ভয়েস অব পটিয়া: চট্টগ্রাম-কক্সবাজার মহাসড়কের পটিয়া থানার শান্তির হাট এলাকায় কাভার্ডভ্যানের ধাক্কায় সিএনজি অটোরিকশার ২ যাত্রী নিহত হয়েছেন। এতে আহত হয়েছেন আরো ৩ জন।

ভয়েস অব পটিয়া
ভয়েস অব পটিয়া-নিউজ ডেস্ক: চট্টগ্রাম-কক্সবাজার মহাসড়কের পটিয়া থানার শান্তির হাট এলাকায় কাভার্ডভ্যানের ধাক্কায় সিএনজি অটোরিকশার ২ যাত্রী নিহত হয়েছেন। এতে আহত হয়েছেন আরো ৩ জন। 

মঙ্গলবার দুপুর ২টার দিকে এ ঘটনা ঘটে। হতাহতদের সবাই পটিয়া উপজেলার বাসিন্দা।

নিহতরা হলেন- পটিয়ার মধ্য জিরি এলাকার নুর আলমের ছেলে মো মোশতাক হোসেন (২২) ও কুসুমপুরা এলাকার জহির আলমের ছেলে মো. নয়ন (১৩)। আহতরা হলেন, আশিয়া রশিদপুর এলাকার মৃত আলতাফ মিয়ার ছেলে মো. ইসহাক (৪৫), কৈয়াগ্রাম এলাকার হাজি আবদুল মালেকের ছেলে মো. ইসমাইল (৩৬) ও ভাটিখাইন এলাকার আনোয়ার হোসেনের ছেলে মো. আরাফাত (১৬)। 

হাইওয়ে পুলিশের পটিয়া ফাঁড়ির এসআই মো. মাসুদ আলম বলেন, ‘পটিয়া অভিমুখী একটি সিএনজি অটোরিক্সাকে চট্টগ্রাম শহর অভিমুখী একটি কাভার্ড ভ্যান চাপা দিলে অটোরিক্সার চালক-যাত্রীসহ ৫ জন গুরুতর আহত হন। স্থানীয় লোকজন তাদের উদ্ধার করে চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে (চমেক) পাঠায়। আমরা ঘটনাস্থলে গিয়ে আহতদের কাউকেই পাইনি। দুর্ঘটনা কবলিত অটোরিক্সা ও কাভার্ড ভ্যান আটক করা হয়েছে।’ তিনি বলেন, ‘কাভার্ড ভ্যানের চালককে পাওয়া যায়নি, তবে সহকারীকে আটক করে স্থানীয় লোকজন পুলিশে সোপর্দ করেছে।’ এসআই মাসুদ বলেন, ‘দুর্ঘটনার শিকার সিএনজি অটোরিক্সাটি নম্বরবিহীন অর্থাৎ এটি অবৈধভাবে চলাচল করছিলো।’ 

চমেক পুলিশ ফাঁড়ির নায়েক হামিদুর রহমান জানান, দুর্ঘটনার পর অটোরিক্সার ৫ জনকে হাসপাতালে নিয়ে আসা হলে কর্তব্যরত ডাক্তার মোশতাক ও নয়নকে মৃত ঘোষণা করেন। আহত ৩ জনের অবস্থা আশংকাজনক উল্লেখ করে তিনি বলেন, ‘তাদের চিকিৎসা দেয়া হচ্ছে।’ এদিকে মহাসড়কে থ্রি-হুইলার চলাচল নিষিদ্ধ ঘোষণার পরও কীভাবে সিএনজি অটোরিক্সাটি মহাসড়কে উঠলো জানতে চাইলে পটিয়া হাইওয়ে পুলিশ ফাঁড়ির এসআই মাসুদ বলেন, ‘আইন অমান্য করায় আমরা অটোরিক্সাটির বিরুদ্ধে মামলা করবো।’

Like us on http://www.facebook.com/VoiceofPatiyaFans
Share To:

Voice of Patiya

Post A Comment:

0 comments so far,add yours

Note: Only a member of this blog may post a comment.