ভয়েস অব পটিয়া: পটিয়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের কর্তব্যরত ডাক্তার, নার্সের অবহেলায় সন্তান প্রসবের মুুহুর্তে প্রসুতি রোগীকে চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে প্রেরন করলে মাঝপথে এম্বুলেন্সে সন্তান প্রসব হওয়ার চাঞ্চল্যকর খবর পাওয়া গেছে।

ভয়েস অব পটিয়া-নিউজ ডেস্ক: পটিয়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের কর্তব্যরত ডাক্তার, নার্সের অবহেলায় সন্তান প্রসবের মুুহুর্তে প্রসুতি রোগীকে চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে প্রেরন করলে মাঝপথে এম্বুলেন্সে সন্তান প্রসব হওয়ার চাঞ্চল্যকর খবর পাওয়া গেছে।

প্রসুতির নাম সাবরিনা সুলতানা নিপা। তিনি পটিয়া পৌরসভার ৫ নং ওয়ার্ডের তৌহিদুল ইসলামের স্ত্রী।

জানা যায়, সন্তান সম্ভাবা সাবরিনা সুলতানা নিপার গত রবিবার সন্তান প্রসবের দিন ধার্য্য ছিল। তার প্রসব বেদনা শুরু হলে, ঐদিন বেলা ১টায় তাকে পটিয়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়। কর্তব্যরত ডাক্তার বিভিন্ন পরীক্ষা করে, তার অবস্থা ভাল বলে তার স্বামীকে জানায়। স্বাভাবিক ডেলিভারী হওয়ার আশ্বাস দেন। কিন্তু বিকেল ৫টায় কর্তব্যরত ডাক্তার তার স্বামীকে জানায়, এখানে ডেলিভারী করা সম্ভব নয়, তাকে চমেক হাসপাতালে প্রেরন করতে হবে। এতে তার স্বামী তৌহিদ স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের এম্বুলেন্সের ড্রাইভারকে ডেকে ভাড়া করতে চাইলে, সে অপারগতা প্রকাশ করে। অতঃপর কয়েকজনের অনুরোধে সে রাজী হয়। সে সময় রোগীর চরম প্রসব বেদনা শুরু হয়। প্রসব বেদনার মধ্যেই তাকে অনেক কষ্টে এম্বুলেন্সে তোলে সাড়ে ৫টায় চমেক হাসপাতালে রওনা হয়। বহদ্দারহাটের কাছাকাছি পৌছলে এম্বুলেন্সে বাচ্চা প্রসব হয়ে যায়। এম্বুলেন্সে তার সাথে রক্ষিত মহিলারা উপায়ান্ত না দেখে তাকে তরিগরি করে, চাঁন্দগাও আবাসিক মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। সাবরিনা সুলতানার পুত্র সন্তান জন্ম নেয়। 

এ ব্যাপারে নিপার স্বামী তৌহিদ জানান, নার্সদের চাহিদা মত টাকা না দেওয়ায় পরিকল্পিত ভাবে তাকে চমেকে প্রেরণ করেছে। 

এ ব্যাপারে উপজেলা স্বাস্থ্য ও পপ কর্মকর্তা ডাঃ শিশির কুমার রায় থেকে জানতে চাইলে তিনি জানান তিনি সে সময় জরুরী বিভাগে দায়িত্বে ছিলেন না। সেসময় ডাঃ সিম্পল দে, ডাঃ জেবুন্নেছা কোরেশীর দায়িত্বে ছিল বলে জানান। ডাঃ জেবুন্নেছার সাথে এ ব্যাপারে জানতে চাইলে তিনি জানান, রোগীর অবস্থা ভাল ছিলো না তাই তাকে চমেকে রেফার্ড করেছি।

Share To:

Voice of Patiya

Post A Comment:

0 comments so far,add yours

Note: Only a member of this blog may post a comment.