ভয়েস অব পটিয়াঃ পটিয়া উপজেলার দক্ষিণ ছনহরায় গত ১০ আগস্ট গভীর বক্কা সেনের বাড়ীর মৃদুল দে এর প্রায় ৫০ হাজার টাকা মূল্যমানের একটি গাভী গভীর রাতে চুরি হয়ে যায়

ভয়েস অব পটিয়া পটিয়া নিউজ পটিয়া সংবাদ













ভয়েস অব পটিয়া-আনোয়ার আলমদারঃ পটিয়া উপজেলার দক্ষিণ ছনহরায় গত ১০ আগস্ট গভীর বক্কা সেনের বাড়ীর মৃদুল দে এর প্রায় ৫০ হাজার টাকা মূল্যমানের একটি গাভী গভীর রাতে চুরি হয়ে যায়। এর পরদিন থেকে হতদরিদ্র মৃদুল দে প্রায় সব জায়গায় খোঁজ নেয় কিন্তু কোথাও গরুটির সন্ধান পায়নি। তবে এ বিষয় নিয়ে সমস্যার সৃষ্টি হয় গরুচোরদের মাঝে! জানা যায়, গরুটি চুরি করে জিয়াউর গ্যাং নামধারী একদল চোর। তারা গরুটি চুরি করে উত্তর ছনহরা ইউসুফের টং প্রকাশ টুর্টের টংয়ে ৪ হাজার টাকা চুক্তিতে ৪ দিনের জন্য রাখে। কিন্তুু ৪ দিন অতিক্রম হওয়ার পর চোর চক্র ইউসুফকে কোন টাকা না দিয়ে গরু নিয়ে যেতে চাইলে ইউসুফ গরুর মালিক মৃদুল কে খবর দেয়। খবর পেয়ে মৃদুল এলাকাবাসীকে নিয়ে গরুটি উদ্ধার করে নিয়ে আসে। গরু নিয়ে আসার পর মৃদুল কে এলাকায় খবরটি প্রচার না করার জন্য একাধিকবার ফোনে ও প্রতিনিধি পাঠিয়ে হুঁশিয়ারী প্রদান করে চুপ থাকতে বলে এবং অন্যথায় প্রাণনাশের হুমকি দেয় গরু চোরের সর্দার এলাকায় ত্রাস সৃষ্টিকারী মাদক ব্যবসায়ী জয়নাল । 

এ বিষয়ে আলাপকালে নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক এক ব্যক্তি ভয়েস অব পটিয়াকে বলেন, ছনহরার মাদক সম্রাট জিয়াউর রহমান ওরফে চোর জিয়া প্রতিরাতে মদ-ফেন্সিডিল বিক্রি করে তার কাছ থেকে মদ কেনার জন্য পটিয়ার বিভিন্ন জায়গা থেকে অনেকে আসে, সে প্রতিদিন রাত্রে মদ খেয়ে মাতলামী করে এবং চুরি-ডাকাতি করে তার সাঙ্গ-পাঙ্গদের নিয়ে। ইতিমধ্যে সে কয়েকবার গ্রেফতারও হয়েছে। তার অত্যাচারে অতিষ্ঠ হয়ে পড়েছে এলাকাবাসী। 

এ বিষয়ে ভুক্তভোগী মৃদুল এর সাথে আলাপকালে জানান, আমি গরুটি উদ্ধার করে নিয়ে আসার পর থেকে আমার উপর জীবননাশের হুমকি অব্যাহত রয়েছে এবং এতে তিনি তার প্রাণহানির শংকা প্রকাশ করেছেন।

এ ব্যাপারে তিনি স্থানীয় প্রশাসনের কাছে নিরাপত্তা চেয়ে অতিসত্বর দোষীদের আইনের কাঠগড়ায় নিয়ে বিচার চান এবং এলাকাবাসীর সহযোগীতা কামনা করেন। এ ব্যাপারে অভিযুক্ত জয়নালের সাথে একাধিকবার যোগাযোগ করার চেষ্টা করা হলেও তার মোবাইল নম্বরটি বন্ধ পাওয়া যায়।

Share To:

Voice of Patiya

Post A Comment:

0 comments so far,add yours