রী আ.হ.ম মুস্তফা কামাল। 

এবারের এ প্রস্তাবিত বাজেটের আকার ৭ লক্ষ ৬১ হাজার ৭৮৫ কোটি টাকা। যা চলতি ২০২২-২০২৩ অর্থবছরে সংশোধিত বাজেটের (৬ লাখ ৬০ হাজার ৫০৭ কোটি টাকা) চেয়ে ১৫.৩৩ শতাংশ বেশি। বাজেটের এই অর্থ জোগান দিতে রাজস্ব, অভ্যন্তরীণ ঋণ ও বৈদেশিক উৎস থেকে ঋণের শরণাপন্ন হবে সরকার। এবার রাজস্ব আদায়ের লক্ষ্যমাত্রা অর্জন ধরা হয়েছে ৪ লাখ ৩৩ হাজার কোটি টাকা। তারপরও আয় ও ব্যয়ের হিসাবে বাজেটে সামগ্রিক ঘাটতি থাকবে ২ লাখ ৪৫ হাজার কোটি টাকার বেশি, যা দেশের ইতিহাসে সর্বোচ্চ। 

বৃহস্পতিবার বিকালে (০১ জুন) স্পিকার শিরীন শারমিন চৌধুরীর সভাপতিত্বে, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার উপস্থিতিতে জাতীয় সংসদে ২০২৩-২৪ অর্থবছরের এই বাজেট প্রস্তাব উপস্থাপন করেন অর্থমন্ত্রী। তার আগে মন্ত্রীসভার অনুমোদনের পর ওই প্রস্তাবে সই করেন রাষ্ট্রপতি মোহাম্মদ সাহাবুদ্দিন।

মোট দেশজ উৎপাদনের (জিডিপি) তুলনায় ঘাটতির এই পরিমাণ দাঁড়াচ্ছে ৫.৫ শতাংশ। মোট বাজেটের শতাংশে ১৫.৭ ভাগ যা পূরণে নির্ভর করতে হবে ব্যাংক ঋণ থেকে। সেজন্য বিদেশ থেকে ১ লাখ ১২ হাজার ৪৫৮ এবং অভ্যন্তরীণ উৎস থেকে ১ লাখ ৪৬ হাজার ৩৩৫ কোটি টাকার মত ঋণ করার পরিকল্পনা জানিয়েছেন অর্থমন্ত্রী।
এছাড়া সঞ্চয়পত্র থেকে ৩৫ হাজার কোটি টাকা এবং অন্যান্য খাত থেকে আরও ৫ হাজার কোটি টাকা নেওয়ার পরিকল্পনা করেছেন অর্থমন্ত্রী আ.হ.ম মুস্তফা কামাল। বাজেটে সম্ভাব্য বৈদেশিক অনুদান পাওয়ার পরিমাণ ধরা হয়েছে সোয়া ৩ হাজার কোটি টাকা। 

এবার দেশি-বিদেশি ঋণের সুদ পরিশোধে ৯৪ হাজার ৩৭৬ কোটি টাকা খরচ হবে বলে অর্থমন্ত্রী হিসাব ধরেছেন, যা মোট অনুন্নয়ন ব্যয়ের প্রায় ২০ শতাংশ। অনুন্নয়ন ব্যয়ের আরও প্রায় ১৬.২০ শতাংশ প্রজাতন্ত্রের কর্মকর্তা-কর্মচারীদের বেতন-ভাতা পরিশোধে ব্যয় হয়ে, যার পরিমাণ অন্তত ৭৭ হাজার কোটি টাকা। 

বাজেট বক্তৃতায় অর্থমন্ত্রী বলেন, “আমাদের ‘স্মার্ট বাংলাদেশে' মাথাপিছু আয় হবে কমপক্ষে ১২ হাজার ৫০০ মার্কিন ডলার; দারিদ্র্যসীমার নিচে থাকবে ৩ শতাংশের কম মানুষ আর চরম দারিদ্র্য নেমে আসবে শূন্যের কোঠায়; মূল্যস্ফীতি সীমিত থাকবে ৪-৫ শতাংশের মধ্যে; বাজেট ঘাটতি থাকবে জিডিপির ৫ শতাংশের নিচে; রাজস্ব-জিডিপি অনুপাত হবে ২০ শতাংশের ওপরে; বিনিয়োগ হবে জিডিপির ৪০ শতাংশ।
“শতভাগ ডিজিটাল অর্থনীতি আর বিজ্ঞান ও প্রযুক্তিভিত্তিক স্বাক্ষরতা অর্জিত হবে। সকলের দোড়গোড়ায় স্বাস্থ্যসেবা পৌঁছে যাবে। স্বয়ংক্রিয় যোগাযোগ ব্যবস্থা, টেকসই নগরায়নসহ নাগরিকদের প্রয়োজনীয় সকল সেবা থাকবে হাতের নাগালে। তৈরি হবে পেপারলেস ও ক্যাশলেস সোসাইটি। সবচেয়ে বড় কথা, স্মার্ট বাংলাদেশে প্রতিষ্ঠিত হবে সাম্য ও ন্যায়ভিত্তিক সমাজব্যবস্থা।”


এক নজরে প্রস্তাবিত জাতীয় বাজেট ২০২৩-২৪; পটিয়া; চট্টগ্রাম; Patiya; Chittagong; Chattogram; সংবাদ; সারাদেশ; ঢাকা; বাজেট; বাজেট ২০২৩; বাজেট ২০২৪; বাজেট ২০২৩-২৪; বাংলাদেশ; সংসদ
প্রস্তাবিত বাজেট উপস্থাপন করছেন অর্থমন্ত্রী আ.হ.ম মুস্তফা কামাল

যেসব পণ্যের দাম বাড়ছে
  • মোবাইল সেট: স্থানীয় উৎপাদন ও সংযোজন পর্যায়ে মোবাইল ফোনের ভ্যাট বাড়ানো হয়েছে। তাই মোবাইল ফোনের দাম বাড়তে পারে।  
  • এলপি গ্যাস: উৎপাদন পর্যায়ে ভ্যাট ৫ শতাংশ থেকে বাড়িয়ে সাড়ে ৭ শতাংশ করা হয়েছে। একইসঙ্গে সিলিন্ডার বানানোর কাজে ব্যবহৃত স্টিল ও ওয়েল্ডিং ওয়্যার আমদানিতে শুল্ক আরোপ হয়েছে। এ কারণে এলপি গ্যাসের দাম বাড়তে পারে।
  • কলম: কলম উৎপাদনে বর্তমানে ভ্যাট অব্যাহতি ছিল, সেখানে ১৫ শতাংশ ভ্যাট বসানো হয়েছে। এতে শিক্ষা উপকরণ কলমের দাম বাড়তে পারে।
  • চশমা: চশমার ফ্রেম ও সানগ্লাস আমদানিতে শুল্ক ৫ শতাংশ থেকে বাড়িয়ে ২৫ শতাংশ করা হচ্ছে। এছাড়াও উৎপাদন পর্যায়ে ভ্যাট ৫ শতাংশ থেকে বাড়িয়ে সাড়ে ৭ শতাংশ করা হচ্ছে। তাই বাড়তে পারে চশমার ফ্রেমের দামও।
  • টিস্যু: কিচেন টাওয়াল, টয়লেট টিস্যু, ন্যাপকিন টিস্যু, ফেসিয়াল টিস্যু/পকেট টিস্যু ও পেপার টাওয়াল উৎপাদনে ৫ শতাংশ ভ্যাট আছে, এটি বাড়িয়ে ৭ দশমিক ৫০ শতাংশ করা হচ্ছে। এতে টিস্যু পেপারের দাম বাড়তে পারে।
  • সাইকেল: সাইকেলের যন্ত্রাংশ আমদানিতে শুল্ক বাড়ানো হয়েছে। তাই সাইকেলের দাম বাড়তে পারে।
  • প্লাস্টিক ও অ্যালুমিনিয়ামের তৈজষপত্র: বাসাবাড়িতে ব্যবহৃত প্লাস্টিক ও অ্যালুমিনিয়ামের তৈজষপত্র উৎপাদনে ভ্যাট ৫ শতাংশ থেকে বাড়িয়ে ৭ দশমিক ৫০ শতাংশ করা হয়েছে। এতে তৈজসপত্রের দাম বাড়তে পারে।
  • খেজুর: শুল্ক-ফাঁকি রোধে তাজা ও শুকনো খেজুর আমদানিতে ২৫ শতাংশ শুল্কের পাশাপাশি ১৫ শতাংশ ভ্যাট আরোপ করা হয়েছে। এতে খেজুরের দাম বাড়ার সম্ভাবনা রয়েছে। 
  • কাজুবাদাম: স্থানীয় পর্যায়ে উৎপাদন বাড়াতে কাজুবাদাম আমদানিতে শুল্ক বাড়ানো হয়েছে। এ কারণে আমদানি করা কাজুবাদামের দাম বাড়তে পারে। এছাড়াও ফল-বাদাম আমদানিতে ২০ শতাংশ শুল্ক আরোপ করা হয়েছে।
  • বাসমতি চাল: নন ফর্টিফাইড বাসমতি চাল আমদানিতে ভ্যাট বসানো হয়েছে। এতে এই চালের দাম বাড়তে পারে।
  • সিগারেট: এবার সিগারেটের মূল্যস্তর বাড়ানো হয়েছে। এর ফলে সব ধরনের সিগারেটের দামই বাড়তে পারে।
  • সিমেন্ট: সিমেন্টের প্রধান কাঁচামাল ক্লিংকার আমদানিতে বর্তমানে টনপ্রতি ৫০০ টাকা সুনির্দিষ্ট শুল্ক আছে। এটি বাড়িয়ে ৭০০ টাকা করা হয়েছে বিধায় সিমেন্টের দাম বাড়তে পারে।
এছাড়াও দাম বাড়তে পারে শিরিষ কাগজ, আঠা বা গ্লু, মাছের টুকরা, চিজ ও দই, চা-কফিমেট, গ্যাস লাইটার প্রভৃতি পণ্যের। হয়েছে।

যেসব পণ্যের দাম কমছে
  • মিষ্টি: বিপণন পর্যায়ে মিষ্টিতে ১৫ শতাংশ ভ্যাট ছিল। এটি কমিয়ে সাড়ে ৭ শতাংশ করায় মিষ্টির দাম কমতে পারে।
  • কীটনাশক: কৃষিকাজে ব্যবহৃত কীটনাশক, বালাইনাশক ও আগাছানাশকের দাম কমতে পারে। কারণ এসব উৎপাদনে ব্যবহৃত রাসায়নিক আমদানিতে আগাম কর প্রত্যাহার করা হয়েছে।
  • স্প্রেয়ার মেশিন: কৃষিকাজে ব্যবহৃত রাইস ট্রান্সপ্লান্টার, ড্রায়ার, স্প্রেয়ার মেশিনে আগাম কর প্রত্যাহার করা হয়েছে। তাই এসব পণ্যের দাম কমতে পারে।
তুরস্কের প্রেসিডেন্ট পদে পুনরায় নির্বাচিত এরদোগান; Turkey; Erdogan; তুরস্ক; এরদোগান
তুরস্কের প্রেসিডেন্ট পদে পুনরায় নির্বাচিত এরদোগান

ভয়েস অব পটিয়া-ইন্টারন্যাশনাল ডেস্কঃ তুরস্কের প্রেসিডেন্ট পদে পুনরায় নির্বাচিত হয়েছেন রিসেপ তাইয়্যিপ এরদোগান। 

টানা তৃতীয় মেয়াদে তুরস্কের প্রেসিডেন্ট পদে নির্বাচিত হয়েছেন রিসেপ তাইয়্যি এরদোগান। প্রতিদ্বন্দ্বী প্রার্থী কেমাল কিলিচদারগলুর সঙ্গে হাড্ডাহাড্ডি লড়াইয়ে জয় ছিনিয়ে নিয়েছেন দেশটির বর্তমান প্রেসিডেন্ট। 
তুরস্কের রাষ্ট্রীয় বার্তা সংস্থা আনাদোলু এজেন্সীর বরাতে, নির্বাচনে বর্তমান ক্ষমতাসীন দল একে পার্টির নেতা এরদোগান ৫২ দশমিক ০৯ শতাংশ ভোট পেয়ে বিজয়ী হয়েছেন। অন্যদিকে প্রধান বিরোধী দল সিএইচ পার্টির কেমাল পেয়েছেন ৪৭ দশমিক ৯১ শতাংশ ভোট। 
তুরস্কের ভূমিকম্পে উদ্ধারকারী বাংলাদেশ দলকে প্রেসিডেন্ট এরদোগানের বিশেষ সম্মাননা; তুরস্ক; সিরিয়া; ভূমিকম্প; গাজিয়ানটেপ; Turkey; Syria; Gaziantep; Earthquake; EU
তুরস্কের ভূমিকম্পে উদ্ধারকারী বাংলাদেশ দলকে প্রেসিডেন্ট এরদোগানের বিশেষ সম্মাননা

ভয়েস অব পটিয়া-সংবাদ বিজ্ঞপ্তিঃ তুরস্কে ভূমিকম্প পরবর্তী উদ্ধারকার্য পরিচালনাকারী বাংলাদেশ দলকে মানবিক সহায়তার অনন্য দৃষ্টান্ত স্থাপনের স্বীকৃতিস্বরূপ তুরস্ক সরকারের পক্ষ হতে গত (২৫ এপ্রিল ২০২৩) বিশেষ সম্মাননা প্রদান করেন তুরস্কের প্রেসিডেন্ট রিসেপ তাইয়্যিপ এরদোগান।
 
আন্তঃবাহিনী জনসংযোগ পরিদপ্তর (আইএসপিআর) এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানায়। 

বাংলাদেশের পক্ষে এই সম্মাননা স্মারক গ্রহণ করেন তুরস্কে নিযুক্ত বাংলাদেশ সেনাবাহিনীর ডিফেন্স অ্যাটাশে ব্রিগেডিয়ার জেনারেল মুহাম্মদ রাশেদ ইকবাল (এনডিসি/পিএসসি/জি) এবং উদ্ধারকারী দলের দলনেতা লেঃ কর্ণেল মুহাম্মদ রুহুল আমিন। 

তুরস্কের ভূমিকম্পে উদ্ধারকারী বাংলাদেশ দলকে প্রেসিডেন্ট এরদোগানের বিশেষ সম্মাননা; তুরস্ক; সিরিয়া; ভূমিকম্প; গাজিয়ানটেপ; Turkey; Syria; Gaziantep; Earthquake; EU
তুরস্কের ভূমিকম্পে উদ্ধারকারী বাংলাদেশ দলকে প্রেসিডেন্ট এরদোগানের বিশেষ সম্মাননা

উল্লেখ্য, গত ০৬ ফেব্রুয়ারী ২০২৩ ইং তারিখ তুরস্কে ভয়াবহ ভূমিকম্প পরবর্তী উদ্ধারকার্যে সহায়তার জন্য তুরস্ক কর্তৃক বাংলাদেশের নিকট অনুরোধের প্রেক্ষিতে গত ০৮ ফেব্রুয়ারী ২০২৩ ইং তারিখে বাংলাদেশ সেনাবাহিনীর নেতৃত্বে ফায়ার সার্ভিস ও সিভিল ডিফেন্স এবং বিমান বাহিনীর সদস্যদের সমন্বয়ে ৬০ সদস্যের একটি বিশেষ উদ্ধারকারী দল তুরস্কে উদ্ধারকার্য শুরু করে। উদ্ধারকার্যের অংশ হিসেবে তুরস্কের সবচেয়ে ক্ষতিগ্রস্থ এলাকা গাজিয়ানটেপে প্রদেশের আদিয়ামান এবং হাতাই এ উদ্ধারকার্য ও চিকিৎসা সহায়তা প্রদান করে। 
উদ্ধারকার্য পরিচালনার পাশাপাশি দলটি ভূমিকম্পে ক্ষতিগ্রস্ত মানুষের মাঝে ১২০ কার্টন খাবার এবং ৭২টি তাবু বিতরণ করে। এছাড়া মেডিকেল টিমটি ১০৪ জনকে চিকিৎসা সেবা প্রদান এবং তাদের মাঝে ৩২ কার্টন ঔষধ বিতরণসহ ভূমিকম্পের ফলে আঘাতপ্রাপ্ত ও মানসিক ট্রমাগ্রস্থ রোগীদের চিকিৎসা সেবা প্রদান করে।  

বাংলাদেশের এই বন্ধুত্বপূর্ণ আচরণের মাধ্যমে বাংলাদেশ এবং তুরস্কের মাঝে বন্ধুত্বপূর্ণ সম্পর্ক আরও সুসংহত হবে বলে আশাবাদী দুদেশের জনগণ।
চাঁদ দেখা গেছে, আগামীকাল ঈদ; ঈদ উল ফিতর; রমযান; শাওয়াল; Eid; Eid Al Fitr; Ramadan; Shawwal
চাঁদ দেখা গেছে, আগামীকাল ঈদ

ভয়েস অব পটিয়া-ন্যাশনাল ডেস্কঃ দেশের আকাশে শাওয়াল মাসের চাঁদ দেখা গেছে। ঈদ মুবারক। আগামীকাল শনিবার (২২ এপ্রিল) দেশব্যাপী মুসলমানদের সবচেয়ে বড় ধর্মীয় উৎসব পবিত্র ঈদ-উল-ফিতর উদযাপিত হবে।

আজ শুক্রবার (২১ এপ্রিল) সন্ধ্যায় রাজধানীর বায়তুল মোকাররমে ইসলামিক ফাউন্ডেশনের সভাকক্ষে  জাতীয় চাঁদ দেখা কমিটির সভায় এ সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়। সভায় সভাপতিত্ব করেন চাঁদ দেখা কমিটির সভাপতি ও ধর্ম বিষয়ক প্রতিমন্ত্রী মোঃ ফরিদুল হক খান।

সভায় ধর্ম প্রতিমন্ত্রী জানান, সব জেলা প্রশাসন, ইসলামিক ফাউন্ডেশনের প্রধান কার্যালয়, বিভাগীয় ও জেলা কার্যালয়, আবহাওয়া অধিদফতর, মহাকাশ গবেষণা ও দূর অনুধাবন কেন্দ্র (স্পারসো) থেকে প্রাপ্ত তথ্য অনুযায়ী বাংলাদেশের আকাশে হিজরী ১৪৪৪ সনের শাওয়াল মাসের চাঁদ দেখা গেছে। তাই আগামীকাল শনিবার শাওয়াল মাসের প্রথম দিন দেশে ঈদ-উল-ফিতর উদযাপিত হবে।