ভয়েস অব পটিয়াঃ চট্টগ্রাম-কক্সবাজার মহাসড়কের পটিয়া সদরের ডাকবাংলো মোড় এলাকাটি বৃষ্টির পানি জমে পুকুরে পরিণত হয়েছে। এর ফলে প্রতিনিয়ত দূর্ঘটনার আশঙ্কা ও ঝুঁকি নিয়ে যানবাহন ও সাধারণ জনগণকে চলাচল করতে হচ্ছে।

পটিয়া ডাকবাংলোর মোড় যেন মৃত্যুকূপ! ভয়েস অব পটিয়া Patiya


ভয়েস অব পটিয়া-বিশেষ প্রতিনিধিঃ চট্টগ্রাম-কক্সবাজার মহাসড়কের পটিয়া সদরের ডাকবাংলো মোড় এলাকাটি বৃষ্টির পানি জমে পুকুরে পরিণত হয়েছে। এর ফলে প্রতিনিয়ত দূর্ঘটনার আশঙ্কা ও ঝুঁকি নিয়ে যানবাহন ও সাধারণ জনগণকে উক্ত রাস্তায় চলাচল করতে হচ্ছে।


চট্টগ্রাম-কক্সবাজার মহাসড়কের পটিয়া পৌরসভা সদরে অবস্থিত পটিয়া ডাকবাংলো সংলগ্ন মোড়টি একটি গুরুত্বপূর্ণ বাঁক। এখানে প্রায় সময়ই ঝুঁকি নিয়েই যানবাহন ও সাধারণ জনগণকে চলাচল করতে হয়। পানি নিষ্কাশন ব্যবস্থা না থাকায় অল্প বৃষ্টিতে সড়কের পশ্চিম পার্শ্বে পানি জমে একাকার। নিয়মিত এই অংশটি সংস্কার না করায় সড়কের প্লাস্টার-বিটুমিন উঠে গিয়ে বিরাট আকারের গর্তের সৃষ্টি হয়েছে। যার ফলে ইতিপূর্বে এ মোড়ে দূর্ঘটনার সম্মুখীন হয়েছে অনেক মানুষ। বর্তমানে সৃষ্ট গর্তের কারণে যে কোন মুহূর্তে বড় ধরনের দূর্ঘটনার আশংকা করছেন স্থানীয় এলাকাবাসীরা। 



ডাকবাংলো সংলগ্ন সড়কটি চট্টগ্রাম-কক্সবাজার মহাসড়কের গুরুত্বপূর্ণ মোড় বিধায় এই মোড় দিয়ে প্রতিদিন শত শত যানবাহন চলাচল করে। বিশেষ করে, পর্যটন নগরী কক্সবাজার ও পাহাড়ী কন্যা বান্দরবানে এবং দক্ষিণ চট্টগ্রামে যাতায়াতকারী যানবাহনগুলো সড়কের এ বাঁক পারাপারে দূর্ঘটনার ঝুঁকির মধ্যে রয়েছে। 



বিরাট দূর্ঘটনার ঝুঁকি নিয়েই সাধারণ মানুষ ও যানবাহনগুলো চলাচল করলেও তা দেখার যেন কেউ নেই।

এদিকে পটিয়া পৌরসভার ড্রেনেজ ব্যবস্থা স্থাপনের লক্ষ্যে চলমান সড়কের দুপাশে ড্রেন নির্মাণের ধীরগতি এবং সড়কের পাশে কাঁচামাল মজুদ রাখায় পানি নিষ্কাষনের স্বাভাবিক নালাটিও বন্ধ হয়ে রয়েছে। যার দরুণ দীর্ঘদিন ধরে পানি জমে থাকার ফলে বিরাট আকারের গর্তের সৃষ্টি হয়েছে।

এ ব্যাপারে জানতে চাইলে পটিয়া পৌরসভা কর্তৃপক্ষের কোন বক্তব্য পাওয়া যায় নি।

সড়ক বিভাগের নির্বাহী প্রকৌশলী মো: তোফায়েল মিয়া ভয়েস অব পটিয়াকে বলেন, পটিয়া পৌরসভা কর্তৃপক্ষ সওজ বিভাগের সাথে ড্রেনেজ ব্যবস্থা স্থাপনের কাজে সমন্বয় না করায় কাজে ধীরগতি পরিলক্ষিত হচ্ছে; যার ফলে সহসাই উক্ত স্থানের সড়ক সংস্কার করা সম্ভব হচ্ছে না। তিনি আরো বলেন, চট্টগ্রাম-কক্সবাজার মহাসড়কের বাঁকগুলো সোজাকরণসহ এ সড়ক সংস্কারে উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে। আমরা আশাবাদী শীঘ্রই বরাদ্দ প্রাপ্তি সাপেক্ষে এ ব্যাপারে ব্যবস্থা নেওয়া হবে।


পটিয়া সম্পর্কে জানতে আমাদের ফেসবুক পেজের সাথে থাকুন।
Share To:

Voice of Patiya

Post A Comment:

0 comments so far,add yours

Note: Only a member of this blog may post a comment.